• শিরোনাম


    ” ইসলাম আল্লাহতায়ালার মনোনীত একমাত্র ধর্ম “

    মুফতি মোহাম্মদ এনামুল হাসান | ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১০:৩১ অপরাহ্ণ

    ” ইসলাম আল্লাহতায়ালার মনোনীত একমাত্র ধর্ম “

    আমাদের প্রতি আল্লাহতায়ালার সীমাহীন নেয়ামত সমূহের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ নেয়ামত হলো ঈমান। আমরা কতই না সৌভাগ্যবান যে, আল্লাহতায়ালা তার বিশেষ দয়া আর অনুগ্রহ দ্বারা আমাদেরকে ঈমান নামক মহামূল্যবান সম্পদ দান করেছেন।

    ঈমানের মূল শিক্ষা ই হলো তাওহীদ।
    অর্থাৎ আল্লাহতায়ালার একাত্ববাদের সাক্ষ্য দেওয়া।
    আল্লাহতায়ালা আমাদেরকে ইসলাম ধর্মের অনুসারী হিসেবে দুনিয়াতে প্রেরণ করেছেন। ইসলাম বলা হয়, সর্বপ্রথম নবী হজরত আদম (আঃ) থেকে নিয়ে সর্বশেষ নবী হজরত মোহাম্মদ (সাঃ) পর্যন্ত সকল নবী রাসুলদের মধ্যে যেসব বিধিবিধান ও মূলনীতি বিদ্যমান ছিল তাকেই ইসলাম বলে।এরথেকে বুঝা যায় সকল নবী ও রাসুলদের দ্বীন বা ধর্ম এক ও অভিন্ন।
    যেমন রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেন, যদি মুসা (আঃ) এখন জীবিত থাকতো তাহলে আমি মোহাম্মদ (সাঃ)এর অনুসরণ করতো (বায়হাকী)



    সকল নবীদের আমলে তার আনীত দ্বীন ই ছিল ইসলাম, এবং আল্লাহতায়ালার কাছে গ্রহণযোগ্য।
    যেমন পবিত্র কুরআন শরীফে আল্লাহতায়ালা বলেন, নিশ্চয় আল্লাহতায়ালার নিকট গ্রহণযোগ্য ধর্ম হচ্ছে একমাত্র ইসলাম।
    (সুরা আল ইমরান, আয়াত ১৯)।
    এর দ্বারা বুঝা যায় ইসলাম ছাড়া পৃথিবীতে যত ধর্ম ও মতবাদ আছে কোনটাই আল্লাহতায়ালার কাছে গ্রহণযোগ্য নয়।
    যেমন আল্লাহতায়ালা বলেন, যে ব্যক্তি ইসলাম ছাড়া অন্য কোনো ধর্ম গ্রহণ করবে তা কখনো গ্রহণ করা হবে না। এবং আখেরাতে সে হবে ক্ষতিগ্রস্ত। (সুরা আল ইমরান, আয়াত ৮৫)।
    ঈমান সম্পর্কে জিবরাইল (আঃ)এর এক প্রশ্নের উত্তরে রাসুলুল্লাহ (সাঃ)বলেন যে, একথার স্বীকৃতি দেওয়া যে,আল্লাহ ছাড়া অন্য কোনো মা’বুদ নেই, মোহাম্মদ (সাঃ) আল্লাহতায়ালার রাসুল, নামাজ কায়েম করা, যাকাত আদায় করা, রমজান মাসে রোজা রাখা, সম্পদ থাকলে হজ্ব করা।
    (বুখারী, মুসলিম)।

    হুজুর (সাঃ) এরশাদ করেন, প্রতিটি মানুষের কবরে তিনটি প্রশ্ন করা হবে। (১)তোমার রব কে? (২)তোমার দ্বীন কি? (৩) ঐ ব্যক্তি কে, যাকে তোমার কাছে পাঠানো হয়েছিল?

    আল্লাহতায়ালা যে একক তা শুধু আমরা ই যে সাক্ষ্য দিবো তা নয় বরং আল্লাহতায়ালা নিজেই তার একক হওয়ার সাক্ষ্য দেন যে,তিনি ছাড়া কোনো মা’বুদ নেই,ফেরেশতা ও জ্ঞানী (আলেম) ব্যক্তিরা ও সাক্ষী দেয়,তিনি ন্যায়বিচারক,তিনি ছাড়া অন্য কোনো মা’বুদ নেই তিনি অত্যন্ত পরাক্রমশালী বিজ্ঞানময়। (সুরা আল ইমরান, আয়াত ১৮)।

    অর্থাৎ আল্লাহতায়ালার কাছে গ্রহণযোগ্য ধর্ম ইসলাম, অন্য কোনো ধর্ম আল্লাহর কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। ঈমান কি? এই উত্তরে রাসুলুল্লাহ (সাঃ) প্রথমেই বলেছেন আল্লাহ ছাড়া অন্য কোনো মা’বুদ নেই।
    কবরে তিনটি প্রশ্ন করা হবে, যার মধ্যে প্রথম প্রশ্নই হচ্ছে তোমার রব কে?

    একথা নিঃসন্দেহে সত্য যে, আমাদের ঈমান ও আক্বিদাহ বিশ্বাস হলো ইসলাম আল্লার ধর্ম।

    লেখক
    মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান
    উস্তাদ, জামিয়া কোরআনিয়া সৈয়দা সৈয়দুন্নেছা ও কারিগরি শিক্ষালয়, কাজীপাড়া ব্রাক্ষণবাড়ীয়া।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০৯ অক্টোবর ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম