• শিরোনাম


    ব্রাম্মণবাড়িয়া-৫ আসনে #এমপি_পদে এবার লড়বেন মাওঃমেহেদী_হাসান

    | ০৫ জুলাই ২০১৮ | ৬:৪১ অপরাহ্ণ

    ব্রাম্মণবাড়িয়া-৫ আসনে #এমপি_পদে এবার লড়বেন মাওঃমেহেদী_হাসান

    ব্রাম্মণবাড়িয়া-৫ আসনে এমপি পদে এবার লড়বেন #মেহেদী_হাসান ব্রাম্মণবাড়িয়া-৫ ( নবীনগর) আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমপি পদে লড়বেন ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ও হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগর সদস্য আলহাজ্ব মাওলানা মেহেদী হাসান। দলের পক্ষ থেকে তার মনোনয়ন চূড়ান্ত বলে জানিয়েছেন ইসলামী ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মুফতি আনসারুল হক ইমরান। তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন, ইসলামী ঐক্যজোট এখন কোন জোটে নেই। তবে নির্বাচনকে সামনে রেখে ২০দলীয় জোট ও মহাজোট উভয়ই আমাদের সাথে যোগাযোগ করছে। উভয় জোটের বাইরের দলগুলো নিয়েও একটি বৃহৎ জোটের সম্ভাবনা রয়েছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইসলামী ঐক্যজোট কোন জোটে গেলেও নবীনগরে আমাদের প্রার্থী হিসেবে মাওলানা মেহেদী হাসানই বহাল থাকবেন। এ বিষয়ে আমরা কোন ছাড় দেবো না। মাওলানা আনছারুল হক বলেন, মাওলানা মেহেদী হাসান একজন পরীক্ষিত নেতা।

    তিনি ২০০০ সাল থেকে তিলে তিলে নবীনগর উপজেলার তৃণমূল পর্যন্ত ইসলামী ঐক্যজোটের কমিটি গঠন করে সাংগঠনিক ভিত্তি মজবুত করেছেন। ২০১৩ সালের হেফাজতের আন্দোলনে তার সাহসী ভূমিকা ছিলো।গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের নীতিনির্ধারক মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনীর নির্দেশে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করে জনগণের কাছে দলের অবস্থান তুলে ধরেছেন। ২০১৪ সালের ২৯ শে এপ্রিল র‌্যাব-১৪-এর সদস্যরা মাওলানা মেহেদী হাসানকে ধরতে তার বাড়িয়ে গিয়ে তাকে না পেয়ে নিরপরাধ বড় ভাই শাহ নূর আলমকে গ্রেফতার করে রাতভর ক্যাম্পে নির্মম নির্যাতন করে হত্যা করে করে। তাকে রাজনৈতিকভাবে ঘায়েল করতে প্রতিপক্ষ একাধিক মামলা দিয়েছে তার বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে একের পর অপপ্রচার। তবুও তিনি রাজনীতির মাঠ থেকে সরে দাঁড়াননি। অটল ও অবিচল থেকেছেন সব সময়। এসব কিছু বিবেচনা করে দলের হাইকমান্ড মাওলানা মেহেদী হাসানের প্রতি খুবই আন্তরিক। তার মনোনয়ন চূড়ান্ত। তাকে নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।



    প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে মাওলানা মেহেদী হাসান বলেন, ২০১১ সালে ইসলামী ঐক্যজোটের সাবেক চেয়ারম্যান মুফতি ফজলুল হক আমিনী রহ. ঢাকায় তার অফিসে আমাকে ডেকে নিয়ে এই আসনে কাজ করার নির্দেশ দেন। মূলত তখন থেকেই আমার নবীনগর নিয়ে আমার ভাবনা শুরু হয়। মাওলানা মেহেদী হাসান জানান, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ (নবীনগর উপজেলা)র জনগণ চরম অবহেলা ও বঞ্চণার শিকার। মূল জেলার সাথে উপজেলার সড়কপথে যাতায়াত ব্যবস্থা নেই। বিভিন্ন সময়ে জনগণের ভোটে বিজয়ীরা কাঙ্খিত ও কাঠামোগত উন্নয়নে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন। ফলে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর হয়েও নবীনগরে লাগেনি আধুনিক উন্নয়নের ছোয়া। তিনি বলেন, শিক্ষা, সংস্কৃতি, ধর্মীয় মূল্যবোধ ও অবকাঠামোগত উন্নয়নের মাধ্যমে সন্ত্রাস, মাদক ও দূর্নীতিমুক্ত আধুনিক সমৃদ্ধ নবীনগর গড়া এখন সময়ের দাবী। এই দাবী পূরণের লক্ষ্যে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি এই আসনে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। আশা করি, জনগণ আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করে তাদের খেদমত করার সুযোগ করে দিবেন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম