• শিরোনাম


    কোস্টগার্ডের বিরুদ্ধে বাবা ও স্কুল পড়ুয়া দুই ছেলেকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো অভিযোগ

    নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ | ১৫ জুলাই ২০২১ | ২:৩৯ অপরাহ্ণ

    কোস্টগার্ডের বিরুদ্ধে বাবা ও স্কুল পড়ুয়া দুই ছেলেকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো অভিযোগ

    নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার বয়ারচর টাংকির ঘাটের আব্দুর রব বেপারী ও তার দুই ছেলেকে নিজ বাড়ি থেকে মধ্য রাতে তুলে নিয়ে মিথ্যা মামলা দেওয়ার অভিযোগে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন ভূক্তভোগী পরিবার।

    বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) সকালে স্থানীয় টাংকি বাজারে এ সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ।



    সংবাদ সম্মেলনে আবদুর রব বেপারীর মেয়ে জান্নাত আক্তার লিখিত বক্তব্যে অভিযোগ করেন, আমার বাবা মাছ ব্যবসায়ী আব্দুর রবের কাছ থেকে কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট এম তাহসিন ও সিজি স্টেশন হাতিয়া কোস্টগার্ড কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট.এ.এস.এম.লুৎফর রহমান মাসিক চাঁদা দাবী করে আসছে । তিনি চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমার বাবাকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানী ও হুমকি দিয়ে আসছিল। অবশেষে গত (৯ জুলাই) মধ্য রাতে আমাদের বসত ঘরের দরজা ভেঙে আমার বাবা আব্দুর রব বেপারী, আমার স্কুল পড়ুয়া দুই ভাই আব্দুর রহিম ও মো.রবিনকে ঘুমন্ত অবস্থায় ঘর থেকে ধরে মারধর করে গ্রেফতার করে নিয়ে যায়। তার পর কোস্টগার্ড কিছু পুরাতন অস্ত্র উদ্ধার দেখিয়ে, তাদেরকে ডাকাতির প্রস্তুতির ঘটনা সাজিয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়। বাবার গ্রেফতারের খবর এলাকা ছড়িয়ে পড়লে এলাকাবাসীর বাঁধার মুখে পড়ে যায় কোস্টগার্ড দল । এ সময় জেলে ও মাছ ব্যবসায়ীরা প্রতিবাদ করলে কোস্টগার্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে জনগণকে বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টা করে। এ পরিস্থিতিতে সাধারণ জনগণের প্রাণ রক্ষার্থে আবদুর রব বেপারী স্বেচ্ছায় কোস্টগার্ড সদস্যদের সাথে চলে যেতে বাধ্য হয়। জান্নাত আরা তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা ঘটনায় মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার,তাদের মুক্তি দাবি ও কোস্টগার্ড কর্মকর্তাদের বিচার দাবি করেছেন।

    এদিকে একই দিন সকালে মিথ্যা ঘটনায় সাজানো মামলা প্রত্যাহার ও কোস্টগার্ড কর্মকর্তাদের বিচারের দাবীতে টাংকি বাজারে একই সময়ে মানববন্ধন করেছে বাজারের ব্যবসায়ী ও জেলেরা। মানববন্ধনে বক্তরা বলেন,আব্দুর রব বেপারী দীর্ঘ ২০ বছর ধরে এই অঞ্চলে ব্যবসা করছেন ও ব্যবসায়ীদের সংগঠনের দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি টাংকি বাজার মাছ ঘাট ও বাজার কমিটির সভাপতি এবং টাংকি বাজার মসজিদ,মাদ্রাসা ও এতিমখানার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তাকে আমরা কখনো কোন ধরনের অসামাজিক ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করতে দেখিনি। তাকে তার স্কুল পড়ুয়া দুই ছেলেকে সাজানো ও মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে। তাকে কোস্টগার্ড কর্মকর্তারা তার বসত বাড়ি থেকে মধ্য রাতে তুলে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় এলাকার সকল মানুষ স্বাক্ষী রয়েছে। আমরা আব্দুর রব বেপারী ও তার দুই ছেলের মুক্তি দাবী করছি। এদিকে মানববন্ধনে জেলেরা অভিযোগ করেন নদীতে মাছ ধরার সময় কোস্ট গার্ড তাদেরকে নানা ভাবে হয়রানি করে। অনেক সময় মাছ নিয়ে যায়, চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে নানান অজুহাতে মারধর করে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন,টাংকি বাজার মসজিদের ইমাম ফজলুল হক, ব্যবসায়ী মাওলানা সফিক , ব্যবসায়ী মো. জহির উদ্দিন, প্রত্যক্ষদর্শী সিএনজি চালক মো.আলা উদ্দিন প্রমূখ।
    এ বিষয়ে কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট এম তাহসিন রহমান চাঁদা দাবীর অভিযোগ নাকচ করে দিয়ে বলেন, গ্রেফতারকৃত আবদুর রব বেপারীর বিরুদ্ধে হাতিয়া ও রামগতি থানায় বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। আইনানুগ ভাবে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। স্থানীয় ভাবে সরেজমিনে খবর নিলে তার প্রকৃত চরিত্র উন্মোচন হবে। এ ঘটনা নিয়ে কোস্টগার্ডের পক্ষ থেকে একটি প্রেস রিলিজ দেওয়া হবে বলেও তিনি গণমাধ্যম কর্মিদের অবহিত করেন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম