• শিরোনাম


    ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া রোধে সলিমগঞ্জ কলেজে জনসচেতনতা মূলক র‍্যালী অনুষ্ঠিত।

    রিপোর্ট: মো.আক্তারুজ্জামান, নবীনগর থেকে | ০২ আগস্ট ২০১৯ | ১২:৩৫ অপরাহ্ণ

    ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া রোধে সলিমগঞ্জ কলেজে জনসচেতনতা মূলক র‍্যালী অনুষ্ঠিত।

    ডেঙ্গু-চিকুনগুনিয়া রোধে সলিমগঞ্জ বাসীকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়ে সলিমগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইউনুছ এর নেতৃত্বে ও সলিমগঞ্জ কলেজের উপাধ্যক্ষ গোলাম মাওলা খান দীপুর পরিচালনা ও নির্দেশনায় নিজ আঙ্গিনা পরিস্কার রাখি, সবাই মিলে সুস্থ থাকি’। ‘আসুন আমরা সবাই মিলে পরিবেশ রাখি পরিস্কার, বন্ধ করি মশার বিস্তার’।


    ‘ডেঙ্গু মুক্ত দেশ চাই, পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার বিকল্প নাই’ইত্যাদি শ্লোগানকে সামনে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার সলিমগঞ্জ কলেজে ডেঙ্গু প্রতিরোধে এক র‍্যালী ও জনসচেতনতা মুলক কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। বৃহস্পতিবার দুপুরে কলেজের শিক্ষক মন্ডলী, ছাত্র-ছাত্রী অংশগ্রহণে এই জনসচেতনতা মুলক র‍্যালী অনুষ্ঠিত হয়।



    এসময় শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে সলিমগঞ্জ কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইউনুছ বলেন, বাড়ি বা আশপাশে জমে থাকা স্বচ্ছ পানিতে ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া রোগের বাহক এডিস মশা বংশ বিস্তার করে। তাই প্রতিটি নাগরিককে এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে। ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া এক বার্তার ওপর গুরুত্বারোপ করে অধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইউনুছ আরো বলেন, ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া ভাইরাসজনিত জ্বর, যা এডিস মশার কামড়ে ছড়ায়। সাধারণ চিকিৎসাতেই ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া জ্বর সেরে যায়, তবে হেমোরেজিক ডেঙ্গু জ্বর মারাত্মক হতে পারে। এডিস মশার বংশ বিস্তার প্রতিরোধ করতে পারলে ডেঙ্গু ও হেমোরেজিক ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ করা সম্ভব। অপ্রয়োজনীয় অথবা পরিত্যক্ত পানির পাত্র ধ্বংস অথবা উল্টে রাখতে হবে, যাতে পানি না জমে। ঘুমানোর সময় অবশ্যই মশারি ব্যবহার করতে হবে। সম্ভব হলে জানালা এবং দরজায় মশা প্রতিরোধক নেট লাগাতে হবে। বর্ষার সময় এ রোগের প্রকোপ বাড়তে পারে। তাই এই সময় অধিক সতর্ক থাকা প্রয়োজন।

    সলিমগঞ্জ কলেজের উপাধ্যক্ষ গোলাম মাওলা খান (দীপু),বলেন, সলিমগঞ্জ এলাকায় এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু জ্বর আক্রান্ত রোগী পাওয়া যায়নি। ডেঙ্গু প্রতিরোধে পূর্ব প্রস্তুতি নিতে হবে। এ বছর দ্রুত এর প্রকোপ কমাতে হবে। আগামীতে যাতে এভাবে ছড়িয়ে না পরে যেজন্য আগ থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে হবে। তিনি আরো বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তন ও বর্ষা মৌসুমে সাধারণ মশা ও এডিস মশার প্রজনন বৃদ্ধি পেয়ে থাকে। যার মাধ্যমে ডেঙ্গু জ্বর ও চিকুনগুনিয়া রোগ ছড়ায়। এ বিষয়ে আমাদের সবাইকে সর্তক থাকতে হবে। ড্রেন, ডোবানালা, ঝোঁঁপঝাড়, জঙ্গল পরিস্কার, মশা নিয়ন্ত্রণে কীটনাশক স্প্রে ইত্যাদি কাজ অব্যাহত রেখেছে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতার বিকল্প নেই। প্রত্যেককে নিজ নিজ জায়গা পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে।

    কলেজ এবং তৎসংলগ্ন এলাকায় পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ অভিযানে জেলা পরিষদ সদস্য অধ্যাপক নুরুন্নাহার বেগম, সলিমগঞ্জ সলিমগঞ্জ কলেজের সহকারি অধ্যাপক মো.বশিরুজ্জামান,কলেজের শিক্ষক মো.আবু হানিফ,সেমাজ সেবক ও কলেজের সাবেক ছাত্র মো.নাজিম উদ্দিন,ছাত্রলীগ নেতা মো.জাহিদুল ইসলাম জাহিদ,মো.একরাম মোল্লা, ছাত্রলীগ নেতা আমিনুল ইসলাম আমির, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, শিক্ষক মন্ডলী, ছাত্র-ছাত্রীসহ এ অভিযানে অংশগ্রহণ করেন।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম