• শিরোনাম


    মুফতী ইজহার কর্তৃক হেফাজত আমীরকে নিয়ে বিষোদগারের তীব্র নিন্দা হাসানাত আমিনীর।

    | ০৭ অক্টোবর ২০১৮ | ৫:০২ অপরাহ্ণ

    মুফতী ইজহার কর্তৃক হেফাজত আমীরকে নিয়ে বিষোদগারের তীব্র নিন্দা হাসানাত আমিনীর।

     
    হেফাজত ও আল্লামা আহমদ শফীকে নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না
    –মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী

    হেফাজত ও আল্লামা শাহ্ আহমদ শফীকে নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না’ বলে মন্তব্য করেছেন হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগর সেক্রেটারী ও কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরার সদস্য মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী। তিনি আজ এক বিবৃতিতে মুফতী ইজহার কর্তৃক হেফাজত আমীরকে নিয়ে বিষোদগারের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে এই মন্তব্য করেন। বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, আলোচিত-সমালোচিত মুফতী ইজহার ‘ব্যক্তি স্বার্থে আপোষ ও আদর্শ বিচ্যুত হওয়ার মিথ্যা অভিযোগ এনে হেফাজত আমীরকে সংগঠন থেকে বহিস্কার ও তাঁর বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেবেন বলে মিডিয়ায় ঘোষণা দিয়েছেন। আমি মনে করি, হেফাজত আমীরের বিরুদ্ধে ইজহার গংদের এই অবস্থান গভীর ষড়যন্ত্রেরই বহিঃপ্রকাশ।
    তিনি বলেন, আল্লামা শাহ্ আহমদ শফী দা.বা. নীতি ও আদর্শের প্রশ্নে কারো সাথে আপোষ করেননি। তিনি মুসলমানদের ঈমান-আক্বিদা, কওমী মাদরাসা ও ইসলামী তাহযিব-তামাদ্দুন সংরক্ষণের জন্য এই বৃদ্ধ বয়সেও লড়াই করে চলেছেন। অসৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করতেই একটি মহল জনমনে তাঁর বিরুদ্ধে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। আমরা পরিস্কার বলছি, হেফাজত ও আল্লামা শাহ্ আহমদ শফীকে নিয়ে কোন ষড়যন্ত্র বরদাশত করা হবে না।



    মাওলানা হাসানাত আমিনী বলেন, শৃঙ্খলা ভঙ্গের কারণে মুফতী ইজহারকে ইসলামী ঐক্যজোট ও নেজামে ইসলাম পার্টি থেকে বহিস্কার করা হয়েছিল, জঙ্গি সম্পৃক্ততার অভিযোগে একাধিক মামলায় গ্রেফতার হয়ে তিনি জেলও খেঁটেছেন। বিতর্কিত এই আলেম আওয়ামীলীগ-বিএনপি সব ঘাটের পানি পান করে এখন সাম্রাজ্যবাদের মদদে হেফাজতকে ভাঙ্গার টেন্ডার নিয়েছেন। উলামায়ে কেরাম ইজহারের চরিত্র সম্পর্কে বেশ অবগত। তারা কোনদিন ইজহারের ফাঁদে পা দেবে না।

    তিনি আরও বলেন, সম্প্রতি হেফাজতের সিনিয়র নায়েবে আমীর আল্লামা শাহ্ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী হেফাজত, বেফাকসহ সকল রাজনৈতিক পদ থেকে অব্যহতি নিয়েছেন। কারণ, তিনি কওমী মাদরাসার সনদের স্বীকৃতির বিপক্ষে ছিলেন। আমরা এটাকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখি। আমাদের আকাবেরদের মাঝেও এমন মতবিরোধ ছিল। কিন্তু তারা এনিয়ে কেউ কাউকে কটু কথা বলেতেন না। মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী ও হেফাজত আমীরের বিষয়টা ঠিক এমনই। কিন্তু সুবিধাবাদি মুফতী ইজহার গং এটাকে সামনে রেখে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের নিকৃষ্ট খেলায় মেতে উঠেছে। তার এই ষড়যন্ত্রমূলক দূরভিসন্ধি অদূর ভবিষ্যতে নিজের জন্যই বুমেরাং হয়ে দাঁড়াবে ইনশাল্লাহ।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম