• শিরোনাম


    রাজনৈতিক ডামাডোলের মারপেঁচে ধর্ষকরা আরো হিংস্র হয়ে উঠে [] মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান

    লেখক : মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি | ০৮ অক্টোবর ২০২০ | ৪:১৯ অপরাহ্ণ

    রাজনৈতিক ডামাডোলের মারপেঁচে ধর্ষকরা আরো হিংস্র হয়ে উঠে [] মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান

    বাংলাদেশে ধর্ষণ এক মহামারী আকার ধারণ করেছে।প্রতিদিনই দেশের কোথাও না কোথাও একাধিক ধর্ষণের মতো জঘন্যতম অপরাধ সংঘটিত হচ্ছেই।এবং ধর্ষকরা সকল সময়েই রাষ্ট্র, সরকার, ক্ষমতাসীনদের আশ্রয় প্রশ্রয়ে ও ক্ষমতার বলয়ের মধ্যে থেকেই এই জঘন্যতম অপরাধ করে যাচ্ছে।

    যার কারণে ধর্ষকদের বিরুদ্ধে আদৌও কোনো সরকার ই দৃশ্যমান কঠিন কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারেনি।
    দুঃখের বিষয় হচ্ছে কোনো সরকার ই ধর্ষণ বন্ধে কঠোর কোনো আইন পাশ করেনি। যার ফলে ধর্ষকরা এই জঘন্যতম অপরাধ করতে উৎসাহবোধ করে।



    বেশকিছু ধর্ষণের ঘটনা সাধারণ মানুষের হৃদয়কে নাড়া দিয়েছে বারবার। যার ফলে একটা সময় মানুষ এ বিষয়ে রাজপথে নেমে এসে প্রতিবাদ করতে প্রস্তুত হয়ে যায়।
    যখন এ বিষয়টি সারাদেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সাধারণ মানুষকে প্রতিবাদে উদ্ভুদ্ধ করে তখনই আবার প্রতিটা সময়ের বিরোধী দলের পক্ষ থেকে তখন এই প্রতিবাদটি হয়ে যায় রাজনৈতিক।

    প্রতিটি বিরোধী দলই তখন রাজনৈতিক ফায়দা নিতে সাধারণ মানুষের প্রতিবাদকে রাজনৈতিক প্রতিবাদ হিসেবে ব্যবহার করে।
    তখন আবার প্রতিটি সরকার ও নিজেদেরকে পূতপবিত্র করতে মরিয়া হয়ে উঠে।প্রতিটি সরকার বিরোধী দলকে, আবার প্রতিটি বিরোধী দল সরকারকে এর দায় চাপানোর সংস্কৃতিতে ধর্ষণের বিষয়টা তখন হয়ে যায় রাজনৈতিক।
    এই রাজনৈতিক ডামাডোলের কারণে তখন প্রকৃত অপরাধীরা পেয়ে যায় রাজনৈতিক শেল্টার।

    সম্প্রতি নোয়াখালী, সিলেট সহ দেশের বেশকয়েকটা স্থানে ধর্ষণের ঘটনা ও রাজনৈতিক ডামাডোলের কারণে অতীত সরকার ও বিরোধী দলের চেহারা ই আমরা এখন দেখতে পারছি, যার কারণে ধর্ষণের মতো জঘন্যতম অপরাধ করে ও বুক ফুলিয়ে সমাজে ঘুরাফেরা করছে নরপশুরা।
    যা অত্যন্ত লজ্জাজনক ও আতংকের।ধর্ষকের শাস্তির পরিবর্তে ধর্ষিতার পরিবার তখন হয়ে যায় অসহায় ও আতংকিত ।
    তাই সরকার ও বিরোধী দলের প্রতি উদাত্ত আহ্বান থাকবে যে,ধর্ষক ধর্ষক ই,এদের কোনো রাজনৈতিক পরিচয় নেই,এরা মানবতার দুশমন, বাংলাদেশের দুশমন। এদের বিরুদ্ধে প্রয়োজন সম্মিলিত ঐক্যবদ্ধ আনদোলন ও সিদ্ধান্ত। প্রয়োজন কঠোর থেকে কঠোরতম শাস্তি।

    মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান
    যুগ্ম সম্পাদক
    ইসলামী ঐক্যজোট
    ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম