• শিরোনাম


    “র‍্যাগ ডে” শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অপসংস্কৃতির অনুপ্রবেশ |- আবু সালেহ ইয়াহিয়া

    অনলাইন সংস্করণ | ১২ নভেম্বর ২০২১ | ৮:৪১ অপরাহ্ণ

    “র‍্যাগ ডে” শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অপসংস্কৃতির অনুপ্রবেশ |- আবু সালেহ ইয়াহিয়া

    আগে র‍্যাগ ডে শব্দ দুটির কথা শুনা যেত শুধু বিশ্ববিদ্যালয় লেভেলে। সিনিয়ররা জুনিয়রদের সাথে নানা রকমের মানসিক নির্যাতন মূলক আচরণ করত। শারীরিক নির্যাতনের পাশাপাশি কিছু আকাম কুকামও হত। এগুলোর জন্য বিভিন্ন সময় হালকা প্রতিবাদ হলেও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কখনো এগুলো বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছে বলে শুনা যায়নি।

    এখন র‍্যাগ ডে নাম দিয়ে বিদায় অনুষ্ঠান হচ্ছে। না, বিশ্ববিদ্যালয়ে নয়, কলেজ ও স্কুল লেভেলে। তাও আবার শহর ছাড়িয়ে মফস্বল ও গ্রাম পর্যায়ে।
    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকা অবস্থায় চারুকলার দিকে যেতামনা। ছবির মত এমন দৃশ্যগুলো যাতে দেখতে না হয় সে জন্য। ছবিটি দেখে প্রথমে ভেবেছিলাম, এটাও হয়ত আমার বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার কোন চিত্র। অথবা টিএসসির কোন উৎসব বা বর্ষ বরণের হবে। কিন্তু আমি বাক হারা হয়ে গেছি এটা জেনে যে এ ধরণের ঘটনা আমারই এলাকার একটা স্কুল এন্ড কলেজেও নাকি ঘটেছে । সিলেটকে বলা হয় পূণ্যভুমি। তার মাঝে কানাইঘাট উপজেলা হলো সর্বাধিক আলেম উলামা অধ্যুষিত এলাকা। সেই উপজেলার প্রাণ হলো গাছবাড়ী এলাকা। এই এলাকারই একটি প্রতিষ্ঠানে নাকি ঘটেছে এমন র‍্যাগ ডে ঘটনা। এক শ্রেণীর দলবাজ, আদর্শহীন ও নীতিভ্রষ্ট শিক্ষকের প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় একটি পবিত্র এলাকায় এমন নোংরামির ছিন্ন এঁকে দেয়া হয়েছে । এ তো একদিনের চিত্র। এদের কাছে তাহলে বছরের বারো মাস কি শিখছে আমাদের কোমলমতি ছেলে-মেয়ে ও ভাই-বোনেরা? পুরো একটি প্রজন্মকে নষ্ট করে দিচ্ছে এরা। এই ছাত্র-ছাত্রীগুলো আমাদেরই অথবা আমাদেরই আপন কারো নাতি-নাতনি, ছেলে-মেয়ে কিংবা ভাই-বোন। কাদের হাতে ছেড়ে দিয়েছি আমরা এদের?
    যত যায়গায় এমন ঘটনা ঘটেছে, এলাকা বাসীর উচিত এর তীব্র প্রতিবাদ জানানো। প্রতিষ্ঠানের কর্তাব্যক্তিদের কড়া জবাবদিহিতার আওতায় আনা উচিত। আমাদের কোমলমতি প্রজন্মকে এমন নষ্ট ও ভ্রষ্ট পথে ধাবিত করার অধিকার কে দিয়েছে তাদের?



    পাশাপাশি ছেলে মেয়ে বড় হলে শুধু স্কুল-কলেজে পাঠিয়ে দিয়ে দায়িত্ব শেষ করে দিলে হবে কি? তারা সেখানে কি করছে, কি শিখছে, কাদেরকে বন্ধু বানাচ্ছে সে দিকে কড়া নজর রাখা অত্যন্ত জরুরী নয় কি?
    আর আমার কানাইঘাটের আলেম উলামারা ! আসেন মওদুদীর মুখোশ উন্মোচনের নামে প্রতিটি ইউনিয়নে সমাবেশ করি।

    কে আহলে হাদিস আর কে হানাফি এটা নিয়ে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে বাহাস আয়োজন করি। কার দাড়ি ছোট আর কার দাড়ি লম্বা এটা নিয়ে আলোচনা করে মসজিদে-মাদ্রাসার ওয়াল ফাটিয়ে দেই । আর স্কুল-কলেজে গিয়ে আপনার এলাকার ছেলে-মেয়ে গুলো, যারা কোন না কোনভাবে আপনারই নিকটজন হয়, যা ইচ্ছা তাই করুক সে দিকে তাকানোর কোন দরকার নাই আপনাদের ? তাহলে এ সমাজকে সংশোধণের নসিহা করবে কারা?? সে সময় কি আপনাদের হবে???

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম