• শিরোনাম


    নির্বাচন ও তার পরবর্তী পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিশ্ব-ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ার কণ্ঠ

    | ১৭ নভেম্বর ২০১৮ | ৬:৫৮ পূর্বাহ্ণ

    নির্বাচন ও তার পরবর্তী পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিশ্ব-ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে।  আওয়ার কণ্ঠ

    তাবলিগ জামাতের চলমান সংকট নিরসনের লক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে মন্ত্রী আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কথা বিবেচনা করে আগামী বিশ্ব ইজতেমার তারিখ চূড়ান্ত না করার আহ্বান জানান উপস্থিত তাবলিগের মুরব্বিদের প্রতি।

    অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, নির্বাচন যথাসময়ে হলে ইজতেমা করা যাবে। না হলে হয়তো ইজতেমা পেছানো লাগতে পারে। নির্বাচনের তারিখ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন নির্বাচন কমিশন। তাই ইজতেমার তারিখ চূড়ান্ত না করাই ভালো।



    স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ওই বৈঠকের পর বৈঠকে উপস্থিত ধর্মসচিব আনিছুর রহমান পূর্বঘোষিত ইজতেমার তারিখ চূড়ান্ত হিসেবে গ্রহণ ও ঘোষণা না করার এই সিদ্ধান্তের আলোকে বিভিন্ন গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেন, ‘আগামী বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত করা হয়েছে’।

    ধর্মসচিবের বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে দেশের অধিকাংশ গণমাধ্যম এ বিষয়ে খবরের শিরোনাম করে- ‘বিশ্ব ইজতেমা স্থগিত’।

    কিন্তু এমন সংবাদে তাবলিগ জামাত সংশ্লিষ্ট অনেকের মধ্যেই শংকা জেগে ওঠে যে, ইজতেমা ‘বন্ধ’ করে দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া প্রকাশ পেতে থাকে। শুরু হয় গুজব ও পাল্টা গুজব। কেউ কেউ এতে বাতাস দিয়ে ফায়দা লুটার চেষ্টা করেন।

    খবরের মূল ব্যাপারটি হলো, ইজতেমার পূর্বঘোষিত তারিখটি এখন থেকে আর চূড়ান্ত হিসেবে ঘোষণা না করে অনির্ধারিত রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সম্ভব হলে পূর্বঘোষিত তারিখেই হবে, সম্ভব না হলে তারিখ পিছিয়ে দেওয়া হবে। নির্বাচন অনুষ্ঠান, নির্বাচন পরবর্তী সময়ের পরিস্থিতি দেখেই সে সিদ্ধান্ত পরে চূড়ান্ত করা হবে।

    পূর্বঘোষিত ইজতেমার তারিখটিকে চূড়ান্ত না করা এবং নতুন কোনো তারিখে ইজতেমা অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনার সংবাদটিই ‘ইজতেমা স্থগিত’ শিরোনামে পরিবেশন করা হয়েছে।

    কোনো অনুষ্ঠানের চূড়ান্ত তারিখ যখন পরিবর্তন করা হয় এবং নতুন কোনো তারিখ ধার্য না করা হয়, তখন গণমাধ্যমের সংক্ষিপ্ত ও সহজ উপস্থাপন-ভঙ্গি হয়ে যায় ‘স্থগিত’। এতে ওই অনুষ্ঠানটি আদৌ না হওয়া কিংবা বন্ধ করে দেওয়ার অর্থ নেওয়ার সুযোগ থাকে না।

    তাবলিগ জামাতের চলমান সংকটের এই সময়টিতে একটি ষড়যন্ত্রকারী মহল ছাড়া তাবলিগ জামাতের প্রায় সকল সাথী, উলামায়ে কেরাম এবং প্রশাসনের সবারই চাওয়া- বিশ্ব ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে, ইনশাআল্লাহ! সেটি পূর্বঘোষিত যথাসময়েও হতে পারে, আবার তারিখ পিছিয়েও হতে পারে। এ নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর কিছু নেই।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম