• শিরোনাম


    পাবনায় সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে সংবাদকর্মীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

    স্টাফ রিপোটারঃ | ১১ নভেম্বর ২০২১ | ১০:৫০ অপরাহ্ণ

    পাবনায় সতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে সংবাদকর্মীকে  হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

    পাবনার সুজানগর উপজেলায় আজ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক হিসেবে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ ও আলোকিত ৭১ সংবাদের সম্পাদক অনান্য গণমাধ্যম কর্মীদের মতোই নির্বাচনের সকল তথ্য সংগ্রহের সময়ে তার বাসা থেকে সকাল ৮.০০ ঘটিকায় খাবার শেষ করে মানিকহাট ইউনিয়নের ৫নং ও ৬নং ওর্য়াড়ের দুইটা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

    সংবাদকর্মী উক্ত কেন্দ্র গুলো দেখার পরে বাকি কেন্দ্র গুলো সহ তার উপজেলায় মোট ১০ টি ইউনিয়ন এর ভোট দেখার জন্য বোনকোলা ঈগার মাঠ থেকে ৮:৪৫ মিনিটের দিকে বোনকোলা হাটের দিকে যায় তার সহকর্মীরাসহ। সাংবাদিকদের মাইক্রকো গাড়ির জন্য তিনি বোনকোলা বাজারে অবস্থানরত কালীন সময়ে তিনি আনারস মার্কা প্রতীকের প্রার্থীর চিহৃিত সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হন।



    এ সন্ত্রাসী হামলা চক্রের হোতা ও অগ্রনায়ক ছিলেন মানিকহাট ইউনিয়ন পরিষদের সতন্ত্র প্রার্থীর কিছু গুন্ডা বাহিনী। বোনকোলা গ্রামের রকি ও আব্বাস আলী মল্লিকের নেতৃত্বে কিছু উৎসাহী লোকসহ সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ’কে পথিমধ্যে বোনকোলা বাজার বটতলায় রাস্তায় বেশ কিছু বখাটে যুবক ঐক্যবদ্ধ হয়ে তাকে নির্মমভাবে মারধর করেন। সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তাকে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করে, আরো ক্ষীপ্ত হয়ে হত্যার উদ্দেশ্য আঘাত করে শরীরের বিভিন্ন স্থানে দেশী অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে।

    আহত সংবাদকর্মী বলেন,তার সাথে থাকা তার পত্রিকার আইডি কার্ড, নির্বাচন কমিশনের পর্যবেক্ষক আইডি কার্ড, ও তার দুইটা মোবাইল ফোনসহ সাথে থাকা সব নগদ অর্থ আনারস মার্কা প্রার্থীর সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে নেয়।এছাড়াও তাকে বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম আমিনের অফিস রুমে নিয়ে অস্ত্র দিয়ে হত্যার ভয় দেখানো হয়।দীর্ঘ সময় ধরে চেয়ারম্যানের রুমে বন্দি করে রাখে। সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ ছিলেন আলোকিত ৭১ সংবাদ এর সম্পাদক তিনি উক্ত শিকারের বিষয় টি তার আশেপাশে থাকা ভ্রাম্যমাণ আদালতের জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সহ প্রশাসনের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের অবগত করেন।প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা ঘটনাটি শুনে জানান, থানায় মামলা দায়ের না করলে তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহন করবেন না বলে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন। মোবাইল কোর্ট,টহলরত টিমে দায়িত্বরত কর্মকর্তা কোন কিছু করেন নি জানান আহত সংবাদকর্মী। পরে তার ঘটনা টি শুনার পরে আমিনপুর থানা ও বেড়া উপজেলার তিনজন সাংবাদিক তাকে নিরাপদে রাখার জন্য তাদের সাথে নিয়ে যায়।

    উক্ত ঘটনা টি জানার পরে বিভিন্ন সাংবাদিক মহল থেকে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদকে নিয়ে পত্র পত্রিকাসহ একাধিক টিভি চ্যানেল সংবাদ প্রচার করে।প্রসাশনের উচ্চপদস্থ লোকজন তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় এবং সেই সাথে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ এর হামলাকারী সন্ত্রাসীদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে তাদের কঠোর বিচারের দাবী করেন। তারা বলেন সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ একজন সময়ে সাহসী সাংবাদিক তার হামলা কারীদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরা কঠোর আনন্দোলনের অবস্থান গ্রহন করবো। ঘটনাস্থলে নির্বাচনের দায়িত্বরত প্রশাসনের কর্মকর্তাদের চরম অবহেলা ও সাংবাদিক বির্ধেষ আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করেন সচেতন মহল। দায়িত্বে অবহেলাকারী কর্মকর্তাদের শাস্তির দাবী জানান স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম