• শিরোনাম


    গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে আশ্রয়ন প্রকল্পের ৩৫টি ঘর নদীগর্ভে

    গাইবান্ধা প্রতিনিধি : | ১৮ অক্টোবর ২০১৮ | ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ

    গাইবান্ধার  সুন্দরগঞ্জে আশ্রয়ন প্রকল্পের ৩৫টি ঘর নদীগর্ভে

    নদী ভাঙনে গাইবান্ধা সুন্দরগঞ্জ উপজেলার কাপাসিয়া ইউনিয়নের ভাটি কাপাসিয়া পূর্ব বাদামের চরে নির্মিত আশ্রয়ন প্রকল্পের ৩৫টি ঘর তিস্তা নদীর ভাঙনে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের কবলে এখন আশ্রয়ন প্রকল্পের আরও ১০৫টি ঘর।
    ভূমিহীন, গৃহহীন, ছিন্নমূল, অসহায় দরিদ্র পরিবারের পুনর্বাসনে ২০১২ সালে পূর্ব বাদামের চরে আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নির্মাণ করা হয়। সুন্দরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে জমিতে মাটি ভরাটের কাজ করা হয়। ঘর নির্মাণ করে দেয় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। পরে আশ্রয়ন প্রকল্পের দায়িত্ব বুঝে দেয়া হয় স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে। সেসময় আশ্রয়ন প্রকল্প থেকে তিস্তা নদী দেড় কি.মি. দুরে অবস্থান করছিল। কিন্তু পরবর্তীতে তিস্তার অব্যাহত ভাঙনে আশ্রয়ন প্রকল্প হুমকির মুখে পড়ে। গত ৭ দিনের ব্যবধানে তিস্তার ভাঙনে ভাটি কাপাসিয়া চরের আশ্রয়ন প্রকল্পের ৩৫টি ঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙনের মুখে পড়েছে প্রকল্পের অন্য ঘরগুলো। নদীভাঙনরোধে ব্যবস্থা না করে চরাঞ্চলের আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর নির্মাণ করায় এ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে বলে এলাকাবাসি মনে করেন।
    কাপাসিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন জানান, গত কয়েকদিনের ভাঙনে ৩৫টি ঘর নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এছাড়া আরও ১০টি নদী ভাঙনের মুখে ঘর অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়া ঘরের পরিবারগুলো খোলা আকাশের নিচে এখন মানবেতর জীবন যাপন করছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোলেমান আলী জানান, বিষয়টি তদারকি করার জন্য তহশীলদারকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। যারা ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে তাদের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

    Facebook Comments



    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম