• শিরোনাম


    মাদারীপুরের সেরেলা আক্তার হেনা ১৫ বছর পর পুরুষ হয়ে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বাড়ি ফিরলেন

    দেলোয়ার হুসাইন, প্রতিনিধি | ১৬ মার্চ ২০২০ | ৫:২৮ অপরাহ্ণ

    মাদারীপুরের সেরেলা আক্তার হেনা ১৫ বছর পর পুরুষ হয়ে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বাড়ি ফিরলেন

    মাদারীপুর থেকে তথ্য সূএ জানা যায় দীর্ঘ প্রায় ১৫ বছর পর এক কিশোরী পুরুষে রুপান্তরিত অবস্থায় স্ত্রী সন্তান নিয়ে তার গ্রামের বাড়ি শিবচরে ফিরেছে। আর তা নিয়ে এলাকায় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। তাকে দেখতে প্রতিদিন তার বাড়িতে শত শত মানুষের ভীড় জমাচ্ছেন দূরদেশ থেকে ও। আর যা তীব্র চাঞ্চল্য ,রহস্যময় শুরু হয়েছে শিবপুর মানুষের মাঝে।

    পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জেলার শিবচর উপজেলার কামারকান্দি গ্রামের সেকান্দার খানের কিশোরী মেয়ে সেরেলা আক্তার হেনা প্রায় ১৫ বছর আগে বাবা মায়ের সঙ্গে গ্রাম ছেড়ে ঢাকা শহরে বসবাস শুরু করে। ঢাকায় থাকাকালীন সে লেখাপড়া শেষ করে ডাক্তার হওয়ার কোর্স সম্পন্ন করে। প্রায় ৮ বছর আগে সেরেলা আক্তার হেনা তার নিজের শারিরিক পরিবর্তন লক্ষ্য করে। তার মধ্যে পুরুষালী পরিবর্তন দেখে সে চিকিৎসকের শরনাপন্ন হয়। চিকিৎসকরা তাকে জানায় হরমোনজনিত কারণে এই সমস্যা হয়েছে। ঔষুধ খাওয়া শুরু করলেও ধীরে ধীরে সে সম্পূর্ন একজন পুরষ মানুষে রুপান্তরিত হয়ে যায়।



    এমতাবস্থায় সে প্রায় ৫ বছর আগে নিজের নাম পরিবর্তন করে সেলিম রেজা নাম রাখেন। পরে ঢাকাতে এক মেয়েকে বিয়ে করে। বর্তমানে তার বয়স ৩০ বছর। তার ছোট একটি ছেলে রয়েছে। গত প্রায় এক সপ্তাহ আগে সেলিম তার স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে গ্রামের বাড়ি শিবচরের চরকামারকান্দি গ্রামে আসে। তার আসার সংবাদ পেয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য দেখা দেয়। তাকে এক নজর দেখতে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন গ্রাম থেকে উৎসুক মানুষ বাড়িতে ভীড় করছেন।

    প্রতিবেশী আসমা বেগম বলেন, সেলিম আগে মেয়ে ছিল। নাম ছিল হেনা। আমাকে নানী বলতো। আমার কাছে অনেক থাকতো। ঢাকা যাওয়ার পর সেখানেই ওর শারিরিক পরিবর্তন হয়েছে। ও বিয়ে করে স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে কয়েকদিন হল গ্রামে এসেছে। প্রতিবেশী আলম খান বলেন, ওরা ঢাকা থাকা অবস্থায় আমার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করতো। ও মেয়ে থেকে পুরুষে রুপান্তর হওয়ার খবর আমাকে জানিয়ে বলেছিল চাচা আল্লাহ যেহেতু আমাকে মেয়ে থেকে পুরুষ বানিয়ে দিয়েছেন তাহলে আর ঢাকা থাকবো না। গ্রামে এসে প্রয়োজনে দিন মজুরী করে বাবা মায়ের ভরণ পোষণ করবো।

    পাশের গ্রামের আতাউর রহমান বলেন, একটি মেয়ে ছেলে হয়ে গিয়েছে শুনে তাকে দেখতে এসেছি। তার কণ্ঠ শুধু মেয়ের মত। চলাফেরা পুরুষের মতই। আবার তার স্ত্রী ও সন্তান দেখলাম। সত্যিই এটা অবাক করা ব্যাপার। আমার মত অনেক মানুষ তাকে দেখতে আসছে।

    পুরুষে রুপান্তরিত সেলিম রেজা বলেন, আমি মেয়ে হয়েই জন্ম গ্রহণ করেছিলাম। তবে যখন থেকে একটু বুঝতে শিখি তখন লক্ষ্য করতাম অন্য মেয়েদের মত আমার মেয়েলি পরিবর্তন হচ্ছে না। প্রায় ৮ বছর আগে আমার মধ্যে ব্যাপক পরিবর্তন শুরু হলে চিকিৎসকের কাছে গেলে তারা বলেন এটা হরমোনজনিত সমস্যা। হরমোনজনিত হোক বা যে কোন রোগের জন্য হোক সৃষ্টিকর্তা আমাকে মেয়ে থেকে সম্পূর্ন পুরুষে রুপান্তরিত করে দিয়েছেন। আমি বিয়ে করেছি। আমার একটি ছেলেও রয়েছে। একজন পূর্নাঙ্গ পুরুষ যেভাবে চলাফেরা করে আমি সেভাবেই চলাফেরা করছি।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম