• শিরোনাম


    করোনাভাইরাস: সৌদিতে সব ধরনের জমায়েত নিষিদ্ধ! না মানলে গুণতে হবে জরিমানা

    তাজউদ্দিন তারেক, সৌদি আরব প্রতিনিধি | ০৮ মে ২০২০ | ৪:৫৯ পূর্বাহ্ণ

    করোনাভাইরাস: সৌদিতে সব ধরনের জমায়েত নিষিদ্ধ! না মানলে গুণতে হবে জরিমানা

    মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব করোনা প্রতিরোধে জন্য বরাবরই সচেতন ও সাবধানতার সাথে প্রতিটি পদক্ষেপ গ্রহন করছে। সেই সাথে বৈশ্বিক এই মহামারি ঠেকাতে এখানে বসবাসরত সকল অধিবাসী এবং সৌদি নাগরিকদের স্বাস্থ্য সচেতন ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে কাজ করছে সৌদি সরকার। তারই অংশ বিশেষ হিসেবে নতুন কিছু নীতিমালা প্রকাশ করেছে সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এই নীতিমালা সমূহ না মানলে এর জন্য জরিমানা ও সাজার আইন করেছে। এই ক্ষেত্রে বিশেষ করে বাংলাদেশী প্রবাসীরা যে কোথাও ৫ জনের বেশি একত্রিত হবেন না – আড্ডা দিবেন না।

    ✴বর্তমানে দেশটিতে চলমান কারফিউ বাংলাদেশিরা খুব বেশি আইন মানছেন না যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে চলছে আলোচনা-সমালোচনা। তারা বলছেন কিছু কিছু এলাকায় কিছু অতি উৎসাহী বাংলাদেশিদের কারণের সৌদি আরবে বসবাসরত সকল বাংলাদেশিরা বড় ধরনের সমস্যার সম্মুখিন হতে পারেন। সৌদি আরবে কর্মরত বেশিরভাগ বাংলাদেশি যেহেতো নিম্ন আয়ের এবং গণবসতিতে বাস করেন। সেহেতু এখনই যদি সতর্ক না হয় তাহলে সামনে ভ’য়ঙ্কর পরিণতি অপেক্ষা করছে বলেও মত দেন অনেকে।✴




    বর্তমানে সৌদি আরবের সর্বত্র যেকোন প্রকার জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিস্তারিত দেখে নিন নিম্নোক্ত নিয়ম গুলো।

    ১) পারিবারিক জমায়েতঃ ঘরে, ইস্তেরাহায়, মাজরায় একের অধিক পরিবার একত্রিত হওয়া যাবেনা। এই নির্দেশনা অমান্যকারী দায়ী ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।
    ২) কোন এলাকার সকলে/ কিছু মানুষ (৫ এর অধিক) কোন ঘরে, নির্মানাধীন বাড়িতে, ইস্তেরাহায়, মাজরায়, খীমায়, বিনোদন কেন্দ্রে, উন্মুক্ত স্থানে একত্রিত হওয়া যাবেনা। এই নির্দেশনা অমান্য অমান্যকারী ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ১৫ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।
    ৩) লেবার জমায়েতঃ কর্মীরা তাদের নিজের লেবার ক্যাম্প ছাড়া অন্য কোন ঘরে (ক্যাম্পে), নির্মানাধীন বাড়িতে, ইস্তেরাহায়, মাজরায় একত্রিত হতে পারবেনা। এই নির্দেশনা অমান্যকারী দায়ী ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।
    ৪) কোন শপিং মলের ভেতরে কিংবা বাইরে ৫ এর অধিক ক্রেতা সাধারন বা মলের কর্মীরা একত্রিত হতে পারবেনা। এই নির্দেশনা অমান্যকারী দায়ী ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ৫ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।
    ৫) যেকোন ধরণের আনন্দনুষ্ঠান, শোক প্রকাশের অনুষ্ঠান, সভা- সম্মেলন এসময় নিষিদ্ধ থাকবে। এই নির্দেশনা অমান্যকারী দায়ী ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ৩০হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে।

    (এই নির্দেশনাসমূহ একাধিকবার অমান্য করলে জরিমানার পরিমান দ্বিগুণ হবে এবং কোন প্রতিষ্ঠান করলে তা পরবর্তী তিন মাসের জন্য বন্ধ থাকবে। দুই বারের অধিক কেউ অমান্য করলে জরিমানার পরিমান আরেক গুণ বাড়বে পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানকে পরবর্তী ছয় মাসের জন্য বন্ধ করে দেয়া হবে।)

    উপরোল্লিখিত জমায়েতে কেউ অংশগ্রহণ করলে কিংবা ডেকে নিয়ে গেলে তাকে প্রথমবারের মত ৫ হাজার রিয়াল জরিমানা করা হবে। পূনরায় একই অপরাধ করলে জরিমানা দশ হাজার রিয়াল হবে। এরপরে তৃতীয়বারের মত কেউ এই ধরণের নিষিদ্ধ জমায়েতে অংশ নিলে তার বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পাবলিক প্রসিকিউশনে প্রেরণ করা হবে।

    এধরণের অবৈধ জমায়েতে যে শরীক হয়, অথবা জমায়েত আহবান করে, অথবা জমায়েতের জন্য অনুঘটক হয় তাকে আইন ভংগকারী হিসেবে গন্য করা হবে। এমন কোন জমায়েত হতে দেখলে ৯৯৯ এ কল করে অভিযোগ জানাতে পারেন।

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম