• শিরোনাম


    দিল্লিতে মানবাধিকার রক্ষায় ট্রাম্প ব্যর্থ নেতৃত্বের পরিচয় দিয়েছেন: বার্নি স্যান্ডার্স

    দেলোয়ার হুসাইন, নিজস্ব প্রতিবেদক | ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১:৪৬ পূর্বাহ্ণ

    দিল্লিতে মানবাধিকার রক্ষায় ট্রাম্প ব্যর্থ নেতৃত্বের পরিচয় দিয়েছেন: বার্নি স্যান্ডার্স

    ট্রাম্পের কঠোর সমালোচনা করে সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স বলেছেন, ভারত সফরকালে দিল্লির সহিংসতা নিয়ে করা বক্তব্য ট্রাম্পকে ‘ব্যর্থ নেতা’ হিসেবে প্রমাণ করেছে।

    ভারতে মানবিক সঙ্কটকালীন মুহূর্তে দাঙ্গার প্রসঙ্গ এড়িয়ে যাওয়ায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের তীব্র সমালোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ভারমন্ট অঙ্গরাজ্যের বর্ষীয়ান ডেমোক্র্যাট সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স। ভারত সফরে দেওয়া ট্রাম্পের বক্তব্যকে ‘ব্যর্থ নেতৃত্বের উদাহরণ’ বলেও মন্তব্য করেন তিনি। ভক্ত ও সমর্থকদের কাছে তিনি সংক্ষেপে বার্নি নামেই পরিচিত।



    এর আগে ভারত সফরকালে সংবাদ কর্মীরা ট্রাম্পকে দিল্লিতে চলমান দাঙ্গা নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন। এসময় ট্রাম্প বলেন, বিচ্ছিন্ন কিছু হামলার কথা আমি শুনেছি। তবে আমি এই ব্যাপারটি নিয়ে তার (নরেন্দ্র মোদি) সঙ্গে আলোচনা করিনি। এটা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।

    ধর্মীয় স্বাধীনতা রক্ষায় মোদি কঠোর পরিশ্রম করছেন বলেও দাবি করেন তিনি। এসময় তিনি মোদির ওপর তার দৃঢ় আস্থার কথাও জানান।

    এসব প্রেক্ষিতেই বৃহস্পতিবার বিক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ভারমন্ট সিনেটর।

    বার্নি বলেন, ভারতে ২০ কোটি মুসলমানের বসবাস। আর ট্রাম্প দিল্লিতে অবস্থানকালেই সেখানে মুসলিম বিদ্বেষী দাঙ্গাবাজেরা কমপক্ষে ২৭ জনকে হত্যা করেছে। আহত করেছে আরও বহু মানুষকে। এই অবস্থায় ট্রাম্প কিভাবে বলতে পারেন এটা ‘ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়’! এই বক্তব্য মানবাধিকার রক্ষায় নেতা হিসেবে ট্রাম্পের ব্যর্থতাকেই বিশ্বের সামনে তুলে ধরে ।

    বার্নি আগামী নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট দলের একজন শক্তিশালী প্রার্থী। তবে বার্নির আগেই ট্রাম্পের দিল্লি দাঙ্গা নিয়ে দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন তার দলের অপর শক্তিশালী প্রার্থী এলিজাবেথ ওয়ারেন।
    এলিজাবেথ ওয়ারেন

    এই নারী সিনেটর বলেন, ভারতের মতো বৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তবে ধর্মীয় এবং বাক স্বাধীনতা নিয়ে আমরা যেসব মূল্যবোধে বিশ্বাস করি সেগুলো স্পষ্ট ভাষায় বলতে হবে। শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদকারিদের বিরুদ্ধে এমন সহিংসতা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না।

    ডেমোক্র্যাট দলের অন্যান্য আইনপ্রণেতারাও তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করেন। ‘ভারতে ধর্মীয় হিংসা এবং উগ্রবাদের উত্থানকে ভয়াবহ পরিস্থিতি’ বলে উল্লেখ করেছেন কংগ্রেস সদস্য প্রমীলা জয়পাল।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম