• শিরোনাম


    কিছু শর্ত সাপেক্ষে নতুন পাসপোর্ট পাবে লেবানন প্রবাসীরা: সংবাদ সম্মেলনে রাষ্ট্রদূত

    রিপোর্ট-জাহিদুল ইসলাম (রুবেল) লেবানন প্রতিনিধি:- | ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৩:৫৮ পূর্বাহ্ণ

    কিছু শর্ত সাপেক্ষে নতুন পাসপোর্ট পাবে লেবানন প্রবাসীরা: সংবাদ সম্মেলনে রাষ্ট্রদূত

    পরিবারের একটু সুখের আশায় লেবাননে এছেন বাংলাদেশী লাখো প্রবাসী, লেবাননে প্রবেশ করার সময় বিমানবন্দর থেকেই পাসপোর্ট নিয়া যায় মালিক পক্ষ। লেবাননে আসার পর বিভিন্ন কারণে অবৈধ হয়ে পরে হাজারো প্রবাসী। আকামা না থাকায় যেমনি পুলিশের ভয়ে পালিয়ে বেড়ায় অবৈধরা, তেমনি পাসপোর্ট না থাকাতেও নানা ধরণের সমস্যায় পরতে হয়।

    অন্যদিকে দীর্ঘ দিন ধরে লেবানন সরকারে সাথে বাংলাদেশ দূতাবাসের আলোচনা চলছে বাংলাদেশী অবৈধ প্রবাসীদের বৈধ করনের। আলোচনা অনেকটা এগিয়ে গেলেও পাসপোর্ট না থাকায় বৈধ হতে পারবেনা তারা। আর এসকল বিষয়কে সামনে রেখে এবার প্রবাসীদের কিছু শর্ত স্বাপেক্ষে নতুন পাসপোর্ট দেয়ার ঘোষনা দিল বাংলাদেশ দূতাবাস।



    ২৪ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বৈরুত দূতাবাসের হল রুমে সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে এ ঘোষণা দেন লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

    সংবাদ সম্মেলন রাষ্ট্রদূত বলেন, অনেক প্রবাসী রয়েছে যাদের নিকট কাগজপত্র এবং কি পাসপোর্টও নেই, এসকল ডকুমেন্ট তাদের মালিক নিয়ে গিয়েছে বা হারিয়ে গেছে। লেবানন প্রবাসীদের দীর্ঘ দিনের দাবি ছিল নতুন পাসপোর্ট করার সুযোগের। তাদের এমন দাবির পরিপ্রেক্ষিতে দূতাবাস গত আগষ্ট মাসে এই বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুরোধ জানায়।পরবর্তীতে দূতাবাস বাংলাদেশ পাসপোর্ট অধিদপ্তর এবং স্পেশাল ব্রাঞ্চসহ সংলিষ্ট কর্তৃপক্ষের মতামতের ভিত্তিতে অবশেষে কিছু শর্ত সাপেক্ষে লেবানন প্রবাসীদের নতুন পাসপোর্ট দিতে যাচ্ছে।

    এতে যাদের মূল পাসপোর্ট নিয়োগকর্তা, কফিল অথবা জেনারেল সিকিউরিটি নিকট জমা রয়েছে এবং তা কোনোভাবেই উদ্ধার করা সম্ভব হচ্ছে না তাদেরকে এমআরপি (MRP)পাসপোর্ট নবায়ন রিইস্যু করার সুযোগ প্রদান করা যাচ্ছে। যাদের নিকট হাতের লিখা পাসপোর্ট অর্থাৎ ২০১০ সালের পরে পাসপোর্ট আছে তারাও এই সুযোগ গ্রহণ করতে পারবে।তবে যাচাই- বাছাই করে তাদের তথ্য পাওয়া গেলে তারা পাসপোর্ট পাবে।আর ২০১০ সালের আগে যাদের হাতের লিখা পাসপোর্ট তারা এই সুযোগ পাবেনা।

    শর্তগুলো হচ্ছে:-
    (১)তাঁদের পূর্বের পাসপোর্ট অফিসে এমআরপি (ডিজিটাল) পাসপোর্ট হতে হবে।
    (২)তাঁদের কাছে এমআরপি/ ডিজিটাল পাসপোর্ট এর সুস্পষ্ট ফটোকপি থাকতে হবে
    (৩)পাসপোর্ট কপিলের বা আমল নামের নিকট থাকা সম্পর্কে একটি হলফনামা দিতে হবে নমুনা দূতাবাস থেকে সংগ্রহ করা যাবে।
    (৪) দুই কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি।
    (৫)৩৩ $ আমেরিকান ফিস(অবশ্যই ডলারে পরিশোধ করতে হবে)।
    (৬) জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি/ বিএমইটি কার্ড এর ফটোকপি লাগবে।

    আগামী ৩০ ডিসেম্বর ২০১৯ রোজ সোমবার শুরু হয়ে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলবে। প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত আবেদন পত্র গ্রহণ অব্যাহত থাকবে বলে জানান রাষ্ট্রদূত। .

    সংবাদ সম্মেলনে দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ, দেশের বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ ‌এবং প্রবাসী কমিউনিটির নেতারাও উপস্থিত ছিলেন।

    পাসপোর্টের এমন খবরে উৎফুল্য প্রবাসীরা, তারা আশাবাদী অচিরেই লেবাননে সরকারের সাধারণ ক্ষমায় বৈধ হবার সুযোগ পাবে। প্রবাসীরা তাকিয়ে রয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাসের দিকে।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম