• শিরোনাম


    দিপালীর চাঁদ (ছোট গল্প): এম.ডি সালাহ উদ্দিন

    লেখক : এম. ডি. সালাহ উদ্দিন। | ১৪ মার্চ ২০১৯ | ৫:১২ পূর্বাহ্ণ

    দিপালীর চাঁদ (ছোট গল্প):         এম.ডি সালাহ উদ্দিন

    ভাদ্রের আকাশে আজ পূর্ণিমার চাঁদ, সূর্য অস্তমিত হওয়ার পরক্ষনেই চাঁদের আলো ছড়িয়ে পড়েছে ধরাকূলে, সন্ধা ছাড়িয়ে সময় যত রাতের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ঝলমলে চাঁদের আলো ততই প্রখর হয়ে উঠছে ।
    ছোটকাল থেকেই চাঁদের আলোর কাছে দিপালী বেশ দুর্বল, জীবনে অনেক পূর্ণিমার রাত সে একাই বাহিরে কাটিয়ে দিয়েছে, যা আজ পর্যন্ত তার পরিবারের অনেকেই জানে না।
    সংসারের দ্বায়িত্ব কর্তব্যের চাপে পড়ে সে ভুলে গিয়েছে অতীত জীবনের অনেক কিছুই, আজ কেন জানি চাঁদের আলো তার হৃদয়ে দোলা দিয়ে বসলো।
    দিপালীর কাছে মনে হচ্ছে প্রতিটি পূর্ণিমার চাঁদ, তারই চাঁদ, তারই জন্য বরাদ্ধ দেয়া সম্পদ, একে ভুলে যাওয়াটা তার একটা বড় ভুল, আজ সে ভুলটা সে করতে পারে না।
    রাতের খাবার দাবার শেষে দিপুর কাছে তার বায়না, আজ সারারাত চাঁদের আলোয় গা ভাসাতে চায় সে, সারারাত ছাদের উপর চাঁদের আলোয় ভেসে বেড়াবে তারা।
    দিপুর এ সব ব্যপারে খুব আগ্রহ নেই, সারাদিন অফিসের কাটুনি শেষে রাতে তার লম্বা একটা ঘুম দরকার, তার কাছে মনে হয়, চাঁদ, নদী, বটগাছ, বিস্তির্ণ মাঠ এ সব হচ্ছে কবি সাহিত্যিক বা লেখা লেখি ব্যবসায় জড়িত ব্যবসায়ীদের পণ্য। কর্পোরেটদের কাছে এ গুলো ক্ষণিকের বিনোদন সামগ্রী মাত্র, আর তাদের মতো মধ্যবিত্ত চাকুরীজিবীদের জীবনে এ গুলো বেমানান, দরিদ্ররা তো ওখান থেকেই জীবন কুড়ায়।
    দিপু রাজী নয়, কিন্তু দিপালীর চাওয়াকে অবহেলা করা মানে, মানে হচ্ছে—।
    কে কতটুকু মানবেন জানি না, তবে বাস্তবতা এটাই যে-এ সময়ে আমাদের পারিবারিক জীবনের অবস্থা একটু জটিলই বটে, নারী অধিকারের চর্চার নামে সভা, সেমিনার, বিবৃতি, বক্তব্য যতই দেয়া হচ্ছে না কেন ?
    এ সময়ে নারীরাই কিন্তু আমাদের পরিবার গুলোতে কর্তৃত্ব সম্পাদনে অগ্রগামী, স্বামীরা কেবল নাঁচের পুতুল।
    অগত্যা দুজন চলে গেলো ছাদে–
    দিপু একটা কর্পোরেট অফিসের একজন সাধারন কেরানী মাত্র, একজন সৎ ও আদর্শবান পিতার সন্তান, সততা তার জীবনে সাচ্ছন্দ ও বিলাশী জীবনের প্রতিপক্ষ, তবু সে প্রতিপক্ষকে সঙ্গী করেই পথ চলে, বিলাশ বহুল জীবনের সুবিধা তার চার পাশে পায়চারী করে, বন্ধু হিসেবে পাশে বসার সুযোগ সে দেয় না, এটাই তার বাবার দেয়া শিক্ষা ও আদর্শের তালিম।
    এই শহরে একটা ভাড়া বাড়িতেই থাকা তাদের, যে টুকু বেতন পায় তা দিয়ে নিজেরা চলে, গ্রামের বাড়িতে মা বাবার জন্য কিছু পাঠায়, চাকুরী জীবনে সততার জন্য অনেক সময় অনেক প্রতিকূলতার শিকার হতে হয় তাকে, সে বুঝে – সততা এ সময়ে গলার অলংকার নয়, গলার কাঁটা, মাঝে মাঝে নিজেকে শান্তনা দেয়ার জন্য গাঁদা গাঁদা থু থু ফেলে সমাজের মূখে, পা উচিয়ে মাটিতে লাতি মেরে বুঝাতে চায়, লাতি মারি তোর সভ্য সমাজের পাছায়।
    জীবনের দায়ে এই প্রতিকূলতাকে ঠেলে ঠেলেই যে চলতে হয় তাকে, কিছুই যে করার নেই তার, প্রতিটি দিন যাচ্ছে আর সমাজের প্রতি তার বিতৃষ্ণার বোঝাটা ভারী হচ্ছে, জীবনের উচ্ছল্যতা গুলো চাপা পড়ে যাচ্ছে বিষাদের নিচে, বিষয় গুলো দিপালী বুঝতে পারে না, দিপু সহজে দিপালীকে বুঝতে দেয় না।
    দিপু আর দিপালীর ছাদের উপর চাঁদের আলোয় ভেসে বেড়ানোর এটা দ্বিতীয় রাত, এই তো বৎসর আগেই তাদের দাম্পত্য জীবনের শুরু, এর আগে বিয়ের প্রথম সপ্তাহের কোন এক পূর্ণিমার রাতে চাঁদের আলোয় তারা গা ভাসিয়ে ছিলো, সে রাতে সারা রাত বেশ মজা করেই কাটিয়েছিলো দু জন, এর পর থেকেই সংসার নামের বোঝার চাপে চাপা পড়েছিলো সব কিছু, দিপালীর ভাবনা ছিলো ঠিক সে রকমেরই আরো একটি রাত তারা উপভোগ করবে, কিন্তু দিপুর প্রাথমিক অনিহায় তার সে আশায় বেশ ব্যথ্যয় ঘটেছে।
    ছাদে ঠিক দু জন গিয়েছে বটে, কিন্তু দিপু কেমন জানি একটু অন্য মনস্ক, দিপালী তাকে নানান ঢংয়ে জড়াতে চায়, দিপু শুধু দায় সাড়ার পরিমান সারা দেয়, দিপালী বিরক্তবোধ করে, নানা ভাবে প্রশ্ন করে, জানতে চায় অনেক কিছুই, দিপালীর সব প্রশ্ন এড়িয়ে যায় দিপু, হাল ছাড়েনা দিপালী, জানতে হবে তাকে কি হয়েছে দিপুর ? অফিস থেকে ফেরার সময় অন্য দিনের মতো চঞ্চল ও ফুরফুরে ছিলো না দিপুর মনটা, দিপালী তখন দেখেছিলো কি এক গোমট চিন্তার চাপ ছিলো দিপুর চেহারায়, দিপালীর ভাবনা ছিলো, একটু রোমান্টিক মন্তনে কিছুক্ষন জড়িয়ে রাখলে হয়তো স্বাভাবিক হয়ে যাবে, কিন্তু না সে রকমটা হয়ে উঠেনি, কিছুই সে ঠিক বুঝে উঠতে পারছে না, কি কারন থেকে দিপু এমন হতে পারে ?
    প্রশ্নের পর প্রশ্নের ঝড় তুলতে লাগলো দিপালী, কত আর এড়িয়ে যাবে দিপু ?
    শেষ পর্যন্ত দিপালীকে বলতে বাধ্য হলো সে, অফিসে কোন এক ক্লাইন্টের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা ঘুষ নেয়ার দায় চাপানো হয়েছে তার গাড়ে, যার বিষয়ে কোন কিছুই সে জানে না।

    লেখক: অভিনয় শিল্পী,কবি, বাস্তববাদী লেখক ও ব্যবসায়ী।



    Facebook Comments

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম