• শিরোনাম


    কাতারে উৎসবমুখর পরিবেশে বাংলাদেশ এম.এইচ.এম স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত

    কে.এম. সুহেল আহমদ,কাতার থেকেঃ | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৭:২৯ অপরাহ্ণ

    কাতারে উৎসবমুখর পরিবেশে বাংলাদেশ এম.এইচ.এম স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত

    বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির হরেক রকমের উদ্ভাবনী এবং শিল্প ও নৈপুণ্যের নিদর্শন নিয়ে কাতারস্থ একমাত্র বাংলাদেশী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘বাংলাদেশ এম এইচ এম স্কুল এন্ড কলেজ’ এ শুরু হয়েছিল ‘বার্ষিক ও বিজ্ঞান মেলা এবং শিল্প ও নৈপুণ্য প্রদর্শনী।’

    received_339732869929603
    ২১ সেপ্টেম্বর(শুক্রবার) বিকাল ৪ টা থেকে শুরু করে ঐ দিন রাত ৮ টা পর্যন্ত শেষ হয় মেলা।
    এবারের আয়োজনে বিভিন্ন বিভাগে পৃথকভাবে ২শত থেকে ৩শত কিশোর ও তরুণ উদ্ভাবক এবং ক্ষুধে বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবিত প্রযুক্তি নিয়ে শুরু হয়েছিল এই মেলা।
    “Water Level Indicator(জল স্থর নির্দেশক)” থেকে শুরু করে “Adaptation on Desert Plant”(মরুভূমি উদ্ভিদের উপর অভিযোজন)” উপস্থিতি রয়েছে মেলায়। বাদ যায়নি “Prospect of Online business (অনলাইন ব্যবসা সম্ভাবনা)”।
    তবে মেলায় সাবার নজর কেড়ে নিয়েছে
    কলেজের কমার্স বিভাগে আসা একটি প্রজেক্ট
    “Prospect of Real Estate Business in Qatar(কাতারে রিয়েল এস্টেট ব্যবসা সম্ভাবনা)।”
    মধ্য প্রাচ্যের কাতারের মত একটি উন্নয়নশীল দেশে সল্প খরচে রিয়েল এস্টেটের ব্যবসা ও উদ্ভাবনী সেবা মানুষের কাছে পৌছে দেওয়াই আমাদের মূল লক্ষ্য। এ পদ্ধতির দ্বারা ক্রেতা – বিক্রেতা উভয়ই লাভবান হবে। এমনকি প্রবাসে থেকে ও এর রেমিটেন্স বৃদ্ধিতে দেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধিতে বিরাট সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে জানায় এই প্রজেক্টের উদ্ভাবক কলেজের একাদশ শ্রেণীর কমার্স বিভাগের শিক্ষর্থী ফেনী জেলার মোঃ সাইফুল ইসলাম ও জয়।



    received_534775343647495
    তবে এর মত বিপুল জনপ্রীয়তা পেয়েছে
    কলেজের একাদশ শ্রেণীর কমার্স বিভাগের শিক্ষার্থী মুন্সীগঞ্জ জেলা টঙ্গীবাড়ি উপজেলার মোছাঃ শিফা আক্তার ফাতিমা তার উদ্ভাবিত প্রজেক্ট ‘ Prospect of Online Business( অনলাইন ব্যবসা সম্ভাবনা)।’ এ সম্পর্কে জানতে চাইলে সে বলে, নতুন প্রজন্মের ছেলে- মেয়েরা সহ সকল বয়সীরা এখন অনলাইনের প্রতি আসক্তি।আধুনিক বিজ্ঞানের মত বর্তমান সময়ে অনলাইন ব্যবসা অনেক জনপ্রীয়তা লাভ করেছে। মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসগুলো সল্প খরচে ও কম সময়ে ঘরে বসেই পেতে পারে। সেই সেবা পৌছে দিতেই আমাদের এ প্রজেক্টটি অগ্রণী দায়িত্ব পালন করবে।তার তৈরী উদ্ভাবনী প্রজেক্টির সাথে রয়েছেন একই শ্রেণীর খাদিজা আক্তার ও নাওয়ার মুহাম্মদ।
    দ্বাদশ শ্রেণীর বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র মুন্সিগঞ্জ জেলার আব্দুল্লাহ ও একাদশ শ্রেণীর ময়মনসিংহ জেলার ফারহান শাহরিয়ার ; তাদের তৈরী প্রজেক্ট ” Water Level Idicator( জলস্থর নির্দেশক)”।
    এ প্রজেক্টটি ব্যবহারে কোন জায়গায় বন্যা হওয়ার পূর্ব মূহুর্তে পানি বেড়ে যাওয়া বা কমে যাওয়ার পুরোপুরি তথ্য জানা যায়। তখন বন্যা দূর্গত এলাকার লোকজনদের নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়।ফলে সেখানকার কোন ক্ষয়- ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকেনা।আধুনিক বিজ্ঞানের যুগে এটির ব্যবহার একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ বলে তারা মনে করে।
    কিভাবে মরুভূমির মত দেশে উদ্ভিদ বেঁচে থাকতে পারে সেই রকম একটি অত্যাধুনিক প্রক্রিয়া প্রয়েগের নাম হচ্ছে ‘Adaptation on Desert Plant(মরুভূমি উদ্ভিদের উপর অভিযোজন)’ এ পদ্ধতির দ্বারা মরুভূমির মাটির নিচে পানি সংযোজন করে দেয়া হয়। ফলে উদ্ভিদ সহজেই সেখান থেকে তার খাদ্যরস টেনে নিতে পারে বলে জানায় এ প্রজেক্টির উদ্যোক্তা নবম শ্রেণীর বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী চট্টগ্রামের ফারহা, তামরিন হোসাইন ও জেরিন তাসনিম।
    মেলার অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে
    প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ জসিম উদ্দীন বলেন, ছাত্র- ছাত্রীদের সৃজনশীলতা ও উদ্ভাবনী ক্ষমতাকে উৎসাহিত করতে প্রতি বছর প্রতিষ্ঠানটি এ আয়োজন করে থাকে। কাতরের একমাত্র বাংলাদেশী এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ” বাংলাদেশ এম এইচ এম স্কুল এন্ড কলেজ ” এ অনুষ্ঠিত মেলায় বাংলাদেশী প্রবাসী কমিউনিটির দর্শকরা এসে উৎসাহ উদ্দীপনায় আপাত দৃষ্টিতে দেখে তারা আনন্দে আপ্লুত হয়েছেন।
    বাংলাদেশ এম এইচ এম স্কুল এন্ড কলেজের ডাইরেক্টর লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আনোয়ার খুরশীদ বলেন,
    প্রবাসের মাটিতে মধ্য প্রাচ্যের কাতারের বুকে একটি সর্বোচ্চ আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে যা কিছু প্রয়োজন, সম্মিলিতভাবে আমরা সেই প্রচেষ্টাই চালিয়ে যাচ্ছি। শুধু তাই নয়,
    ছাত্র-ছাত্রীরা বর্তমান সময়ের অত্যাধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির দিকে যে আগ্রহ দেখিয়ে, চিন্তা শক্তি দিয়ে বিজ্ঞানভিত্তিক বিভিন্ন প্রজেক্ট তৈরী করেছে। তাদের যে মেধার প্রতিভা দেখিয়েছে, সেই হিসেবে বলতে পারি অদূর ভবিষ্যতে তারা দেশ ও দশের জন্য বিশ্বের মানচিত্রে অনেক সুনাম অর্জন বয়ে আনবে।তাদের এসব উদ্ভাবনী দেখে স্বয়ং কাতরস্থ রাষ্ট্রদূত মহোদয় ও আগত অতিথিবৃন্দ ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।
    ঝঁমকালো আয়োজনে ফিতা কেটে মেলার শুভ উদ্বোধন করেন, কাতারস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের মান্যবর রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ।এসময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশী কমিউনিটির নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ও কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ সহ আরো অনেকে।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম