• শিরোনাম


    স্বর্গ স্পর্শী কবিতা [] এস এম শাহনূর

    | ০২ এপ্রিল ২০২২ | ৮:৪৬ পূর্বাহ্ণ

    স্বর্গ স্পর্শী কবিতা [] এস এম শাহনূর

     

    উত্তরাধিকার
    তুই যে আমার সারাদিনের গল্প গাঁথা
    তুই যে আমার ইচ্ছে ঘুড়ি,নাটাই-সুতা।
    তুই যে আমার পরম চাওয়ার ভালোবাসা,
    তুই যে মোদের দুটো মনের একটি আশা।
    তোর কারণে নতুন করে স্বপ্ন দেখা
    তোর কারণে নতুন করে বাঁচতে শেখা।
    তোর জন্যে কত আপনজনে মসজিদে
    শিন্নি মানে, দরগাহে মানে সোনার চাঁদ,
    নিশীথ রাতে দুহাত তুলে করি ফরিয়াদ।
    তোর জন্যে কত তাবিজ কবজ পানি পড়া,
    হরহামেশা যাওয়া আসা গাইনোকোলজিস্ট পাড়া।
    তোকে ভেবে থমকে দাঁড়াই সামনে গিয়ে খেলাঘরে
    কি চাই তব? কিনে দেবো দু’হাত ভরে।
    অামার যত মহৎ আশা;অপূর্ণতা-পূর্ণ করার ভার
    তুই যে হবি আমার যোগ্য উত্তরাধিকার।
    বিশ্বটাকে করবে জয় ভালোবাসা দিয়ে
    দুনিয়াবি সকল চাওয়া লুটাবে তোর পায়ে।
    মনে ধ্যানে রাখিস ওরে অাখেরাতের ভয়
    তোর সকল কাজে সহায় হবেন আল্লাহ নিশ্চয়।



    ১৮ জুন ২০১৭ ইং।
    বিজয় পথ। বারিধারা।

     

    খোলা আকাশ
    তুমি আকাশ ছুঁতে পারনা
    তাই বলে তোমার সুন্দর মন
    আকাশচুম্বী নয় তা হবেনা।
    এতটুকুন বয়সেই প্রতিঘন্টায় বিমান উড়ে যেতে দেখে অভ্যস্ত তুমি;
    পাখীর উড়ে যাওয়া তোমার নিকট ভিন্ন কিছু নয়,
    অথচ শৈশবে এমন মুহুর্ত খুব কমই পেয়েছি আমি।
    নগর জীবনের শব্দ দূষণ, আলোর ঝলকানি ;
    কর্মমুখর মানুষের ব্যস্ততম সকাল নিজ ঘরের বারান্দা থেকেই দেখ সতত,
    দেখ প্রিয় চ্যানেল,কাছে রাখ সেলফোন নামক প্রিয় বস্তু দূরালাপনি।
    বাবার সান্নিধ্য পেলে আহলাদে হও আটখানা
    যদি কভু আড়াল হই কষ্ট পাও,প্রাণেতে সহেনা
    ষোলকলা আদর চাও, লুটে নাও মায়ের আটখানা।

    ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ইং।
    বিজয় পথ। বারিধারা।

     

    কন্যা
    ঝর্ণার মত চল,কল্লোলিত নদীর মত কথা বল
    চেয়ে দেখি ফুল হাসে চাঁদ হাসে তব ভালোবেসে,
    রঙধনুর সাত রঙে রাঙা তোমার সবুজাভ মন
    স্বর্গীয় শিশুরাও হেসে খেলে তোমার চারপাশে।

    দীনে হও তাপসী রাবেয়া ঐশ্বর্যে হও মা খাদিজা
    চির মানবিক হও বিপদগ্রস্ত মানবতার কল্যাণে,
    রাজ্যের যত সুখ তোমাতে বলবে তার শত দুখ
    ছুটিওনা দুনিয়ার পিছুপিছু বড় হও মেধা মননে।

    ঝড়ে পরা নাবিকের মত শক্ত হাতে ধরিও হাল
    সাবধানী শিশুর মত পা ফেলিও পৃথিবীর পথে
    স্বপ্নের সিঁড়ি বেয়ে পৌঁছে যাবে এক সত্যলোকে
    ফুল চন্দন ছিটাবে লোকে তোমার জীবন রথে।

    হিংসুটের হিংসা থেকে জালেমের জুলুম থেকে
    সকল ব্যভিচার থেকে,দৃষ্টি না পড়ুক বদ চোঁখে,
    অনিষ্টকারীর অনিষ্টতা থেকে হিংস্র প্রাণী থেকে
    শয়তানের কুমন্ত্রণা থেকে প্রভূ যেন ভালো রাখে।

    ২৫ অক্টোবর ২০২০ই
    টিটিসি,বরগুনা।

     

    মোনাজাত

    পবিত্র মক্কা মনোয়ারা থেকে ওমরা শেষে ফিরলেন সামীহার নানা নানি,
    সামীহার জন্য আনলেন নামাজের মসলা, হিজাব,হাতের ব্রেসলেট, গলার হার,চুড়ি, জমজম কূপের পানি।

    কাঠ বাদাম,চিনাবাদাম, কেজ্যুনাট মজাদার চকলেট পেয়ে সামীহা খুবই খুশি আজ,
    খেজুর-খুরমা খেয়ে ওর মায়ের অনুকরণে শুরু করে নামাজ।

    কখনো দুহাত তুলে সবার জন্য কায়মনো বাক্যে করছে মোনাজাত
    “ক্ষমা করো প্রভু কেয়ামত দিবসে আমাদের দিও নাজাত”।

    জানালায় তাকিয়ে দেখে কত সুন্দর করে পালনকর্তা সৃজন করেন এ দুনিয়া,
    “হে প্রভু,আমিও একদিন মক্কা মদিনায় যাবো বাবা মাকে নিয়া”।

    ১ মে ২০১৯ ইংরেজি।
    বিজয় পথ। বারিধারা।

     

    বয়স যখন তিন
    এখন কথার ফুলঝুরির তিনি রাণী
    এক বছর আগে মুখে ছিলনা বাণী।
    চিন্তিত বাবা মহা চিন্তায় গর্ভধারিণী
    কথা বলে,কী বলে কান পেতে শুনি।

    অপারেশন থিয়েটারে জ্ঞান ফিরলে
    হাতটি চেপে ফিসফিসিয়ে বলেন তিনি
    ‘আমাদের সন্তানের সব কিছু ঠিক তো
    সমস্যা? সত্যি করে বলনা একটু শুনি”।
    আলহামদুলিল্লাহ।
    ফোকলা দাঁতে হাসে,চোঁখ ঘুরিয়ে চায়
    নিজের মত নানান শব্দ করে আপাতত
    উপুড় হয়,দিক পাল্টাতে পারে নিজে
    স্থির বসবে কখন মায়ের শংকা সতত।

    একা একা বসতে পারে,ধরতে পারে
    স্থির হয়ে দাড়াতে পারে,নামতে চায়
    খাট থেকে নিজে নিজে নামতে পারে
    তবু মায়ের মন ভরে না হাঁটাতে চায়।

    ৪ জুন ২০২০ইং

     

    উৎসর্গ: আরাধ্য কন্যা প্রিন্সেস সামীহা নূর জারা কে।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    মগের মুল্লুক (কবিতা)

    ১১ আগস্ট ২০১৮

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম