• শিরোনাম


    মোদির বাংলাদেশে আগমনের প্রতিবাদে নোয়াখালীতে সর্বসস্তরের তৌহিদি জনতার বিক্ষোভ

    মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, জেলা প্রতিনিধি, নোয়াখালী। | ০৬ মার্চ ২০২০ | ১০:১৯ অপরাহ্ণ

    মোদির বাংলাদেশে আগমনের প্রতিবাদে নোয়াখালীতে সর্বসস্তরের তৌহিদি  জনতার বিক্ষোভ

    নোয়াখালীর বেগমঞ্জের চৌমুহনী পাবলিক হল চত্বরে সর্বস্তরের তৌহিদী মুসলিম জনতার কতৃর্ক মুজিববর্ষ উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমন এক বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

    অদ্য বেলা দুপুর ২ টায় বাদ জুমা নামায পরে নোয়াখালীর সর্বস্তরের তৌহিদী মুসলিম জনতার এ প্রতিবাদ জানায়।সমাবেশে মাওলানা মোহাম্মদ শিব্বীর আহমেদ বলেন, ভারতীয় ১০০০ বছর মুসলমানদের শাসন ইতিহাসে কখনো সাম্প্রদায়িকতা ও দাঙ্গা হাঙ্গামা হয়নি,হিন্দুদের প্রতি অত্যাচার জুলুম নির্যাতন হয় নি। কিন্ত দুঃখের বিষয় ৭৩ বছর হতে না হতেই হিন্দুরা যে হারে মুসলমানদের প্রতি দাঙ্গা-হাঙ্গামা হত্যা, ধর্ষণ, করছে সেটা অত্যন্ত নিন্দনীয়।পূর্বেও ভারতের মুজাফফরনগরে হাজার হাজার মুসলমানদের হত্যা করা হয়েছে।সম্প্রতি ভারত সরকার কর্তৃক বিতর্কিত নাগরিত্ব আইনে আইনের বিরুদ্ধে গোটা মুসলিম বিশ্বের মুসলমানেরা প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে।
    আমরা দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে জানাতে চাই বাংলার জমিনে মুসলমান হত্যাকারীদের পদচারণ বরদাস্ত করা হবে না।এছাডাও মাওলানা মমিনুল হক ও মাওলানা বেলাল হোসেন বলেন, প্রয়োজনে দাফনের কাপড নিয়ে ১৭ ই মার্চ মুজিববর্ষে আমরা ঢাকা যাবো।যদি খুনি মুদি বাংলাদেশে আসে আমরা ঢাকা ঘেরাও করবো, আমরা মুজিব বর্ষের বিপক্ষে নয়।আমরা বাংলাদেশের স্থপতি মরহুম শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।কিন্ত কোনো মুসলমান হত্যাকারীকে বাংলাদেশের মুসলমান আসতে দিবে না।জীবনের শেষ রক্তবিন্দু থাকা পর্যন্ত আমরা প্রতিহত করবো।
    উল্লেখ্য,ভারতের গুজরাটের কসাই খ্যাত মুসলিমবিদ্বেষী ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকার কর্তৃক বির্তকিত নাগরিক আইনে ও ভারতে মুসলমান নাগরিকদের হত্যা,নির্যাতন,মসজিদে আগুন ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।এ দিকে প্রায় পঞ্চাশ হাজারের অধিক সর্বস্তরের তৌহিদি ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা চৌমুহনী পাবলিক হল থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু করে করেন গোলাবাড়ি কাচারী মসজিদ হয়ে সিঙ্গার রোড দিয়ে আবার পুনরায় পাবলিক হলে এসে একত্রিত হয়।মিছিলে হাজার হাজার তৌহিদি ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা বলেন, মোদির দুই গালে জুতা মারো তালে তালে,এছাড়াও মিছিলে নরেন্দ্র মোদির কুশপুত্তলিকাও পোড়ানো হয়।এ সময় বেগমগঞ্জ সার্কেল(এসপি) শাহজাহান খান, বেগমগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) হারুন অর রশীদের নেতৃত্বে নিরাপত্তায় বিপুল সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়।



    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম