• শিরোনাম


    নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশরোডের জনদূর্ভোগ থেকে পরিত্রাণ পেতে চায় সর্বসাধারণ।

    রিপোর্ট: হেবজুল বাহার, স্টাফ রিপোর্টার আওয়ার কণ্ঠ | ৩১ জুলাই ২০১৯ | ১১:৪৫ পূর্বাহ্ণ

    নবীনগর পূর্বাঞ্চলের মহেশরোডের জনদূর্ভোগ থেকে পরিত্রাণ পেতে চায় সর্বসাধারণ।

    নবীনগর উপজেলার বিটঘর ইউনিয়নের বিটঘর বাজার থেকে মহেশগেইট এবং কাইতলা হতে শিবপুর পর্যন্ত সড়ক চলাচলের সম্পূর্ন অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে বেহাল দশায় থাকায় প্রায় ১৫টি গ্রামের মানুষের দৈনন্দিন চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

    দীর্ঘদিনের চলমান এ ভোগান্তি নিরসনে এলকাবাসী দাবী জানিয়ে আসলেও উদাসীন কর্তৃপক্ষ। এমন দাবী ভূক্তভোগী মানুষের। দানবীর স্বর্গীয় মহেশ চন্দ্র ভট্টার্য্য পটভূমির গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তার বেহাল দশা। অবস্থাদৃষ্টে মনে হচ্ছে এটা দেখার যেন কেউ নেই।




    সরজমিনে দেখা যায়, বিটঘর বাজার হতে মহেশগেইট পর্যন্ত, কাইতলা-বিটঘর-শিবপুরের মহেশরোড দিয়ে গোয়ালি, কাইতলা, বিটঘর, দূরুইল, মহেশপুর, গুড়িগ্রাম, টিয়ারা, ভদ্রগাছা, সিনামাছি, ভাতুরিয়া, নারুই, নোয়াগাও, এমনকি পার্শ্ববর্তী কসবা উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের মানুষ, একমাত্র এই রোডে যাতায়াত করে থাকে।

    সড়কটির বিভিন্ন অংশে মাটি ক্ষয়ে সৃস্টি হয়েছে অসংখ্য খানা খন্দকের। এ সড়কের বিটঘর বাজার হতে মহেশগেইট পাকাকরণ ছিল। বর্তমানে তার চিহ্ন পর্যন্ত নেই।

    সামান্য বৃষ্টিতে কাঁদা পানিতে একাকার হয়ে সম্পূর্ন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে সড়ক। একই অবস্থা কাইলা-বিটঘর- শিবপুর মহেশরোড।

    স্থানীয়রা জানায়, সংস্কার কাজ না হওয়ায় চলাচলের উপযোগীতা হারানোসহ ঝূঁকিপূর্ন হয়ে পড়েছে এ সড়ক। জনসাধারণের দূর্ভোগ লাঘবে অতিদ্রুত সংস্কার করা হোক। কবে প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে তাও জানা নেই? অন্তত চলাচলের ব্যবস্হা করে দেওয়া হোক!

    বিটঘর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড মেম্বার মেহেদী জাফর দস্তগীর জানান, সারাদেশে উন্নয়ন হচ্ছে, তাহলে আমরা কেন অবহেলিত থাকব? কর্তৃপক্ষের যেন অন্তত প্রকল্পটি অতিদ্রুত বাস্তবায়িত করার সুহৃদয় উদিত হয়। আর যদি প্রকল্প বাস্তবায়নে কার্যক্রম বিলম্বীত হয়, মহেশরোডের সংস্কারের মাধ্যমে জনদূর্ভোগ দূরীকরণ করার দাবী জানাচ্ছি।

    বিটঘর ইউপি চেয়ারম্যান হাজ্বী আবুল হোসেন জানান, ” কুড়িঘর টু বিটঘরহাট ” প্রকল্প মহেশরোড প্রশস্তকরণসহ এসব সড়ক সংস্কারের জন্য ত্রিশ কুটি টাকা ব্যয় সাপেক্ষে এই প্রকল্প একনেকে বিল পাশ হয়েছে। এসব সড়ক সংস্কারের জন্য সংশ্লিস্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আশা করছি খুব শীঘ্রই কাজ শুরু হবে।

    স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি)’র নবীনগর উপজেলার প্রকৌশলী নুরুল ইসলাম জানান – দরপত্র আহবান করা হয়েছে, দরপত্রের কার্যক্রম শেষ হলেই আমরা এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করতে পারবো।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম