• শিরোনাম


    মানসম্মত আলু বীজ দেখতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণে যাচ্ছেন কৃষি কর্মকর্তারা, ব্যায় ৩কোটি টাকা।

    | ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৬:০৪ অপরাহ্ণ

    মানসম্মত আলু বীজ দেখতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণে যাচ্ছেন কৃষি কর্মকর্তারা, ব্যায় ৩কোটি টাকা।

    ৩ কোটি টাকা খরচ করে মানসম্মত আলু বীজ দেখতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণে যাচ্ছেন বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশনের (বিএডিসি) কর্মকর্তারা। এছাড়া প্রকল্পের আওতায় ৪৩২ জন কর্মকর্তার জন্য আরো ৫ কোটি টাকা ভ্রমণ ব্যয় রাখা হয়েছে।

    ৮ হাজার ৪০০ জনের স্থানীয় প্রশিক্ষণ বাবদ ৩ কোটি ১৭ লাখ টাকা ব্যয় রাখা হয়েছে। এর আওতায় অফিসার, স্টাফ, চুক্তিবদ্ধ কৃষক এনজিও প্রতিনিধি রয়েছেন। ফলে এক প্রকল্পের আওতায় তিন খাতে শুধু ভ্রমণ ব্যয়ই ধরা হয়েছে ১১ কোটি ১৭ লাখ টাকা।



    মানসম্পন্ন আলু বীজ উৎপাদন ও সংরক্ষণে এবং কৃষক পর্যায়ে বিতরণ জোরদারকরণ’ প্রকল্পের আওতায় কর্মকর্তারা বিদেশ প্রশিক্ষণ ও শিক্ষাসফর করবেন।

    আলুর উৎপাদন বৃদ্ধির জন্য মানসম্মত বীজের খোঁজে বিদেশ ভ্রমণ করবেন ওইসব কর্মকর্তা। তবে কোন দেশে ভ্রমণ করবেন, কয়দিন থাকবেন কোন কিছুই জানা না গেলেও ইউরোপকেও বেশি প্রাধান্য দেওয়া হচ্ছে বলে জানায় বিএডিসি।

    প্রকল্পের আওতায় বিদেশ ভ্রমণ প্রসঙ্গে বিএডিসির মহাব্যবস্থাপক (বীজ) নূরনবী সরদার গণমাধ্যমকে বলেন, প্রকল্প সবেমাত্র অনুমোদন পেয়েছে। এর আওতায় কর্মকর্তাদের ভ্রমণখাতে ব্যয় রাখা হয়েছে। প্রকল্প চলাকালীন কর্মকর্তারা বিদেশ যাবেন। কোন দেশে যাবেন কারা বিদেশ যাবেন এ বিষয়ে এখনো জিও (সরকারি আদেশ) হয়নি।

    কোন দেশে ভ্রমণ করবেন, কেন ভ্রমণ করবেন? এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে মহা ব্যবস্থাপক বলেন, জিও হলেই সব জানতে পারবেন।

    প্রকল্পের মোট ব্যয় ৬৮৮ কোটি ২১ লাখ ১২ হাজার টাকা। ০১ সেপ্টম্বর ২০১৯ থেকে ৩০ জুন ২০২৪ মেয়াদে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্পের মূল্য লক্ষ্য উদ্দেশের থেকে আনুষঙ্গিক ব্যয়ই বেশি। প্রকল্পের আওতায় ৫৭ জন কর্মকর্তার অতিরিক্ত কাজের ভাতার জন্য ৭৫ লাখ টাকা ব্যয় রাখা হয়েছে। ডাক ও তার খাতে ৫, টেলিফোনে ১৫ ও ৩৬টি যানবাহনের ফিটনেস বাবদ ২৫ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে। প্রকল্পের আওতায় ৩৪টি হিমাঘারে বিদ্যুৎ বিল বাবদ ৭০ কোটি টাকা ব্যয় নির্ধারণ করেছে বিএডিসি। প্রকল্পের আওতায় প্রদর্শনী প্লট স্থাপন ও মাঠ দিবস বাবদ ১ কোটি ১২ লাখ, আসবাবপত্র কেনা বাবাদ ২ কোটি, বিদ্যুৎ সরঞ্জাম বাবদ ২ কোটি ও চার হাজার ত্রিপল কেনা বাবদ ৬ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দ রাখা হয়েছে। কৃষকদের মধ্যে মানসম্পন্ন বীজ আলু সরবরাহের মাধ্যমে বাংলাদেশে টেকসই খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ অন্যতম উদ্দেশ্য। অথচ প্রকল্পের মূল কাজের থেকে আনুষঙ্গিক খাতেই বেশি ব্যয় বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম