• শিরোনাম


    কাতারের আমীর শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির সিংহাসন আরোহনের সপ্তম বর্ষপূর্তি আজ

    কাতার প্রতিনিধি | ২৫ জুন ২০২০ | ৫:৩৮ অপরাহ্ণ

    কাতারের আমীর শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির সিংহাসন আরোহনের সপ্তম বর্ষপূর্তি আজ

    আজ ২৫ জুন। কাতারের ইতিহাসের এক অনন্য দিন। আজ কাতারের মাননীয় সফল আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির ক্ষমতা গ্রহণের সপ্তম বর্ষপূর্তি ।

    ২০১৩ সালের এই দিন তৎকালীন মাননীয় আমির শেখ হামাদ বিন খলিফা আল থানি নিজ পুত্র ও ডেপুটি আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানিকে নিজের স্থলাভিষিক্ত করে অবসর গ্রহণ করেন।



    বয়সে বিশ্বের কনিষ্ঠ শাসক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেও সেই থেকে যোগ্য পিতার যোগ্য পুত্র হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতা,বিচক্ষণতা,দেশপ্রেম ও আন্তরিকতা মাধ্যমে ছোট্ট এ দেশটিকে বিশ্বের এক নম্বর ধনী দেশে পরিণত করেন।
    তাঁর নেতৃত্ব ২০২০ সালে শান্তি ও নিরাপত্তা সূচকে কাতার মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে প্রথম। আর বিশ্বের সেরা ১৬৩টি দেশের মধ্যে ২৭তম।

    দৃঢ়চেতা এ শাসক অত্যন্ত আত্মমর্যাদা সম্পন্ন মানুষ। অন্যায়ের কাছে মাথা নত করতে জানেন না। তিনি ভাঙবেন কিন্তু মচকাবেন না। ২০১৭ সালের ৫ জুন প্রতিবেশী আরব আমিরাতের, বাহরাইন ও মিশর সৌদি আরবের নেতৃত্বে কাতারের বিরুদ্ধে জল, স্থল ও আকাশ পথে অন্যায় অবরোধ করে কাতারের অগ্রযাত্রাকে রুখে দিতে চেয়েছিল। বিচক্ষণ এ তরুণ শাসকের দেশপ্রেম আর কূটনৈতিক তৎপরতার কাছে হিংসুক শাসকচক্র পরাজিত হয়েছে। তাদের অন্যায় অবরোধকে বিশ্বনেতারা মেনে নেন নি। তাঁরা কাতারের জনগণ ও এ নবীন শাসকের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাবৎ দুনিয়ার আপামর জনগণ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কাতারের প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেছে। শেখ তামিমকে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা দিয়েছে। ধিক্কার জানিয়েছে এ চার দেশের নেতৃবৃন্দকে। তাদের অবৈধ অবরোধ কাতারের জন্য শাপেবর হয়েছে। আমদানি নির্ভর কাতার আজ নিজের পায়ে দাঁড়াতে শিখেছে। কৃষিখাতে প্রণোদনা দিয়ে মরুময়তাকে জয় করেছে কাতার। শিল্পখাতেও এসেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । সবই সম্ভবত হয়েছে প্রবাসী ও দেশবাসীর নয়নমনি শেখ তামিমের যোগ্য নেতৃত্বে।

    স্বাস্থ্যসেবায় উন্নত দেশ কাতার মহামারী করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় আজ বিশ্বের মডেল। আজ পর্যন্ত ৯১,৮৩৮ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর মধ্যে সুস্থ হয়েছে ৭৪,৫৪৪ জন। মারা গেছে ১০৬ জন। আক্রান্তের বিবেচনায় সারা বিশ্বের সব দেশের চাইতে মৃত্যুহার নগন্য, সুস্থতার হার বেশি ।

    একদম বিনামূল্যে কাতারের সর্বস্তরের জনগণের জন্য করোনা চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে কাতার সরকার। চিকিৎসা ক্ষেত্রে এখানে ন্যূনতম ব্যবধান ছিল না কাতারি-ননকাতারি, মুসলিম-অমুসলিম, ধনী-দরিদ্রের মধ্যে । একজন পরহেজগার মুসলিম শাসক হিসেবে তিনি এ ক্ষেত্রে সকলের সম অধিকার নিশ্চিত করেছেন।
    আর তাইতো কাতারি জনগণের পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের অভিবাসীরা শেখ তামিমের পুরো শাসনামলেই পরিপূর্ণ সমর্থন ও সহযোগিতা করেছেন এ জনকল্যাণমূলক সরকারকে।

    বাংলাদেশ কমিউনিটি সবসময় কাতার সরকারের সাথে ছিল, আছে, থাকবে। কাতারের সকল উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে আমাদের Second Home কাতারের পাশে থাকতে চাই।
    জনগণের বন্ধু কাতারের মাননীয় আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানির সুশাসন জনগণের জন্য বড় আশীর্বাদ । আল্লাহ্ ওনাকে দেশের ও জনগণের কল্যাণে কাজ করতে গিয়ে যতই বিপদ আসুক তা ধৈর্যের সাথে মোকাবিলা করার তৌফিক দান করুন এবং তাঁকে নেক হায়াত দান করুন।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম