• শিরোনাম


    নবীনগরে এসিডদগ্ধ নাছিমার পাসে দাঁড়ালেন ইউএনও

    রিপোর্ট নিজস্ব প্রতিবেদক: | ০৪ নভেম্বর ২০১৯ | ৪:১৩ অপরাহ্ণ

    নবীনগরে এসিডদগ্ধ নাছিমার পাসে দাঁড়ালেন ইউএনও

    আফরোজা আক্তার নাছিমা।বয়স এখন চল্লিশের কোঠায় ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার নবীনগর পশ্চিমাঞ্চলের সলিমগঞ্জ ইউনিয়নের বাড়াইল গ্রামের আব্দুল হান্নান মিয়ার কন্যা।আজ থেকে প্রায় দু’ই যুগ আগে সেই ১৯৯৪ সালে।স্কুলছাত্রী নাছিমার জীবনে নেমে আসে এক ভয়াবহ কালরাত।

    নাছিমা তখন অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী।সে সময় স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে প্রায়ই পথরোধ করে প্রেমের প্রস্তাব দিতো প্রতিবেশি একই গ্রামের ছোবহান মিয়ার বখাটে ছেলে বাবুল মিয়া। কিন্তুু বরাবরের মতো প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় নাছিমা।



    আর এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাবুল মিয়া তার দু’ই বন্ধুকে নিয়ে এক রাতে ঘুমন্ত নাছিমার দেহে এসিড ছুঁড়ে মারে। এতে নাছিমার সম্পূর্ণ মুখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশ ঝলসে যায়। বিভিষিকাময় সে কালোরাত্রিতে মুহুর্তেই চুর্নবিচুর্ণ হয়ে যায় নাছিমার সব স্বপ্ন,তছনছ হয়ে যায় সমন্ত পৃথিবী।

    তখন নাছিমার বাবার দায়ের করা মামলায় বখাটে বাবুল ও তার দুই বন্ধু দুলু ও হাশেমের যাবজ্জীবন সাজা হয়। এরপর থেকে দুই যুগেরও বেশী সময় ধরে সেলাই কাজ করে এক সংগ্রামী জীবন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছিলেন নাছিমা।

    পরবর্তীতে এসিডদগ্ধ নাছিমার জীবনযুদ্ধের কথা জানতে পারেন নবীনগরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম। তিনি তা জানার পর যুব উন্নয়ন দপ্তরের কোন এক প্রকল্প থেকে নাছিমাকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে ঋণ সহায়তা দেয়ার জন্য উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ইসলাম আল হাজিবকে নির্দেশ প্রদান করেন।

    উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশের পরে গত শুক্রবার অনুষ্ঠিতব্য যুব দিবসের এক অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নাছিমার হাতে ৬০ হাজার টাকার চেক তুলে দেন।
    এ ব্যাপারে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা ইসলাম আল হাজিব বলেন,‘এসিডদগ্ধ এমন একজন অসহায় নারীকে ঋণটি দিতে পেরে আমরা খুবই খুশী। ১০% সরল সুদে মাত্র ২৪ কিস্তিতে ক্রমহ্রাসমান পদ্ধতিতে সহজেই এই ঋণ নিয়মিত পরিশোধ করে ভবিষ্যতেও তিনি আরও বড় ঋণ নিতে পারবেন। ’

    উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ মাসুম বলেন, ‘বিষয়টি অবগত হয়ে এসিডদগ্ধ এক নারীকে ঋণের ব্যবস্থা করে দিতে পেরে আমিও আপ্লুত, আনন্দিত। আমি নিজে এই ঋণের জামিনদার হয়েছি। আশা করি, নাছিমার জীবন যুদ্ধের কিছুটা এখন উপসম হবে। ’

    এসিডদগ্ধ আফরোজা আক্তার নাছিমা বলেন,‘ঋণের এই টাকা দিয়ে আমি এখন নতুন সেলাই মেশিন কিনে নিজেও সাবলম্বী হবো এবং আমার মতো গ্রামের আরও কয়েকজন অসহায় নারীকে সাবলম্বী করে তোলার প্রয়াস নেব।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম