• শিরোনাম


    হেপাটাইটিস চিকিৎসায় হোমিও প্রতিবিধান :-ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ

    লেখক: ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ , স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রধান-আওয়ার কণ্ঠ | রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 15 বার

    হেপাটাইটিস বলতে যকৃতের প্রদাহ (ফুলে যাওয়া) বোঝায়। ভাইরাস ঘটিত সংক্রমণ বা অ্যালকোহলের মত ক্ষতিকারক পদার্থের কারণে ঘটা যকৃতের একটি রোগ। হেপাটাইটিস অল্প কিছু উপসর্গসহ বা কোনো উপসর্গ ছাড়াই ঘটতে পারে। তবে বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে জন্ডিস, এনরেক্সিয়া (ক্ষুধমান্দ্য) ও অসুস্থতাবোধ এর লক্ষণ বা উপসর্গ। দুধরণের হেপাটাইটিস দেখা যায় : তীব্র ও দীর্ঘস্থায়ী। তীব্র হেপাটাইটিস ৬ মাসেরও কম স্থায়ী হয়, অন্য দিকে দীর্ঘস্থায়ী হেপাটাইটিস দীর্ঘ দিন ধরে চলতে থাকে। মূলত ...বিস্তারিত

    হেপাটাইটিস বলতে যকৃতের প্রদাহ (ফুলে যাওয়া) বোঝায়। ভাইরাস ঘটিত সংক্রমণ বা অ্যালকোহলের মত ক্ষতিকারক পদার্থের কারণে ঘটা যকৃতের একটি রোগ। হেপাটাইটিস অল্প কিছু উপসর্গসহ বা কোনো উপসর্গ ছাড়াই ঘটতে পারে। তবে বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে জন্ডিস, এনরেক্সিয়া (ক্ষুধমান্দ্য) ও অসুস্থতাবোধ এর লক্ষণ বা উপসর্গ। দুধরণের হেপাটাইটিস দেখা যায় : ...বিস্তারিত

    হেপাটাইটিস বলতে যকৃতের প্রদাহ (ফুলে যাওয়া) বোঝায়। ভাইরাস ঘটিত সংক্রমণ বা অ্যালকোহলের মত ক্ষতিকারক পদার্থের কারণে ঘটা যকৃতের একটি রোগ। ...বিস্তারিত

    আজ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস: ডা.মাহতাব হোসাইন মাজেদ

    লেখক: ডা.মাহতাব হোসাইন মাজেদ , স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রধান-আওয়ার কণ্ঠ | বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 56 বার

    বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস হল বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস সম্পর্কে বিশ্বময় সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে একটি ক্যাম্পেইন, যা প্রতিবছর ১৪ই নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস রোগ ব্যাপক হারে বেড়ে যাওয়ায়,বিশ্ব ডায়াবেটিস ফেডারেশন (আইডিএফ) ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৯৯১ সাল-এ ১৪ নভেম্বরকে ডায়াবেটিস দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এদিন বিজ্ঞানী ফ্রেডরিক বেনটিং জন্ম নিয়েছিলেন এবং তিনি বিজ্ঞানী চার্লস বেস্টের সঙ্গে একত্রে ইনসুলিন আবিষ্কার করেছিলেন। ডায়াবেটিস একটি রোগ,এ রোগ কিভাবে জন্ম হলো এ কথা কেউ সঠিক ভাবে বলতে ...বিস্তারিত

    বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস হল বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস সম্পর্কে বিশ্বময় সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে একটি ক্যাম্পেইন, যা প্রতিবছর ১৪ই নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস রোগ ব্যাপক হারে বেড়ে যাওয়ায়,বিশ্ব ডায়াবেটিস ফেডারেশন (আইডিএফ) ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ১৯৯১ সাল-এ ১৪ নভেম্বরকে ডায়াবেটিস দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এদিন বিজ্ঞানী ফ্রেডরিক বেনটিং জন্ম নিয়েছিলেন এবং তিনি ...বিস্তারিত

    বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস হল বিশ্বজুড়ে ডায়াবেটিস সম্পর্কে বিশ্বময় সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে একটি ক্যাম্পেইন, যা প্রতিবছর ১৪ই নভেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্বজুড়ে ...বিস্তারিত

    কিডনী রোগীর ডায়ালাইসিস নয় হোমিওসমাধান -ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ

    লেখক: ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ, স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রধান-আওয়ার কণ্ঠ ২৪. কম | রবিবার, ১০ নভেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 73 বার

    মূএ যন্ত্রের এবং মূএের যে কোন পীড়া সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান লাভ করতে হলেই প্রথমে যন্ত্রটি সম্পর্কে আমাদের একটি সঠিক ধারণা থাকতে হবে। মূএ যন্ত্রটিকে প্রধান চারটি ভাগে ভাগে ভাগ করা যায়. যথা ১.দুইটি কিডনী যা মূএ নিঃসৃত করে থাকে ২.দুটি মূএবাহী নালী বা ইউরেটারস যা প্রসাবকে কিডনী থেকে নীচে নিয়ে যায়।৩.একটি মূএস্থলী বা ইউরিনারী ব্লাডার যেখানে মূএ সঞ্চিত থাকে ৪.মূএনালী বা ইউরেথ্রা যা দিয়ে প্রসাব বেরিয়ে আসে। পুরুষদের ক্ষেএে ইহা ...বিস্তারিত

    মূএ যন্ত্রের এবং মূএের যে কোন পীড়া সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান লাভ করতে হলেই প্রথমে যন্ত্রটি সম্পর্কে আমাদের একটি সঠিক ধারণা থাকতে হবে। মূএ যন্ত্রটিকে প্রধান চারটি ভাগে ভাগে ভাগ করা যায়. যথা ১.দুইটি কিডনী যা মূএ নিঃসৃত করে থাকে ২.দুটি মূএবাহী নালী বা ইউরেটারস যা প্রসাবকে কিডনী থেকে নীচে নিয়ে ...বিস্তারিত

    মূএ যন্ত্রের এবং মূএের যে কোন পীড়া সম্পর্কে সম্যক জ্ঞান লাভ করতে হলেই প্রথমে যন্ত্রটি সম্পর্কে আমাদের একটি সঠিক ধারণা ...বিস্তারিত

    হৃদরোগ চিকিৎসায় হোমিওসমাধান: ডা.মাহতাব হোসাইন মাজেদ

    লেখক: ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ, স্বাস্থ বিষয়ক প্রধান - আওয়ার কণ্ঠ | বুধবার, ০২ অক্টোবর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 154 বার

    আমাদের দেশের মানুষ যে দুইটি রোগে চিকিৎসা করতে গিয়ে পথের ভিকারীতে পরিণত হয় তার একটি হলো ক্যান্সার, অন্যটি হলো হৃদরোগ বা হার্ড ডিজিজ।অথচ অন্যান্য জটিল রোগের মতো হৃদরোগের চিকিৎসাতে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা শ্রেষ্ঠত্বের দাবীদার। বিভিন্ন শ্রেণীর লোকেরা তাদের ব্যবসায়িক স্বার্থের কারণে প্রতিহিংসা বসত হোমিওপ্যাথি সম্পর্কেে নানা রকমের বদনাম ছড়ায়, তার মধ্যে একটি বড় অপপ্রচার হলো হোমিওপ্যাথি ঔষধ দেরিতে কাজ করে। অথচ হাই ব্লাড প্রেসার, ডায়াবেটিস,মাইগ্রেন ,হৃদরোগ,কোষ্ঠকাঠিন্য,গ্যাস্টিক,আলসার সহ অনেক রোগের জন্য ...বিস্তারিত

    আমাদের দেশের মানুষ যে দুইটি রোগে চিকিৎসা করতে গিয়ে পথের ভিকারীতে পরিণত হয় তার একটি হলো ক্যান্সার, অন্যটি হলো হৃদরোগ বা হার্ড ডিজিজ।অথচ অন্যান্য জটিল রোগের মতো হৃদরোগের চিকিৎসাতে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা শ্রেষ্ঠত্বের দাবীদার। বিভিন্ন শ্রেণীর লোকেরা তাদের ব্যবসায়িক স্বার্থের কারণে প্রতিহিংসা বসত হোমিওপ্যাথি সম্পর্কেে নানা রকমের বদনাম ছড়ায়, তার মধ্যে ...বিস্তারিত

    আমাদের দেশের মানুষ যে দুইটি রোগে চিকিৎসা করতে গিয়ে পথের ভিকারীতে পরিণত হয় তার একটি হলো ক্যান্সার, অন্যটি হলো হৃদরোগ ...বিস্তারিত

    কোলন ক্যান্সার নিরাময়ে হোমিও সমাধান: ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ

    লেখক: ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ, স্বাস্থ্য বিষয়ক প্রধান- আওয়ার কণ্ঠ | সোমবার, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | পড়া হয়েছে 175 বার

    ক্যান্সার একটি কালান্তর ব্যাধি।ক্যান্সার নামটা ভয়ংকর সৃষ্টিকারী।ভয়াবহতা সম্বন্ধে আমার কিছু না বললেও চলে,বর্তমান সমাজে,বন্ধু বান্ধব আত্নীয় স্বজনের মধ্যে এই ভয়ংকর রোগে জীবন দান করেনি এমন লোক পাওয়া যাবে না। যুদ্ধ,প্লাবন ও দুর্ভিক্ষ,সমাজ জীবনে সাময়িকভাবে আসে আবার চলে যায়, বহু জীবন ধ্বংস করে, কিন্তু এই বিধ্বংসী রোগ ক্যান্সার ক্রমাগত মানব সমাজকে ধ্বংসের দিগে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। আমার চেয়ে ও আর ও বড় বড় মনীষী এর ধ্বংসলীলার বিবরণ দিয়েছেন।গত ...বিস্তারিত

    ক্যান্সার একটি কালান্তর ব্যাধি।ক্যান্সার নামটা ভয়ংকর সৃষ্টিকারী।ভয়াবহতা সম্বন্ধে আমার কিছু না বললেও চলে,বর্তমান সমাজে,বন্ধু বান্ধব আত্নীয় স্বজনের মধ্যে এই ভয়ংকর রোগে জীবন দান করেনি এমন লোক পাওয়া যাবে না। যুদ্ধ,প্লাবন ও দুর্ভিক্ষ,সমাজ জীবনে সাময়িকভাবে আসে আবার চলে যায়, বহু জীবন ধ্বংস করে, কিন্তু এই বিধ্বংসী রোগ ক্যান্সার ...বিস্তারিত

    ক্যান্সার একটি কালান্তর ব্যাধি।ক্যান্সার নামটা ভয়ংকর সৃষ্টিকারী।ভয়াবহতা সম্বন্ধে আমার কিছু না বললেও চলে,বর্তমান সমাজে,বন্ধু বান্ধব আত্নীয় স্বজনের মধ্যে ...বিস্তারিত

    আইবিএস রোগীর চিকিৎসায় হোমিওপ্যাথি: ডা. মাহতাব হোসাইন মাজেদ

    | সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯ | পড়া হয়েছে 169 বার

    আই বি এস হলো মানবদেহের একটি বিশৃঙ্খল অবস্থা যা পেটে ব্যথা ( এবডোমিনাল পেইন ) এবং ঘন ঘন পায়খানায় ( টয়লেটে ) ছুটে যাওয়ার ইচ্ছার মাধ্যমে প্রকাশ পায় । এটি একটি অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ ইন্টেস্টাইন রোগ ( ভাওয়েল ডিজিজ ) । অধিকাংশ মানুষের মধ্যে এ রোগটির লক্ষণ অল্প অল্প দৃষ্টিগোচর হয়ে থাকে । এটির প্রাথমিক বৈশিষ্ট্য হলো গ্যাস্ট্রোইনটেস্টাইনাল বিশৃঙ্খলা । পেটের নিম্নভাগ হালকা ব্যথা ( ডিসকম্পোর্ট ) সহ ঘন ঘন মল ...বিস্তারিত

    আই বি এস হলো মানবদেহের একটি বিশৃঙ্খল অবস্থা যা পেটে ব্যথা ( এবডোমিনাল পেইন ) এবং ঘন ঘন পায়খানায় ( টয়লেটে ) ছুটে যাওয়ার ইচ্ছার মাধ্যমে প্রকাশ পায় । এটি একটি অধিকতর গুরুত্বপূর্ণ ইন্টেস্টাইন রোগ ( ভাওয়েল ডিজিজ ) । অধিকাংশ মানুষের মধ্যে এ রোগটির লক্ষণ অল্প অল্প দৃষ্টিগোচর হয়ে ...বিস্তারিত

    আই বি এস হলো মানবদেহের একটি বিশৃঙ্খল অবস্থা যা পেটে ব্যথা ( এবডোমিনাল পেইন ) এবং ঘন ঘন পায়খানায় ( ...বিস্তারিত

    হোমিওপ্যাথিতে ডেঙ্গু জ্বরের চিকিৎসা: ডা.মুহাম্মাদ মাহতাব হোসাইন মাজেদ

    | মঙ্গলবার, ০২ জুলাই ২০১৯ | পড়া হয়েছে 197 বার

    এটি বহু ব্যপক ও অল্পদিন স্থায়ীজ্বর বিশেষ।আমেরিকায় একে ব্রেকবোন ফিভার বা হাড়ভাঙ্গা জ্বর বলে।বর্ষার শেষে মশা দ্বারা এই জ্বর বিস্তার লাভ করে। এটি একটি সংক্রামক ট্রপিক্যাল ডিজিজ; যা ডেঙ্গু ভাইরাসের কারণে হয়। এই রোগটি সর্বপ্রথম স্কটল্যান্ডের ডান্ডিতে মহামারী আকারে দেখা দেয় তাই এ জ্বরকে ডান্ডি জ্বর বলেও ডাকা হয়।এ জ্বর দু’ভাগে ভাগ করা যায়-সাধারণ ডেঙ্গু জ্বর ও হেমোরেজিক ডেঙ্গু জ্বর ডেঙ্গু জীবাণুবাহী মশা কামড়ানোর পাঁচ-সাত দিনের মধ্যে সাধারণত রোগের উপসর্গ দেখা যায়। ...বিস্তারিত

    এটি বহু ব্যপক ও অল্পদিন স্থায়ীজ্বর বিশেষ।আমেরিকায় একে ব্রেকবোন ফিভার বা হাড়ভাঙ্গা জ্বর বলে।বর্ষার শেষে মশা দ্বারা এই জ্বর বিস্তার লাভ করে। এটি একটি সংক্রামক ট্রপিক্যাল ডিজিজ; যা ডেঙ্গু ভাইরাসের কারণে হয়। এই রোগটি সর্বপ্রথম স্কটল্যান্ডের ডান্ডিতে মহামারী আকারে দেখা দেয় তাই এ জ্বরকে ডান্ডি জ্বর বলেও ডাকা হয়।এ জ্বর দু’ভাগে ...বিস্তারিত

    এটি বহু ব্যপক ও অল্পদিন স্থায়ীজ্বর বিশেষ।আমেরিকায় একে ব্রেকবোন ফিভার বা হাড়ভাঙ্গা জ্বর বলে।বর্ষার শেষে মশা দ্বারা এই জ্বর বিস্তার ...বিস্তারিত

    রোজা হার্টের রোগীর আশীর্বাদস্বরূপ: কর্নেল (অব:) অধ্যাপক ডা: জেহাদ খান

    | বুধবার, ০৮ মে ২০১৯ | পড়া হয়েছে 189 বার

    রোজার আসল উদ্দেশ্য তাকওয়া অর্জন হলেও আমাদের শরীর ও মনের জন্য এর অনেক উপকারিতা রয়েছে। হার্টের রোগীও এর ব্যতিক্রম নয়। হার্টের কয়েক ধরনের রোগ আছে, তার মধ্যে হার্টের রক্তনালীর রোগ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, যে কারণে হার্ট অ্যাটাক হয়ে বিভিন্ন দেশে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক লোক মৃত্যুবরণ করে থাকে। রক্তে অতিরিক্ত চর্বি, উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, ধূমপান প্রভৃতির কারণে হার্টের রোগ, হার্ট অ্যাটাক হয়ে থাকে। রমজান মাসে ধূমপানের মাত্রা অনেক কমে যায় এবং কারো কারো পক্ষে ...বিস্তারিত

    রোজার আসল উদ্দেশ্য তাকওয়া অর্জন হলেও আমাদের শরীর ও মনের জন্য এর অনেক উপকারিতা রয়েছে। হার্টের রোগীও এর ব্যতিক্রম নয়। হার্টের কয়েক ধরনের রোগ আছে, তার মধ্যে হার্টের রক্তনালীর রোগ সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, যে কারণে হার্ট অ্যাটাক হয়ে বিভিন্ন দেশে সবচেয়ে বেশিসংখ্যক লোক মৃত্যুবরণ করে থাকে। রক্তে অতিরিক্ত চর্বি, উচ্চ রক্তচাপ, ...বিস্তারিত

    রোজার আসল উদ্দেশ্য তাকওয়া অর্জন হলেও আমাদের শরীর ও মনের জন্য এর অনেক উপকারিতা রয়েছে। হার্টের রোগীও এর ব্যতিক্রম নয়। ...বিস্তারিত

    রোজায় প্রস্রাবে জ্বালাপোড়া, কী করবেন?

    | মঙ্গলবার, ০৭ মে ২০১৯ | পড়া হয়েছে 149 বার

    গরমে সারা দিন রোজা রাখার পর শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দেয়। শরীরে পানিশূন্যতার কারণে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই ইফতারে শরবতের সঙ্গে খেতে পারেন ইসুবগুলের ভুসি। ইসুবগুলের ভুসি আপনার প্রস্রাব হলুদ ও জ্বালাপোড়া, ডায়েরিয়া, কোষ্ঠকাঠিন্য, পাইলস, আমাশয় ও উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। ইসুবগুলের ভুসির রয়েছে বেশ স্বাস্থ্যসম্মত উপাদান, যা শরীরের জন্য উপকারী। তাই প্রতিদিনের ইফতারের আয়োজনে ইসুবগুলের ভুসি রাখতে পারেন শরবতে। আসুন জেনে নেই রোজায় কেন খাবেন ইসুবগুলের ভুসি? কোষ্ঠকাঠিন্য কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা হলে ...বিস্তারিত

    গরমে সারা দিন রোজা রাখার পর শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দেয়। শরীরে পানিশূন্যতার কারণে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই ইফতারে শরবতের সঙ্গে খেতে পারেন ইসুবগুলের ভুসি। ইসুবগুলের ভুসি আপনার প্রস্রাব হলুদ ও জ্বালাপোড়া, ডায়েরিয়া, কোষ্ঠকাঠিন্য, পাইলস, আমাশয় ও উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। ইসুবগুলের ভুসির রয়েছে বেশ স্বাস্থ্যসম্মত উপাদান, যা শরীরের ...বিস্তারিত

    গরমে সারা দিন রোজা রাখার পর শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দেয়। শরীরে পানিশূন্যতার কারণে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। ...বিস্তারিত

    গরমে যেসব খাবারে ডায়রিয়ার ঝুঁকি ও আমাদের করণীয়।

    | সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০১৯ | পড়া হয়েছে 154 বার

    গরমের তীব্রতায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর ভিড় বাড়ছে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআরবি) হাসপাতালসহ দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে। আক্রান্তদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যাই বেশি। গরমের কারণে শরীরে পানিশূন্যতা, খোলা-বাসি খাবার খাওয়া, পানি কম খাওয়া ইত্যাদি কারণে এ সময় ডায়রিয়ার প্রবণতা বেশি দেখা যায়। ডায়রিয়া থেকে রক্ষায় পানি ফুটিয়ে খাওয়া, রাস্তার পাশের খোলা খাবার ও শরবত এড়িয়ে চলাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছেন তারা। এ প্রসঙ্গে ...বিস্তারিত

    গরমের তীব্রতায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর ভিড় বাড়ছে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআরবি) হাসপাতালসহ দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে। আক্রান্তদের মধ্যে শিশু ও বৃদ্ধের সংখ্যাই বেশি। গরমের কারণে শরীরে পানিশূন্যতা, খোলা-বাসি খাবার খাওয়া, পানি কম খাওয়া ইত্যাদি কারণে এ সময় ডায়রিয়ার প্রবণতা বেশি দেখা যায়। ডায়রিয়া ...বিস্তারিত

    গরমের তীব্রতায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ডায়রিয়ার প্রকোপ দেখা দিয়েছে। ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীর ভিড় বাড়ছে আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র (আইসিডিডিআরবি) হাসপাতালসহ ...বিস্তারিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম