• শিরোনাম


    করোনা দুর্যোগে থেমে নেই চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু’র কর্মতৎপরতা

    গাজী মোহাম্মদ হানিফ, সোনাগাজী (ফেনী) প্রতিনিধি | ২০ মে ২০২০ | ৪:০৬ পূর্বাহ্ণ

    করোনা দুর্যোগে থেমে নেই চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু’র কর্মতৎপরতা

    বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করা করোনা ভাইরাসের কারণে কর্মহীন অসহায় দরিদ্র ও হতদরিদ্র পরিবার সমূহ মানবেতর জীবনযাপন করছেন। এই মহাসংকটময় পরিস্থিতিতে থেমে নেই সোনাগাজীর ৫নং চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টুর কর্মতৎপরতা। ব্যাপক যাচাই বাছাই করে কর্মহীন ও অসহায় পরিবারের তালিকা করণ, ত্রাণ প্যাকেটিং তদারকি, ত্রাণ বিতরণ, জনসচেতনতায় প্রচার-প্রচারণা, হ্যাণ্ড স্যানিটাইজার মাস্ক ও গ্লাবস বিতরণ, সামাজিক দুরত্ব নিশ্চিত করা সহ সকল কর্মকাণ্ডে ব্যস্ত সময় পার করছেন- চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু।

    চরদরবেশ ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু পারিবারিক ভাবে আওয়ামীলীগ পরিবারের সন্তান, তার পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইলিয়াছ মিয়া চরদরবেশ ইউনিয়নের ৫ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন। ছাত্রলীগের রাজনীতির মাধ্যমে নুরুল ইসলাম ভুট্টুর রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়। মঙ্গলকান্দি স্কুল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও বক্তারমুন্সী কলেজ ছাত্রলীগের সহসভাপতি ছিলেন। ফেনী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ, উপজেলা ও জেলা যুবলীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সফলভাবে পালন করে বর্তমানে তিনি সোনাগাজী উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন।



    চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু বলেন- করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট এই মহা দুর্যোগকালীন পরিস্থিতিতে আমাদের সকলের উচিত দায়িত্বশীল আচরণ করে, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানো। আমি কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। কাজ করছি নিজের দায়িত্ববোধ থেকে। করোনা দুর্যোগের শুরু থেকে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কার্যকর পদক্ষেপ নিয়েছেন। তিনি প্রথম থেকে সুচিকিৎসা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা সহ জনসচেতনতা ও ত্রাণ তৎপরতা শুরু করেছেন। আমার ইউনিয়নে পর্যাপ্ত ত্রাণ বরাদ্দ পেয়েছি, যাহা সুষ্ঠুভাবে বণ্টন করা হয়েছে।

    আমরা প্রথম পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি হারে ৩০০ পরিবারকে দিয়েছি। অতপর; ২য় পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি, আলু ২ কেজি, ডাল ৫০০ গ্রাম হারে ৬০০ পরিবার। ৩য় পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি, আলু ২ কেজি হারে ৬৫১ পরিবার। ৩য় পর্যায়ে আবারো চাউল ৫ কেজি, আলু ২ কেজি হারে ৬২ পরিবার। ৪র্থ পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি, আলু ২ কেজি হারে ৬২০ পরিবার। ৫ম পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি, আলু ২ কেজি হারে ৮৯০ পরিবারকে দিয়েছি।

    এরপরে ৬ষ্ট পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি হারে ১৭০০ পরিবার। ৭ম পর্যায়ে চাউল ১০ কেজি হারে মধ্যবিত্ত ৩০০ পরিবারকে। ৮ম পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি হারে ১০২৪ পরিবারকে। ৯ম পর্যায়ে চাউল ১০ কেজি, আলু ২ কেজি হারে ২০০ পরিবারকে। ১০ম পর্যায়ে চাউল ৫ কেজি হারে ৬৭৬ পরিবারকে দেয়া হয়। আমরা ১০ম পর্যায় পর্যন্ত ৩৭.৬১৫ মেট্রিকটন চাউল বরাদ্দ পাই যাহা ইউনিয়নের ৭০২৩ টি পরিবারের মাঝে ঘরেঘরে পৌঁছে দিই।

    ১১তম পর্যায়ে আমরা ৫২০ টি মধ্যবিত্ত পরিবারকে ১০কেজি করে দিই। ফেনী জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে আরো ৪০ টি প্যাকেট পাই, স্থানীয় সাংসদ লেঃ জেনারেল (অবঃ) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরীর পক্ষ থেকে আরো ৩০ টি প্যাকেট বরাদ্দ পাই তার সবগুলো অসহায় পরিবার গুলোকে ইউপি সদস্য ও গ্রাম পুলিশদের মাধ্যমে প্রত্যেকের ঘরেঘরে পৌঁছে দেওয়া হয়।

    এছাড়া বেসরকারি সহায়তার মধ্যে ফেনী জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন হাজারী এমপির পক্ষ থেকে ৪৫০ প্যাকেট, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক প্রটোকল অফিসার আলাউদ্দিন আহমদ চৌধুরী নাসিমের পক্ষ থেকে ২০০ প্যাকেট, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আলহাজ্ব সোলায়মান ভূঞার পক্ষ থেকে ২০০ প্যাকেট, হোসাফ গ্রুপের চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেনের পক্ষ থেকে ১৫০ প্যাকেট, ফেনী জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে আজিজ আহমেদ চৌধুরীর পাঠানো ৯০ প্যাকেট সহ মোট ১০৯০ প্যাকেট ত্রাণ সহায়তা পাই সেগুলো অসহায় মানুষজনের প্রত্যেকের বাড়ীঘরে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। শিশু খাদ্য বরাদ্দ পেয়েছি ১৯ প্যাকেট সেগুলো বিতরণ করা হয়েছে। সবগুলো ত্রাণ সঠিক তালিকাভুক্ত করে সুষমভাবে বণ্টন করা হয়েছে।

    ইউনিয়নের জনসাধারণের উদ্দেশ্যে চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম ভুট্টু বলেন- অতি প্রয়োজন ছাড়া কেউ বাড়ীঘর থেকে বের হবেননা। এক এলাকা থেকে অন্য এলাকায় যাবেননা। ঈদ করুন বর্তমান অবস্থানে, কোলাকুলি ও হ্যাণ্ডসেক পরিহার করুন। জনসমাগম এড়িয়ে চলুন, বারবার সাবান বা হ্যাণ্ড ওয়াশ দিয়ে হাত ধুতে হবে। পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকুন, নিজে সুস্থ থাকুন, অন্যকে সুস্থ থাকতে দিন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম