• শিরোনাম


    সোনাগাজীর নুসরাতের মতো সূবর্ণচরে শিক্ষকের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুর

    দেলোয়ার হুসাইন, নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি | ০৬ জুন ২০২০ | ৬:৪২ অপরাহ্ণ

    সোনাগাজীর নুসরাতের মতো সূবর্ণচরে শিক্ষকের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুর

    সুবর্ণচর উপজেলায় শিক্ষকের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুরের অভিযোগ আনা হয়েছে নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচর উপজেলার ২ নং চরবাটা ইউনিয়নের মধ্য চরবাটায়, চরবাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিজাম উদ্দিনের বিরুদ্ধে।

    অভিযুক্ত শিক্ষকের কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গত কাল বিকাল ৫.৬.২০২০ ইং রোজ শুক্রবার আনুমানিক ৫:৩০ মিনিটের সময় বসতবাড়িতে হামলার অভিযোগ করেন প্রতিবেদকের নিকট।মুঠোফোন আলাপকালে ভুক্তভোগী নারী মোমেনা বেগম, মধ্য চরবাটা নিবাসী কামাল উদ্দিনের (৫৫) স্ত্রী মোমেনা বেগম (৪৫)। অভিযোগ করে তিনি বলেন, শিক্ষক নিজাম উদ্দিন দীর্ঘ দিন যাবত আমাকে উতক্ত্য করতেন পথেঘাটে, আমার ব্যবহারকৃত মুঠোফোনে রাতে কল দিয়ে অসাভাবিক আপত্তিকর ও যৌন আবেদনময়ী আচরণ করতেন নিজাম মাষ্টার। প্রতিবেশী দুষ্টু নারীর মাধ্যমে রাত্রি যাপনের জন্য নিজাম মাষ্টার কু-প্রস্তাব দিলে আমি তা প্রত্যাক্ষান করি। সমাজের গন্য মান্য ব্যাক্তিদের নিজাম মাষ্টারের এমন আচরণের অভিযোগ জানায়,তাই নিজাম উদ্দিন মাষ্টারের সাথে এক পর্যায়ে গতকাল সকালে কথা কাটাকাটি হয়,নিজাম উদ্দিন মাষ্টার আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে,চড়মারেন ও ঘটনাস্হলে থাকা আমার ছেলে রাসেদ (২৩) আমাকে অপমান,আপত্তিকর আচরণ ও নির্যাতনের প্রতিবাদ জানায়। কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়লে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। তাই প্রতিশোধ নিতে,ক্ষমতার দাপট দেখাতে সন্ধ্যায় নিজাম উদ্দিন মাষ্টারের নেতৃত্ব ২০/৩০ জন লোক আমার বাড়িতে দেশীয় অস্র চুরি,লাঠি,হক স্টিক, নিয়ে আমার বসত ঘরে হামলা করে ও আমাকে আহত করেন। আমার বাড়ির জানালার গ্লাস,দরজা,টিন সহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ভাংচুর করেন।আমাকে হত্যা করতে চাইলে আমার ছেলে ও আশ পাশের সমাজের লোক জন ঘটনাস্হলে উপস্হিত হলে নিজাম মাষ্টার তার দল বল নিয়ে চলে যায়।উক্ত ঘটনা গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যামে সাথে সাথে ব্যাপক ভাবে ভাইরাল করে সচেতন মহলের অনেকেই, অল্প সময়ে,শত শত শেয়ার, লাইক মাধ্যমে প্রতিবাদের ঝড় তুলে সচেতন নাগরিকবৃন্দগন। নিজাম মাষ্টার আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে। আমি ন্যায় ও সুষ্ঠু বিচারের জন্য পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসকের নিকট বিনীতভাবে আবেদন করছি।



    হামলার শিকার মোমেনা বেগমের বড় ছেলে রাসেল(২২) বলেন,সূবর্ণচর উপজেলা শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও চরবাটা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ শামসুজ্জামান নিজাম মাষ্টার , আমার মায়ের নামে অনৈতিক কথা ছড়ায় এবং আমার মাকে বিভিন্ন সময় অনৈতিক প্রস্তাব দিতো। আজ আমার মা (মোমেনা বেগম) প্রতিবাদ করায় সে আজ(৫ জুন) বিকালে আনুমানিক ৫.২০ মিনিট এর সময় তার লোকজন নিয়ে আমার মা এবং ছোট ভাই (মনিরুজ্জামান রাসেদ) এর উপর সন্ত্রাসী হামলা চালাই এবং আমাদের বাড়ী ভাংচুর করে।এখন নিজাম মাষ্টার এবং তার লোকেরা আমাদেরকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে, আমাদেরকে আরো বলে আইন নাকী তার কিছুই করতে পারবেনা। তাহলে সে কি আইনের উর্দ্ধে?

    নিজাম উদ্দিন মাষ্টারের এমন ঘটনার বিষয়ে জানতে চাওয়া হয় অবসরপ্রাপ্ত এক শিক্ষকের নিকট। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক শিক্ষক বলেন,আমরা এমন ঘটনায় সত্যি লজ্জিত যে একজন শিক্ষকের এমন নারী সংক্রান্ত বিষয়ে। দোষী যেই হোক আমি দাবী করি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনের মাধ্যমে সাজা দেওয়া হোক। তিনি আরো বলেন শিক্ষক জাতির মেরুদণ্ড, এমন আচরণ একজন শিক্ষকের থেকে আশা করা যায় না। সুবর্ণচর উপজেলা মাধ্যামিক স্কুলের সভাপতির এমন নারী সক্রান্ত বিষয়ে হতাশ সুবর্ণচরের শিক্ষক সমাজ।

    ঘটনার সত্যতা জানতে নিজাম উদ্দিন মাষ্টারের
    মুঠোফোনের এই উক্ত নাম্বারে 01712143449 বার বার চেষ্টা করা হলে তিনি কল রিসিভ করেননি,যার কারণে তার কোন মন্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।
    উক্ত ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে চরজব্বর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহেদ উদ্দিন বলেন, উভয় পক্ষ থানাতে অভিযোগ দায়ের করেছে,প্রকৃত ঘটনার সত্যতা যাচাই করে দোষী যেই হোক তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্হা গ্রহন করা হবে বলে নিশ্চিত করেন তিনি।

    নির্যাতনের শিকার মোমেনা বেগমের করা অভিযোগের আসামীগণ হলেন।

    ১.মোঃ শামসুজ্জামান নিজাম
    বয়স-৫০
    পিতা-দ্বীন মোহাম্মদ এম এস সি

    ২.ইমরান হোসেন সোহাগ
    বয়স-২২
    পিতা- আব্দুল মান্নান

    ৩.মোঃ হানিফ
    বয়স-৩০-৩৫
    পিতা-মোঃ কামাল উদ্দিন (দই বেপারী)

    ৪.জামাল উদ্দিন মিয়া
    বয়স-৪০-৪৫
    পিতাঃ আবদুল বাতেন

    ৫.নূর উদ্দিন
    বয়স-৩৫-৪০
    পিতাঃ আবুল কালাম
    ৬.মাজহারুল ইসলাম মাজাহার (৩০) পিতা মোঃ কাজল
    ৭.মোঃজসিম উদ্দিন (৩৫) বয়স ৩২ পিতাঃ ইলিয়াস সদ্দার
    ৮.নুর উদ্দিন বয়স (৩০) পিতাঃ কালাম
    ৯.রহিম উদ্দিন বয়স ২৮ পিতাঃ আবুল বাশার সহ
    আরো অজ্ঞাত ২০-৩০ জন।

    উক্ত ঘটনার প্রত্যক্ষ সাক্ষীগণ

    ১.সারোয়ার উদ্দিন
    বয়সঃ৩০
    পিতাঃ কবির আহাম্মদ

    ২. নিজাম উদ্দিন
    বয়সঃ ৩০
    পিতাঃ মৃত সিদ্দিক আহাম্মদ।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম