• শিরোনাম


    ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি, দেড় কোটি টাকার বাজেট প্রকাশ, মেয়রকে গ্রেফতারের দাবি

    রিপোর্ট: মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি | ২৯ অক্টোবর ২০১৯ | ৩:৩৮ অপরাহ্ণ

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি, দেড় কোটি টাকার বাজেট প্রকাশ, মেয়রকে গ্রেফতারের দাবি

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরসভার মেয়র ও যুবলীগ নেতা তাকজিল খলিফা কাজলকে নিয়ে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নিজস্ব প্রতিবেদক জাবেদ বিজনকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন তার সমর্থকরা। এ ঘটনায় উক্ত পৌর মেয়রকে গ্রেফতার করে তাকে আইনের আওতায় আনার দাবি করেছে জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন এক বিবৃতিতে জেএসকেএফ চেয়ারম্যান মোঃ সাইফুল ইসলাম ও যুগ্ম মহাসচিব এম এ আবির বলেন, সাংবাদিককে হত্যা এবং হত্যা পরবর্তী বাজেট নিয়ে কিভাবে মেয়রের সমর্থকরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোষ্ট করেন। বিষয়টি গোটা সাংবাদিক সমাজের জন্য হুমকির।

    পোস্টে সাংবাদিক বিজনকে হত্যার পর মামলা চালানোর জন্য দেড় কোটি টাকার বাজেট করার কথাও ফেসবুকে পোস্ট করেছে হুমকিদাতারা।



    শনিবার রাতে ‘কাজল ভাইয়ের সমর্থক’ নামীয় একটি ফেসবুক আইডি থেকে ওই পোস্ট দেয়া হয়েছে।

    সাংবাদিক বিজনের হাতের মূল্য এক কোটি ও পায়ের মূল্য ৫০ লাখ টাকা উল্লেখ করা হয়েছে ওই ফেসবুক পোস্টে।

    অন্য আরেকটি পোস্টে ‘বিজনকে যেখানে পাবে- তাকে সাইজ যে করতে পারবে তাকে পুরস্কৃত করা হবে’ এই ঘোষণাও দেয়া হয়।

    এর আগে গত ২৫ অক্টোবর ‘আখাউড়ায় খলিফা সাম্রাজ্য’ শিরোনামে মানবজমিন পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই সংবাদে মেয়র ও যুবলীগ নেতা তাকজিল খলিফা কাজলের নানা ‘অপকর্মের’ কথা তুলে ধরা হয়।

    কাজল ছাড়াও তার ভাই-ভাতিজাদের ‘অপকর্মের’ কথাও ওঠে আসে ওই সংবাদে। ওইদিনের মানবজমিন পত্রিকার কয়েকশ’ কপি আখাউড়ায় ছিনতাই করে নেয়া হয়। এরপর পত্রিকার সেগুলো কাজলের বাড়িতে নিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়।

    উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাবুদ্দিন বেগ শাপলু ছাড়াও কাজলের ভাতিজা রানা খলিফা পত্রিকা ছিনতাই ও পুড়ানোর ঘটনার নেতৃত্ব দেন।

    পাশাপাশি সাংবাদিক বিজনের দৃষ্টান্তমূলক বিচার এবং মানবজমিন পত্রিকা আখাউড়ায় অবাঞ্ছিত লিখে যুবলীগের নামে একটি পোস্ট দেন কাজলের ছোট ভাই নেছার আহমেদ খলিফা।

    উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শাহাবুদ্দিন বেগ শাপলু, সহ-সভাপতি সৈয়দ যুবরাজ শাহ রাসেল, সাধারণ সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন নয়ন, পৌর যুবলীগ সভাপতি মো. মনির খানসহ ইত্যাদি নামীয় ফেসবুক আইডি থেকে হুমকি দিয়ে পোস্ট দেয়া হচ্ছে।

    এই ব্যাপারে সাংবাদিক জাবেদ রহিম বিজন জানান, যুবলীগ নেতা ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের কাছে অসহায় আখাউড়ার মানুষ, সেই চিত্রই তুলে ধরা হয়েছে সংবাদে। যা ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়। তবে এই সংবাদে দুর্বৃত্তদের মাথায় বাজ পড়েছে। তাই তারা এ সব করছে।

    এদিকে গোটা বিষয়টি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনেরও দাবি করে জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন । নয়তো কোন ধরনের নাশকতা ঘটলে এর দায়ভার কে নেবে!

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম