• শিরোনাম


    জাফলং পিয়াইন নদীতে চাঁদাবাজদের নামের তালিকার শীর্ষ ৪জন

    এম এ.রহিম, গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রতিনিধি সিলেট | ২৭ আগস্ট ২০২০ | ৩:৫৬ অপরাহ্ণ

    জাফলং পিয়াইন নদীতে চাঁদাবাজদের নামের তালিকার শীর্ষ ৪জন

    সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলাধীন জাফলং পিয়াইন নদী থেকে দৈনিক লক্ষ লক্ষ টাকা চাঁদাবাজি হয়।
    এই চাঁদাবাজ চক্রের মাস্টারপ্ল্যানে রয়েছেন ৪ ব্যক্তির নাম,
    ১/সাংবাদিকতার আড়াল থেকে চাঁদাবাজদের নেত্রীত্ব দিচ্ছেন ইমরান আহমেদ সুমন-ওরফে (জামাই সুমন), তিনি jaflong news 24.com ও জাফলং পিয়াইন বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক।
    ২/সুমন সাহেবের বন্ধু আলাউদ্দিন।
    ৩/আলাউদ্দিন সাহেবের ডানহাত ফিরুজ মিয়া।
    ৪/একই মহলের প্লানিং মাস্টার ফয়জুল ইসলাম ওরফে(বিশ্বনাথি ফয়জুল)নামক এই চক্র।
    জাফলং পিয়াইন নদী থেকে উত্তোলন হয় বালু, আর বালু থেকেই বেরিয়ে আসে লক্ষ লক্ষ টাকার গন্ধ।
    এঁদের ধান্দা পরিবেশ নষ্ট হলে আমাদের ক্ষতি কি?
    দিন শেষে আমরাই তো টাকা পাচ্ছি।
    ওরা দিনের বেলায় লোক দিয়ে বালু উত্তোলন করায় এবং রাতের আধারে ড্রেজার দ্বারা।

    দৈনিক ৩/৪শ নৌকা থেকে তারা টাকা উত্তোলন করে থাকে, নৌকা প্রতি ৬/৭শত করে টাকা উত্তোলন করে আর ড্রেজারের বেলায় ভিন্ন ভিন্ন অজুহাত ব্যবহার করে টাকা উত্তোলন করে,কখনো প্রশাসনের নাম বিক্রি আবার কখনো মোবাইকোর্ট-অভিযানের মিথ্যা ভয় দেখিয়ে খেটেখাওয়া দিনমজুরদের কাছ থেকে চাদা আদায় করে তারা। শ্রমিকরা টাকা না দিলে মারপিটও করে এই চক্র।
    চক্রটি প্রতিদিন বেলা শেষে জাফলং মামার বাজার সংলগ্ন মেলার মাঠে সাংবাদিক সুমন সাহেবের বাসায় চাঁদাবাজির সমস্ত টাকার হিসাব বসায়।
    এখান থেকে ভাগাভাগি করে বিভিন্ন মহলে সালামিও পাঠায় তারা।



    স্হানীয় সাংবাদিক,তথা প্রেসক্লাবের সদস্যবৃন্দ এদের নিউজ না ধরলেও প্রেসক্লাবের বাহিরে যারা সাংবাদিকতা করছেন তারা কিন্তুু প্রতিনিয়ত তাদের বিরুদ্ধে কলম ধরে থাকেন।
    উল্লেখ্য যে, সম্পাদক ও প্রকাশক জামাই সুমন গোয়াইনঘাট প্রেসক্লাবের সহসভাপতির দায়ীত্বে রয়েছেন।

    আমরা যারা এই চক্রটি ধমন করা ও দিনমজুর খেটেখাওয়া মানুষের উপর নির্যাতন বন্ধ সহ্ তাদের ন্যায্য অধিকার আদায় করার লক্ষে কাজ করছি।
    তখন তাদের বিরুদ্ধে কলম ধরা মাত্রই আমাদের মোবাইলে তাদের লালিত-পোষীত সন্ত্রাস বাহিনীর মোবাইল থেকে আমাদের বিভিন্ন প্রকার হুমকি দেয়া হয় প্রানে মারার, তাদের প্রতিটা হুমকি বিভিন্ন সংবাদ কর্মীদের মোবাইলে রেকর্ড করা হয়েছে।

    এবং কেউ কেউ বিনয়ের সাথে অনুরোধ করেও বলেন দেখ ভাই!নিউজটা ডিলেট করে দাও, অন্যের ক্ষতি করে তুমার লাভ কি? ওরা যে টাকা চাঁদা নেয় তার ভাগ অনেক জায়গায় যায়।

    স্হানীয়রা বলেন,,যে মানুষ গুলো দিন আনে দিন খায়
    এমন মানুষের পাশে দাঁড়াবে এমন কোন ব্যক্তি কি নাই আমাদের দেশে?
    অবশেষে তারা বাংলাদেশ সরকারের বৈদেশিক প্রতিমন্ত্রী জননেতা জনাব ইমরান আহমেদ সহ্ প্রশানের উর্ধতন কর্মকর্তাদের প্রতি আশু হস্তকেপ কামনা করছেন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম