• শিরোনাম


    ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সকল সরকারি বেসরকারি হাসপাতালে আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে অনাগত শিশুর লিঙ্গ বলা নিষিদ্ধ

    রিপোর্ট: হেবজুল বাহার, স্টাফ রিপোর্টার | ২৯ নভেম্বর ২০১৯ | ৫:০৭ অপরাহ্ণ

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সকল সরকারি বেসরকারি হাসপাতালে আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে অনাগত শিশুর লিঙ্গ বলা নিষিদ্ধ

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেলার সকল সরকারি বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে অনাগত শিশুর লিঙ্গ বলা নিষিদ্ধ করেছে সিভিল সার্জন অফিস।

    বুধবার (২৭ নভেম্বর) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম এ তথ্য জানান।



    গর্ভকালীন অবস্থায় ডাক্তারি পরীক্ষাগুলো মধ্যে আল্ট্রাসনোগ্রাফি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই পরীক্ষার মাধ্যমে গর্ভবতী মায়েদের অনাগত সন্তানের লিঙ্গ ও শারীরিক গঠনের অবস্থাসহ নবজাতকের নানান বিষয় শনাক্ত করেন চিকিৎসক্তরা। কিন্তু অধিকাংশই গর্ভবতী মায়েরা ছেলে সন্তান নাকি মেয়ে সন্তান এ বিষয়টি শনাক্ত করতেই আল্ট্রাসনোগ্রাফি করিয়ে থাকেন।

    তবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া হঠাৎ সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালগুলো আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে অনাগত শিশুর লিঙ্গ বলা নিষিদ্ধ করার কারণ গত ২৪ নভেম্বর ঘটে যাওয়া জন্ম নেওয়া এক নবজাতকে ঘিরে।

    এর আগে গত ২৪ নভেম্বর জেলা সদর হাসপাতালে জন্ম নেয়া এক নবজাতককে ঘিরে ধূম্রজাল তৈরি হয়। ওইদিন দুপুরে হাসপাতালে সিজারিয়ান অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার মোহনপুর এলাকার শারমীন আক্তার ও সুহিলপুর এলাকার তামান্না আক্তার এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের পাইকপাড়া এলাকার দিপ্তী রাণী দাস দুই ছেলে ও এক মেয়ে শিশুর জন্ম দেন। শারমীন ও তামান্নার কোলে দুই ছেলে শিশু এবং দিপ্তীর কোলে এক মেয়ে শিশু তুলে দেন চিকিৎসক। কিন্তু বিপত্তি বাধে দিপ্তীর ছেলে সন্তান দাবি করা নিয়ে। দিপ্তী মেয়ে শিশু তার নয় জানিয়ে তামান্নার কোলে তুলে দেয়া ছেলেশিশুকে তার বলে দাবি করেন।

    এ দাবি করার কারণ হিসেবে দিপ্তী জানান, তিন বার আল্ট্রাসনোগ্রাফি করে তার গর্ভে ছেলে শিশু রয়েছে বলে চিকিৎসকরা তাকে জানিয়েছিলেন।

    সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম জানান, সম্প্রতি মা ও নবজাতকের স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক একটি সভায় বেশকিছু সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। ওই সভায় সর্বসম্মতিক্রমে আল্ট্রাসনোগ্রাফি করে শিশুর লিঙ্গ বলা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এখন থেকে কোনো হাসপাতালে আল্ট্রাসনোগ্রাফির মাধ্যমে শিশুর লিঙ্গ বলা যাবে না। এজন্য চিকিৎসকসহ জেলার সব হাসপাতালে চিঠি দেয়া হয়েছে।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম