• শিরোনাম


    জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে হোম কোয়ারিন্টাইনে নোয়াখালীর -৪ এর সাংসদ একরামুল করিম চৌধুরী

    মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, জেলা প্রতিনিধি,নোয়াখালী। | ২১ মার্চ ২০২০ | ১:১৫ পূর্বাহ্ণ

    জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে হোম কোয়ারিন্টাইনে নোয়াখালীর -৪ এর সাংসদ একরামুল করিম চৌধুরী

    নোয়াখালী -৪ সদর-সুবর্ণচর সংসদীয় আসনের ৩ তিন বারের বিপুল ভোটে বিজয়ী এম,পি একরামুল করিম চৌধুরী সহ নোয়াখালীতে ৭৬ ব্যাক্তি নিজ হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন। এর মধ্যে বিদেশ থেকে আশা নাগরিক বেশী।এই বিষয়ে নিশ্চিত করেন নোয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. মোমিনুর রহমান ।তিনি জানান, নোয়াখালী-৪ ,সদর-সুবর্ণচর আসনের সংসদ সদস্য এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নোয়াখালী জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী এম,পি স্বেচ্ছায় ১৮ই মার্চ রাতে নিজে সোস্যাল মিডিয়াতে লাইভে এসে বর্তমানে কোরোনা ভাইরাস বিষয়ে নোয়াখালীর জনগন ও দেশবাসীর প্রতি অনুরোধ করেন,গুজবে কান দিয়ে ও আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হোন কোরোনা ভাইরাস নিয়ে।

    বর্জ্যন করুন,গণজামায়েত,ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানসহ সকল সামাজিক অনুষ্ঠান,অধিক সমাবেশ, প্রয়োজনীয় কাজ না থাকলে বাহিরে,যে কোন স্হানে আড্ডা পরিহার করুন।নিজের ও নোয়াখালীবাসীর নিরাপত্তা স্বার্থে বাড়িতে অবস্হান করুন ।এম,পি একরামুল করিম চৌধুরী আরো বলেন কোরোনা ভাইরাস উদ্দেশ্য,মিথ্যা অযুহাত দিয়ে যারা নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মজুদ করে,বাজানে কৃতিম সংকট সৃষ্টি করবেন,তাদের বিরোদ্ধে ব্যাবস্হা গ্রহন করা হবে।গুজবে কান না দিয়ে বেশী পণ্যাদি ক্রয় করার জন্য নিষেধ করেন।মোনাফালোভী ব্যাবসায়ীর প্রতারণা থেকে সাবধান হতে নির্দেশ এম,পি নোয়াখালীবাসী কে।যারা কোরোনা ভাইরাস অজুহাতে নিত্যদিনের জিনিষপত্র দাম বৃদ্ধির ষড়যন্ত্র করবেন,তাদের বিরোদ্ধে কঠিন শাস্তি এবং দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী সাজার হুশিয়ারি ও দেন।ভ্রাম্যমাণ আদালত ,মোবাইল কোর্ট টিম মাঠে থাকবে,বাজার মনিটরিং করার জন্য।



    তিনি বলেন আমি জনসচেতনতায় সৃষ্টির লক্ষে আগামি ২ সাপ্তাহ হোম কোয়ারিন্টিমে অবস্হান করবো।কিন্তু কারো বেশী প্রয়োজন থাকলে আমার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করবেন।সমস্যা সমাধান করে দিবো আমি।কোনোরা ভাইরাস ভয়ের নাম না,সাবধানতা অবলম্বের বিষয়। তাছাড়া জেলায় আরো ৭৬ ব্যক্তি হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশই বিদেশ ফেরত। সরকারি বিধি মোতাবেক তাদের সাথে সব ধরনের যোগাযোগ ,স্বাস্থ্য বিষয়ক নানা পরামর্শ, সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। সরকারি,বিধি নিষেধ থাকার কারণে তিনি কারো নাম, ঠিকানা জানাতে রাজি হননি। এদিকে জাতীয় সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানান, তিনি ১৮ মার্চ থেকে ৩১শে মার্চ পর্যন্ত তার নিজের বাস ভবনে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।
    কারণ তিনি বাইরে গেলে শ’ শ’ সাধারণ জনগণ,দলীয় নেতা কর্মী,বিভিন্ন শ্রেণী পেশার নাগরিকেরা তাকে ঘিরে ধরে তার সাথে কথা বলার চেষ্টা করে। তাই জনসাধারণের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে জনসম্মুখে না এসে এই কিছুদিন তিনি তার বাস ভবনে অবস্থান করবেন। বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ইতালি প্রবাসী যুবক আইসোলেশনে থাকার পর,পালিয়ে যায়।তাই সাধারণ মানুষের মাঝে ভয় কাজ করছে।তবে তার খোজে মাঠে নেমেছে আইন শিঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনির সদদস্যরা।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম