• শিরোনাম


    কসবায় স্বামীর পরকীয়ায় স্ত্রীর আত্মহত্যা!

    রিপোর্ট: মো: মুসা আহমেদ | ২২ এপ্রিল ২০১৯ | ৩:২৩ অপরাহ্ণ

    কসবায় স্বামীর পরকীয়ায় স্ত্রীর আত্মহত্যা!

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় গত শনিবার সোহেনা আক্তার (৩৫) নামের এক গৃহবধূর গলায় ফাঁস লাগানো লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্বামীর পরকীয়া নিয়ে দাম্পত্য কলহের জেরে এই গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ অভিযোগে থানায় মামলা করেছে তাঁর পরিবার।

    ঘটনার পর সোহেনার বড় ভাই বাছির মিয়া স্থানীয় থানায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলায় সোহেনার স্বামী ফজু মিয়া ও তাঁর কথিত প্রেমিকাকে আসামি করা হয়েছে।



    মামলার এজাহারে বলা হয়, সোহেনা আক্তারের সঙ্গে ১৬ বছর আগে একই ইউনিয়নের ফজু মিয়ার (৩৮) সঙ্গে বিয়ে হয়। তাঁদের দুই ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। ফজু মিয়া স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরির কাজ করেন। তিনি একই গ্রামের এক নারীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলেন। বিষয়টি জানতে পেরে সোহেনা আক্তার প্রতিবাদ করলে স্বামী ফজু মিয়া তাঁকে মারধর করেন। শনিবার বিকেলে ফজু মিয়া ও তাঁর কথিত প্রেমিকাকে নিজ বাড়িতে একসঙ্গে দেখতে পান সোহেনা। সোহেনা প্রতিবাদ করলে তাঁকে মারধর ও গালিগালাজ করেন ফজু মিয়া। পরে ওই দিন সন্ধ্যায় সোহেনা বাড়ির পাশে পুকুরপাড়ের একটি গাছের সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

    রাতেই পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সোহেনা আক্তারের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে ফজু মিয়া ও তাঁর পরিবারের লোকজন পালিয়ে যান।

    গতকাল রোববার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য নিহত গৃহবধূর লাশ ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

    বাছির মিয়া বলেন, একই গ্রামের এক নারীর সঙ্গে তাঁর ভগ্নিপতির অবৈধ সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে বোনের সঙ্গে প্রায়ই কলহ হতো। ভগ্নিপতি বোনকে মারধর ও নির্যাতন করে আসছিলেন।

    কসবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল মালেক বলেন, এ ঘটনায় নিহত গৃহবধূর ভাই বাদী হয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনায় দণ্ডবিধির ৩০৬ ধারায় একটি মামলা করেছেন। আসামিরা পলাতক।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
    ৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম