• শিরোনাম


    রাজশাহীর একটি গ্রামে নৌকার চেয়ে ধানের শীষের ভোট বেশি হওয়ায় অবরুদ্ধ পুরো গ্রাম।

    | ০৬ জানুয়ারি ২০১৯ | ১২:২৯ অপরাহ্ণ

    ধানের শীষে ভোট দেয়ার অভিযোগে পুরো গ্রামকেই অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। ওই গ্রামের ভেতর দিয়ে কোনো বাস যাতায়াত করছে না। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে টেলিভিশনের স্যাটেলাইট সংযোগ। অটোরিকশার চালকদের গ্রামের বাইরে যেতে বারণ করে দেয়া হয়েছে।
    এই গ্রামটির নাম হচ্ছে রাজশাহীর তানোরের কলমা। এটি রাজশাহী-১ (তানোর-গোদাগাড়ী) আসনের একটি গ্রাম।
    জানা গেছে, রাজশাহী শহর থেকে ৫০ কিলোমিটার দূরের এই গ্রামের ভোটাররা কলমা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন। এই কেন্দ্রে বিএনপি প্রার্থী আমিনুল হক পেয়েছেন ১ হাজার ২৪৯ ভোট। আর আওয়ামী লীগের প্রার্থী ওমর ফারুক চৌধুরী পেয়েছেন ৬৫৩ ভোট।
    গ্রামের বাসিন্দারা জানান, এই একটা ‘দোষে’ তাদের গ্রাম এখন বাইরের জগৎ থেকে বিচ্ছিন্ন। দোষটা হলো, নৌকার চেয়ে ধানের শীষে ভোট বেশি পড়েছে।
    শুক্রবার কলমা গ্রামের বিএনপির সমর্থকেরা জানান, বাস বন্ধ, ডিশ–সংযোগ বিচ্ছিন্ন হওয়ার পাশাপাশি গ্রামের গভীর নলকূপগুলো আওয়ামী লীগের লোকজন দখলে নিয়েছেন। এবার হয়তো তাদের সেচের পানিও দেয়া হবে না। গ্রাম থেকে বের হতে হলে পশ্চিমে বিল্লি গ্রাম এবং পূর্বে দরগাডাঙ্গা গ্রামের মধ্য দিয়ে যেতে হয়। কিন্তু কোনো দিক দিয়েই গ্রামের লোকজন আর বের হতে পারছে না।
    তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানী বলেন, ‘কলমা গ্রামের বিষয়টি আমিও শুনেছি। কিন্তু আমার কিছু করার নেই।’
    এক গ্রামবাসী বলেন, এখন আর দলমত দেখা হচ্ছে না। যাকে পাচ্ছে তাকেই মারছে, হুমকি দিচ্ছে। গত বুধবার গ্রামের আওয়ামী লীগ সমর্থক দুই শিক্ষক একটি মোটরসাইকেলে করে কলেজে যাচ্ছিলেন। পথে তাঁদের মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে দুজনকেই মারধর করা হয়েছে।
    গ্রামের এক অটোরিকশাচালক বলেন, আওয়ামী লীগের লোকজন তাকে দরগাডাঙ্গা বাজার থেকে ফিরিয়ে দিয়েছেন। এখন তিনি গাড়ি নিয়ে গ্রামের বাইরে যেতে পারছেন না।
    এদিকে এ বিষয়টি নিয়ে কথা বলেননি তানোর থানার ওসি রেজাউল ইসলাম ও কলমা ইউপি চেয়ারম্যান লুৎফর হায়দার।

    বাংলা



    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম