• শিরোনাম


    সুবর্ণচরে টর্চারসেলে সাংবাদিকের উপর হামলা, প্রাণ নাশের হুমকি

    রিপোর্ট নিজস্ব প্রতিবেদক | ২০ জানুয়ারি ২০২১ | ১২:৫৮ অপরাহ্ণ

    সুবর্ণচরে টর্চারসেলে সাংবাদিকের উপর হামলা, প্রাণ নাশের হুমকি

    এক সময়ের নোয়াখালীর বনদস্যু দলের সহযোগী বর্তমানে অবৈধ ইটভাটা ও ভূমি দালাল সুবর্ণচরের নুর মাওলা ওরফে কুটি তার টর্চারসেলে দৈনিক বর্তমান কথা পত্রিকার নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধি কামাল চৌধুরীর উপর সন্ত্রাসী হামলা করেছে।

    গত মঙ্গলবার সুবর্ণচর উপজেলার চরমজিদ ভূঞারহাটে কুটির টর্চারসেলের বিতরে প্রকাশ্য দিবালোকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,উল্লেখিত সন্ত্রাসী নুর মাওলা কুটি ও সুবর্ণচর উপজেলা চরবাটা ইউনিয়ন ভূমি অফিসের তহসিলদার জয়নাল আবেদিন যোগসাজশ করে গত ১৯ জানুয়ারী দিনব্যাপী স্থানীয় ভূঞারহাট বাজারের দোকান ভিটির মালিকদেরকে উক্ত বাজারের মধ্যে সন্ত্রাসী কুটির টর্চারসেলে ডেকে নিয়ে ৬৭ জন ভুক্তভোগীর থেকে তাদের ভিটির একসনা বন্দোবস্ত খাজনা আদায় করতে গিয়ে সরকারি ধার্যকৃত টাকার চেয়ে আরো অতিরিক্ত টাকা আদায় করে দেন।এই ব্যাপারে দোকান ভিটির মালিকগন অভিযোগ করার পর সাংবাদিক কামাল চৌধুরী বিকাল ৪ ঘটিকার সময় তথ্য সংগ্রহ করতে টর্চারসেরে গেলে তহসিলদারের দালাল নুর মাওলা কুটি তার উপর হামলা করে ক্যামেরা কেড়ে নেয় ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়।
    উল্লেখ্য নুর মাওলা কুটি দীর্ঘদিন ইট ভাটার কার্যক্রমের আড়ালে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনার জন্য একটি টর্চারসেল গড়ে তুলেন স্থানীয ভূঞারহাট বাজারে।এ টর্চারসেলে তার স্বার্থ হাসিলের জন্য যখন তখন যে কাউকে তুলে নিয়ে এসে নির্যাতন করেন বলে অভিযোগ করেন স্থানীয় অনেকে।এ টর্চারসেলে জুয়া,মদ, ইয়াবার আসর চলে প্রকাশ্য।এভাবে শূন্য থেকে কোটিপতি নুর মাওলা। সে ২০০০ সালে চট্রগ্রাম কালুর ঘাট এলাকাজুড়ে যুবদলের সন্ত্রাসী কার্যক্রমের সাথে জড়িত ছিলো।কালুরঘাট এলাকায় সন্ত্রাসী পিচ্ছি সুমন নামে পরিচিত লাভ করে।সন্ত্রাসী কার্যক্রম ও অপকর্ম ডাকতে ক্ষমতার পালাবদল করে খোলস পাল্টিয়ে যুবদল থেকে যুবলীগের রাজনৈতির সাথে জড়িত হয।যুবলীগ ও আ,লীগের বিভিন্ন নেতার সাথে সেলফি তুলে ফেসবুক ওয়ালে দিয়ে ক্ষমতার জানান দেয় প্রতিনিয়ত।



    চট্টগ্রাম থেকে এসে তার জন্মস্হান সুবর্ণচরে যুবলীগের রাজনৈতির সাথে নিজের নাম লিখে শুরু হয় তার নানা অপরাধী কার্যক্রম।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নারী জানান,তার নামে কম্পিউটারে ছবি যুক্ত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল করে তার সাঙ্গপাঙ্গ নিয়েঐ নারীর পিতার থেকে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করেন নুর মাওলা ও তার সহযোগীরা। পরে ৫০ হাজার টাকা চাদা নিয়ে ভিকটিম নারীর ছবি ডিলেট করে নুর মাওলা কুটি চক্র। ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আশ্রায়,থানার দালালিসহ অসখ্য অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তার ক্ষমতা ও অবৈধ টাকার দাপড়ে প্রকাশ্যে এখনো মুখ খোলার সাহস পাচ্ছেনা অনেক ভুক্তভোগীরা।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম