• শিরোনাম


    বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবী মামলায় পুলিশের ইমেজ ও বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট হচ্ছে।

    | ০৯ অক্টোবর ২০১৮ | ৫:০১ পূর্বাহ্ণ

    বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবী মামলায় পুলিশের ইমেজ ও বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট হচ্ছে।

    বিএনপির নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত গায়েবি মামলা তদন্তের নির্দেশনা চেয়ে করা রিটের শুনানি হয়েছে। সোমবার (০৮ অক্টোবর) এ সংক্রান্ত রিটের শুনানিকালে বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ শুনানিকালে কয়েকটি মামলার এজাহার পর্যবেক্ষণ করে বলেন, এ ধরনের মামলায় পুলিশের ইমেজ ও বিশ্বাসযোগ্যতা নষ্ট হয়।

    আদালতে রিট আবেদনকারীদের পক্ষে ছিলেন ড. কামাল হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, সিনিয়র অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন প্রমুখ। তাদের সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. মাসুদ রানা, ব্যারিস্টার একেএম এহসানুর রহমান প্রমুখ। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একরামুল হক টুটুল।



    আদালত বলেন, খন্দকার মাহবুব বারের সিনিয়র আইনজীবী। তিনিও ককটেল মেরেছেন? এটা হাস্যকর। বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ মন্তব্য করেন।

    এ পর্যায়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী একরামুল হক টুটুল বলেন, ‘উনি তো আইনজীবীই নন, একটি রাজনৈতিক দলের পদধারী।’ তখন আদালত বলেন, ‘এটা কি বললেন, তিনি রাজনীতি করতে পারবেন না এটা তো আইনে নেই। আর আগে আইনজীবীরাই বেশি রাজনীতিতে যুক্ত ছিল।’

    এর আগে রিটের শুনানিতে অংশ নেন ড. কামাল হোসেন। তিনি বলেন, যেসব গায়েবি মামলা হয়েছে সেগুলোর অভিযোগ একই। গৎবাঁধা। শুনানির জন্য অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সময় চাইলে আদালত তা মঞ্জুর করেন। তাকে উদ্দেশ্য করে আদালত বলেন, ‘আপনি যদি নির্দেশনা দিতেন তাহলে এ ধরনের মামলা হত না। এতে পুলিশের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে।’

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম