• শিরোনাম


    সৌদি আরবে চাকরি হারাতে যাচ্ছে ১২ লক্ষ অভিবাসী!

    তাজউদ্দিন তারেক, সৌদি আরব প্রতিনিধিঃ | ১৭ জুন ২০২০ | ১০:৪০ অপরাহ্ণ

    সৌদি আরবে চাকরি হারাতে যাচ্ছে ১২ লক্ষ অভিবাসী!

    প্রাণঘাতিক করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সারাবিশ্বে অর্থনৈতিক মহামন্দা আসন্ন। তেল ভিত্তিক রাষ্ট্র গুলো অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের ব্যাপক দরপতন ঘটেছে। এ অবস্থায় সৌদি আরব অর্থনৈতিক সংকটের লাগাম টেনে ধরতে বেশকিছু উচ্চাভিলাষী প্রকল্প স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সৌদি সরকার।

    গত সাড়ে তিন মাস যাবৎ লকডাউনের জন্য জীবন কর্ম স্থবির হয়ে আছে এখানে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের। বর্তমানে দেশটিতে আংশিক লকডাউন শিথিল করলেও পুরো দমে চালু হয়নি কর্মযজ্ঞ।



    এই দিকে বর্তমান বৈশ্বিক মন্দার ধারাবাহিকতায় বিপুলসংখ্যক অভিবাসী শ্রমিককে পর্যায়ক্রমে ফেরত পাঠানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির শক্তিশালী গণমাধ্যম সৌদি গেজেট। চলতি বছরের শেষ নাগাদ যার সংখ্যা দাঁড়াবে ১.২ মিলনে। এই ফেরত পাঠানোর ঝুঁকিতে থাকা শ্রমিকের বড় একটি অংশই প্রবাসি বাংলাদেশি। বর্তমানে দেশটির প্রায় ১২ শতাংশ
    সৌদি নাগরিক বেকারত্বের হার।

    রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাস আশঙ্কা প্রকাশ করেন জ্বালানি তেলের দাম কমে যাওয়া এবং চলমান অর্থনৈতিক ক্ষতির কারণে আগামী তিন থেকে পাঁচ বছরের মধ্যে সৌদি আরব থেকে ১০ লাখ বাংলাদেশি অভিবাসীকে দেশে ফিরে যেতে হতে পারে।
    সেই সাথে সৌদি সরকারের ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নের অংশ বিশেষও হতে পারে এই ছাটাই এর অন্যতম লক্ষ্য। ২০৩০ সালের মধ্যে নিজ দেশের নাগরিকদের মাধ্যমে ৭০ শতাংশ বিদেশী কর্মী প্রতিস্থাপনের কথার রয়েছে। রিয়াদভিত্তিক জাদওয়া ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানির এক প্রক্ষেপণে বলা হয়েছে, মূলত সৌদি নাগরিকদের জন্য চাকরির বাজার বড় করতে দেশটির সরকারের আগে থেকে নেয়া পরিকল্পনা বাস্তবায়ন এবং সাম্প্রতিক সময়ে চলমান করোনা ভাইরাসের মহামারির সময়টাকে উপযুক্ত সময় হিসেবে বিবেচনা করছেন।

    এ অবস্থায় সর্বাধিক ক্ষতিগ্রস্ত যেসব খাত থেকে সবচেয়ে বেশি হারে বিদেশি শ্রমিকদের ফেরত পাঠানোর সম্ভাবনা রয়েছে সেগুলো হচ্ছে আতিথেয়তা, খাদ্য পরিষেবা, প্রশাসনিক ও সহায়তা কার্যক্রম, ট্রাভেল এজেন্সি, সুরক্ষা ও নির্মাণ খাত। শ্রমিক ফেরত যাওয়ার আশঙ্কার বিষয়টি উল্লেখ করে গত মাসে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠিও পাঠিয়েছে দূতাবাস।

    সৌদি আরব বাংলাদেশকে চাপ দিচ্ছে নাগরিকদের ফিরিয়ে আনতে। শুরুতে অবৈধ ও আনডকুমেন্টেড বাংলাদেশীদের নিয়ে আসতে বলছে। তারপর হয়তো বৈধভাবে যেসব বাংলাদেশি রয়েছেন, তাদের বিভিন্ন উপায়ে সৌদিতে ঢোকা কঠিন করে দেবে দেশটি এমনটাই ধারনা করছেন বাংলাদেশ দূতাবাস। সব মিলিয়ে সামনের দিন গুলো খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে আসতেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটির শ্রমবাজার।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম