• শিরোনাম


    ভাড়াটিয়া ভোক্তা ও নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত

    এম.এ. মাজেদ, স্টাফ রিপোর্টার | ১১ অক্টোবর ২০২০ | ২:৪২ পূর্বাহ্ণ

    ভাড়াটিয়া ভোক্তা ও নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত

    ভাড়াটিয়া, ভোক্তা ও নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র চেয়ারম্যান প্রবীণ সাংবাদিক কামরুল হুদা বলেছেন, ধর্ষণ, নির্যাতন, হত্যা বেড়েই চলেছে। ধর্ষণ থামছেই না। কড়া আইন সত্ত্বেও না। ফাঁসির ভয়ও থামাতে পারছে না ধর্ষণ। বরং ধর্ষণের পর অত্যাচার করে হত্যার ঘটনা বাড়ছেই। সম্মিলিতভাবে উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারলে এ পাপ রোধ করা সম্ভব। ধর্ষণ আর মাদক একে অপরের পরিপূরক। তাই দু’টিকেই এক সাথে রোধ করতে হবে। নারী নির্যাতন করে হত্যা, ধর্ষণ মামলাগুলোর জন্য দ্রুত বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে। ধর্ষণের কারণে নারী সমাজ আজ আতঙ্কিত ও ভীত।

    তিনি শনিবার ১০ অক্টোবার, দুপুর ১২ টায় ভাড়াটিয়া, ভোক্তা ও নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র উদ্যোগে ধর্ষকদের সর্বোচ্চ শস্তি মৃত্যুদন্ড, নারী ও শিশু নির্যাতন বন্ধ, নিত্যপণ্যের বাজার স্থিতিশীল রাখা, করোনাকালে বিদ্যুৎ, গ্যাস ও পানির বিল মওকুপ, ভাড়াটিয়াদের প্রতি সহনশীল হওয়াসহ যাত্রী হয়রানী বন্ধের দাবীতে চেরাগী মোড়ে সমাবেশ ও মানববন্ধনে এ সব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, একের পর এক শিশু নির্যাতনের ঘটনায় দেশের সামগ্রিক শিশু অধিকার আজ প্রশ্নবিদ্ধ। সমাজের অনগ্রসর শ্রেণি বিশেষ করে নারী তথা অন্যান্য শ্রেণি-পেশার জনগোষ্ঠীকে নিয়ে অনেকেই কথা বলেন। কিন্তু শিশু অধিকার নিয়ে তেমন কোনো কার্যক্রম আমরা দেখি না। সমাজের শিশুরা যেন অভিভাবহীন। জাতি গঠনে শিশু অধিকার সুরক্ষা ও শিশু কল্যাণ নিশ্চিত করা অপরিহার্য। গত এক বছরে শিশু নির্যাতনের কয়েকটি ভয়াবহ ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতনের ভিডিও ফুটেজ ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। প্রবীণ সাংবাদিক কামরুল হুদা আরো বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বৃদ্ধির ঘটনায় সাধারণ মানুষ উদ্বিগ্ন। বাজারে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে তাল মিলিয়ে ক্রয়ক্ষমতা না বাড়ায় সাধারণ মানুষ, বিশেষ করে, আয়ের শ্রমজীবীরা অসহায় বোধ করছেন। পরিতাপের বিষয় হল, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির ক্ষেত্রে সরকারের পক্ষ থেকে তেমন উচ্চবাচ্য হয় না বললেই চলে। বাজার নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে সরকারের শক্ত কোনো ভূমিকা নেই। তিনি আরো বলেন, করোনাকালে গ্যাস, পানি ও বিদ্যুৎ বিল মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নিয়ে বাড়ীওয়ালাদের ভাড়ার টাকা অর্ধেক নেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। তিনি আরো বলেন, যানবাহনে যাত্রী সেবার লেশ মাত্র নেই। সারাদেশে ভাড়া ডাকাতি চললেও প্রশাসন ও যথাযথ কর্তৃপক্ষ তেমন কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না। অন্যদিকে হাজার হাজার ফিটনেস বিহীন চলাচল করছে। বিশেষ করে লক্করঝক্কর বাস, জানালা ভাঙা, লাইট ও ফ্যান নেই, বৃষ্টির সময় ছাদ থেকে পানি পড়ে, ইঞ্জিনের বিকট শব্দ, হাইড্রোলিক হর্ণের ব্যবহার, ইত্যাদি। সারা দেশে যানজটের অন্যতম একটি কারণ গণপরিবহন শ্রমিকদের স্বেচ্ছাচারিতা। তারা তাদের খেয়াল-খুশি মতো এমনভাবে ক্রসিংয়ে বা মোড়ে বা রাস্তার মাঝখানে বাস থামিয়ে যাত্রী উঠানো-নামানো করে, যাতে করে পেছনের কোন যানবাহন তাকে অতিক্রম করতে না পারে। ফলে সবুজ সিগনাল থাকা সত্ত্বেও যানবাহনগুলোকে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়।



    ভাড়াটিয়া, ভোক্তা ও নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’র সমাবেশ ও মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, এনজিটিভির বার্তা সম্পাদক সাইফুর রহমান সাইফুল, বাংলাদেশ আইন সহায়তা অধিকার বাস্তবায়ন ফাউন্ডেশনের চট্টগ্রাম জেলা সেক্রেটারী তারেক খান চৌধুরী, রাজনীতিবিদ সাহাব উদ্দিন হাসান বাবু, সাংবাদিক মো. নাছির উদ্দিন চৌধুরী, সাংবাদিক কামাল হোসেন, সাংবাদিক রোকন উদ্দীন আহমদ, সাংবাদিক ইকবাল মাহমুদ রুস্তম, সাংবাদিক জাকির হোসেন, সাংবাদিক মো. জাবেদুর রহমান, বাংলাদেশের বিশিষ্ট হোমিও গবেষক ডা. মাহতাব হোসাইন মাজেদ, সাংবাদিক আমান উল্লাহ বাদশা, সাংবাদিক দেবাশীষ রাজা, সাংবাদিক মো. সিরাজুল আলম টিপু, সাংবাদিক নন্দীনি চৌধুরী, রাজনীতিবিদ মো. সেলিম, লোকমান হাকিম, মো. আবদুল্লাহ প্রমুখ।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম