• শিরোনাম


    সাংবাদিকতার ব্যবসা খুলেছে ক্রাইম সিলেট’র সম্পাদক আবুল হোসেন

    এম.এ রহিম গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রতিনিধিঃসিলেট। | ২৯ এপ্রিল ২০২১ | ১২:৩০ পূর্বাহ্ণ

    সাংবাদিকতার ব্যবসা খুলেছে ক্রাইম সিলেট’র সম্পাদক আবুল হোসেন

    সিলেটে এক সময়ের শীর্ষ দেহ ব্যবসায়ীর দালাল ও
    সিলেট জেলা কোর্টের সামনে পান বিক্রেতা বর্তমান সময়ের সাংবাদিক/সম্পাদক ক্রাইম সিলেটর মোঃ আবুল হোসেন।

    তিনি হঠাৎ হয়ে গেলেন সিলেটের বড় সাংবাদিক পরিচয়দানকারী রেজিস্ট্রেশন বিহীন বুয়া অনলাইন পোর্টালের মালিক, তার পোর্টালের নাম ক্রাইম সিলেট।



    সম্পাদক আবুল হোসেন, যার পেশা হচ্ছে
    মিথ্যা নিউজ করে মানুষের কাছ থেকে মোটা অংকের অর্থ আদায় করা।

    গোয়াইনঘাট উপজেলার নায়াবস্তি গ্রামের আলিম উদ্দিন কে মামলা থেকে বাচাঁবে বলে ২ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়।
    জৈন্তাপুর উপজেলার জামাল উদ্দিনের কাছ থেকে ৫০০০০ হাজার,, করিমের কাছ থেকে৭০০০০ হাজার, মির্জা রুবেলের কাছ থেকে ৪০০০০ হাজার, শহিদের কাছ থেকে৭০০০০ হাজার, সামছুলের কাছ থেকে ১ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে সাপ্তাহিক চাদা হিসেবে। বর্তমান এসব চাঁদা না দেওয়ায় কারণে মিথ্যা নিউজ করে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে সম্পাদক আবুল।

    দৈনিক সিলেট বিভাগের বিভিন্ন এলাকার জনসাধারণকে ব্ল্যাকমেইল করা এই ভুঁইফোড় সাংবাদিক আবুলের অনৈতিক ও অমানবিক কর্মকান্ডের প্রতি নিন্দা জানিয়েছেন গোয়াইনঘাট উপজেলা সাংবাদিক ঐক্য পরিষদ ও স্হানীয় সাংবাদিক বৃন্দ।

    কে এই আবুল?
    স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীদের অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে তার নজর বিহীন অতীতের ও বর্তমানের অবৈধ কর্মকান্ড।

    অনুসন্ধান সূত্রে জানতে পারি বছর আটেক আগে সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলা পশ্চিম জাফলং ইউনিয়ন এর বগইল কান্দি গ্রামের বাসিন্দা আবুল হোসেন, ওইখান থেকে জামাত শিবির করায় জাতীয় নির্বাচনের পরে পালিয়ে এসে সিলেটের এক দেহ বিক্রেতা মহিলার সাথে হাত মিলিয়ে তার যাত্রা শুরু করে, শুরু হয় তার দেহ ব্যবসায়ির দালালি এবং লোকসমাজের নজর এড়িয়ে থাকার জন্য
    এই ব্যবসার পাশাপাশি খুলে বসে পান সিগারেটর দোকান/বাক্স নিয়ে পান দোকানের ব্যবসা।

    কিছুদিন আগে গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের এক নেতার নামে নিউজ এসেছে বলে হাতিয়ে নিয়েছে ৫০০০ টাকা।
    সিলেটের বিভিন্ন সীমান্তবর্তী এলাকায় চাঁদাবাজ আবুল বসিয়েছে চাঁদাবাজির কারখানা তার নামে কেউ চাঁদা না দিলে

    শুরু করে মিথ্যা নিউজ করা, কোন ধরনের অপরাধ না করলেও তার করা মিথ্যা নিউজে হতে হয় লোকসমাজে সাধারণ মানুষের চোখে অপরাধী। গতকাল তার দেওয়া এক নিউজে নাম বলতে অনিচ্ছুক চোখের লজ্জায় ফাঁসি দিতে গিয়েছিল এক ব্যাক্তি।

    গোয়াইনঘাট ও জৈন্তাপুর, কোম্পানিগঞ্জ, কানাইঘাটের জন সাধারণ তার করা এসব মিথ্যা নিউজের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

    Facebook Comments

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম