• শিরোনাম


    বাংলাদেশী ৫৭ হাজী আটকে পরে সৌদি আরবে মানবেতর জীবনযাপন করছে

    তাজ উদ্দিন তারেক, মক্কা (সৌদি আরব) প্রতিনিধি | ০৬ এপ্রিল ২০২০ | ৭:৩৫ পূর্বাহ্ণ

    বাংলাদেশী ৫৭ হাজী আটকে পরে সৌদি আরবে মানবেতর জীবনযাপন করছে

    বাংলাদেশ থেকে গত ফেব্রুয়ারী মাসে সৌদি আরবে ওমরাহ হজ্ব পালন করতে আসা বাংলাদেশী ৫৭ জন ওমরাহ হজ্বযাত্রী জেদ্দাসহ বিভিন্ন যায়গায় আটকে আছে।

    তাদের মধ্যে কুমিল্লা জেলার দেবিদ্ধার থানার ২২জন রয়েছেন। তারা গত ২৬/২/২০ইং পবিত্র ওমরাহ হজ্ব পালনের জন্য সৌদি আরবে আসেন। এবং মার্চ মাসের ১৪ তারিখ ওমরা হজ শেষে তাদের দেশে ফিরার কথা ছিলো। কিন্তু করোনা ভাইরাসের প্রোকপ বেড়ে যাওয়ার ফলে সৌদি সরকারের সকল ফ্লাইট বন্ধ ঘোষনা করে যার ফলে ১৪/৩/২০ইং তারিখে তাদের দেশে ফিরা হয়নি। তাৎক্ষণিকভাবে ভাবে ওজারাতুল হজ্বকে বিষয়টা জানালে তারা ১৭/৩/২০ ইং একটা ফ্লাইট আছে বলে জানান, এবং হাজীদেরকে একটি আবাসিক হোটেলে ৪টি রুম বুকিং করে দেন। ওজারাতুল হজ্ব কোম্পানি এই হাজীদের থাকার জন্য যে ৪টি রুম দিয়েছেন তাদের ২২ জন হাজী অনেকটা কষ্টের মাঝেই সেখানে থাকতে হচ্ছে। খাবারের কোন ব্যাবস্থা নেই। বাংলাদেশি মোয়াল্লিম মাওলানা মাইনুদ্দীন সরকার জানান, জেদ্দায় অবস্থিত বাংলাদেশ এম্বাসীর কাউন্সিলর মাকসুদ সাহেবের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি হজ্ব বিষয়ক কর্মকর্তা হাসান সাহেবের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। তার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি সকল তথ্যাদি নেন এবং এ বিষয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দেন।কিন্তু অদ্যবদি তাদের কোন সহযোগিতা পাওয়া যায়নি। ওমরাহ হজ্বযাত্রী কাঠ ব্যাবসায়ী বাবুল মিয়া জানান, তার ৩ বছরের শিশু সন্তান রেখে স্বামী -স্ত্রী ওমরাহ করতে আসেন। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ে ফ্লাইট বাতিল হওয়ায় এবং বৈশ্বিক করোনার প্রকোপে এক অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়ে যায়।



    ৮০ বছরের বৃদ্ধ ওমরাহ হজ্ব যাত্রী জারু মিয়া জানান, আমি জমি বিক্রি করে নির্দিষ্ট পরিমান টাকা নিয়ে এসেছি। ফেরার পথে ফ্লাইটটি বাতিল হওয়ায় খাবারসহ নানা সমস্যায় জর্জরিত। সাথে কোন টাকা পয়সা না থাকায় অনেকটা মানবেতর জীবনযাপন করছে।

    ৯০ বছরের বৃদ্ধ ওমরাহ হজ্বযাত্রী বাদশা মিয়া মোল্লা জানান, তিনি বয়স্ক মানুষ। শারিরীক ভাবে অসুস্থ। থাকা,খাওয়া ও চিকিৎসার অভাবে অনেক কষ্ট হচ্ছে।
    ৮০ বছরের বৃদ্ধা ওমরাহ হজ্ব যাত্রী আয়ফলেরন্নেসা জানান, তিনি হাইপ্রেশারের রোগী। সাথে কোন টাকা পয়সা ও নেই। ফ্লাইট নিয়ে অনিশ্চয়তার কারনে প্রায় সময় প্রেসার বেড়ে যায়। অন্যান্য দেশের সরকার তাদের ওমরাহ হজ্বযাত্রীদের নিজ দেশে নিয়ে গেলেও বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে উদ্যোগ না থাকায় তাদের পড়তে হয়েছে নানা বিপাকে।এমতাবস্থায় তারা জরুরী ভিত্তিতে মানবিক দিক বিবেচনায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ সংশ্লিষ্ট সকলের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। যাতে অতিদ্রুত তাদের নিজ গন্তব্যে পৌছানোর ব্যাবস্থা করা হয়।

    বিস্তারিত জানতে যোগাযোগ করার জন্য
    মাইনুদ্দিন,বাংলাদশী মোয়াল্লিম -00966576104596
    সাইফুল ইসলাম -00966056 838 5279

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম