• শিরোনাম


    পঞ্চগড়ে কাদিয়ানীদের ইজতেমা বন্ধ ও কাফের ঘোষণার দাবীতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ।

    বার্তাপ্রেরক: মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান | ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৬:৫৬ অপরাহ্ণ

    পঞ্চগড়ে কাদিয়ানীদের ইজতেমা বন্ধ ও কাফের ঘোষণার দাবীতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিক্ষোভ।

    পঞ্চগড়ে কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের কথিত ইজতেমা বন্ধ, রেল মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনের অপসারণ ও কাদিয়ানীদের সরকারিভাবে অমুসলিম ঘোষণার দাবীতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কওমী ইসলামী ছাত্র ঐক্য পরিষদের উদ্দ্যেগে আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল শহরের টেংকেরপাড়স্থ হতে বের হয়ে সারা শহর প্রদক্ষিণ শেষে স্থানীয় কাউতুলি মোড়ে মুফতি আব্দুর রহীম কাশেমীর সভাপতিত্বে ও মাওলানা বোরহান উদ্দিন আল মতিনের পরিচালনায় এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

    এতে বক্তব্য রাখেন মুফতি আব্দুল হক,মাওলানা আব্দুল হাফিজ, মুফতি মাজহারুল হক কাশেমী,মাওলানা আনোয়ার বিন মুসলিম, হাজ্বী ইয়াকুব আমিনী,মুফতী মোহাম্মদ এনামুল হাসান, মুফতী জাকারিয়া খান,মাওলানা ইউসুফ ভূঁইয়া হাফেজ মাসউদুর রহমান প্রমুখ।

    বক্তব্যে উলামায়ে কেরাম বলেন,বিশ্বের সকল মুসলিম দেশ গুলোতে কাদিয়ানী সম্প্রদায় কাফের সিসেব স্বীকৃত। তাই মুসলিম অধ্যুষিত বাংলাদেশে ও সকল উলামায়ে কেরামদের ঐক্যমত্যের ফতোয়ায় কাদিয়ানী সম্প্রদায় কাফের। এদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার আন্দোলন বহুদিনের।কিন্তু তাদেরকে আজ পর্যন্ত রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা না করায় সরলমনা মুসলমান তাদের ধোকায় পড়ে দিনদিন ঈমান হারা হচ্ছে।
    তারা পঞ্চগড়ে ইজতেমার নামে তাদের ষড়যন্ত্রের মাত্রা প্রকাশ করার দুঃসাহস দেখাচ্ছে যা এদেশের নবী প্রেমিক তৌহিদী জনতাকখনো ই বরদাশত করবেনা।



    বক্তাগণ অবিলম্বে কাদিয়ানীদের কথিত ইজতেমা বন্ধে সরকারে হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন অন্যথায় এরজন্য কোন অস্থিতিশীল পরিবেশ দেশে সৃষ্টি হলে এর সকল দায়ভার কাদিয়ানীদের নিতে হবে।
    বক্তাগণ কাদিয়ানীদের পক্ষাবলম্বন করায় রেল মন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজনকে কাদিয়ানীদের দোসর আখ্যায়িত করে অবিলম্বে তার অপসারণ দাবী করেন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম