• শিরোনাম


    এস এম শাহনূর রচিত ইসলামি ভাবধারার কবিতা

    | ০৭ জানুয়ারি ২০২২ | ৭:৫৫ অপরাহ্ণ

    এস এম শাহনূর রচিত ইসলামি ভাবধারার কবিতা

    যাকাতে মোলাকাত

    আল্লাহর নেয়ামত প্রাপ্তদের সাথী হবেন যাকাত প্রদানকারী’
    বৈধ উপার্জন এবং ভূমি থেকে উৎপন্ন ফসল অকৃপণ হাতে ব্যয় করা কল্যাণকর’।
    ধনীরা না গড়লে সম্পদের পাহাড়,সমাজে কাঁদবেনা অনাহারী।



    এই জীবন শেষে যেদিন আসবে আরেক জীবন হলে কিয়ামত
    ধনীদের করুণা নয়,বুঝবে সবে যাকাত গরীবের অধিকার,
    দেখবে হাশরবাসী এটি ধনিদের জন্য আল্লাহর বিশেষ নেয়ামত।

    ‘নামায কায়েম করো এবং যাকাত আদায় করো’ আল্লাহর ফরমান,
    অস্বীকারকারী কাফির,অনাদায়কারী ফাসিক,প্রজ্বলিত অগ্নি পরিণাম।
    যাকাত ইসলামের পঞ্চম স্তম্ভের চতুর্থ একটি ফরয বিধান।

    নামাজ ও যাকাতে পার্থক্য করলে বাধবে যুদ্ধ
    ঘোষণা করলেন আবু বাকার
    ‘যাকাত নেয়া হবে ধনীদের কাছ থেকে এবং অভাবীদেরকে ফিরিয়ে দেয়া হবে”
    বললেন সিদ্দিকে আকবর,”যাকাত সম্পদের অধিকার”।

    একজন স্বাধীন মুসলিম আকেল সাবালক এবং
    নিসাব পরিমাণ সম্পদের পূর্ণাঙ্গ মালিকানা পূর্ণ এক বছরের মালিক যিনি
    এই সপ্ত শর্তে ফরজ হবে যাকাত আমরা কি তা জানি?
    যাকাত আদায়কারীগণ ফকির মিসকীন
    ফিসাবিলিল্লাহ, মুসাফির, আছে যার ঋণ
    এমন আটজনা পাবে যাকাত আল কুরআনের বাণী;

    “যাকাতের সম্পদ কমে না” বলেছেন ইসলামের নবী।
    গরীবের প্রয়োজনে,অভিশপ্ত পুঁজিতন্ত্রের মূলোৎপাটনে,দারিদ্র বিমোচনে,সম্পদ পবিত্র ও বরকতময় করে গরীব-ধনীর মাঝে সেতুবন্ধনে;
    আল্লাহর দেয়া রিযক হতে যাকাত প্রদানকারীই মুত্তাকী।

    স্বর্ণ ও রৌপ্য জাহান্নামের আগুনে করে উত্তপ্ত
    ললাট, পার্শ্বদেশ ও পৃষ্ঠদেশে দেয়া হবে দাগ
    বলা হবে “এটা তা, যা তোমরা নিজেদের জন্য পুঞ্জিভূত
    করেছিলে গরীবের ভাগ!

    কিয়ামতের দিন পার্থিব সম্পদ হবে চোঁখের ওপর কালো দাগ আঁকা বিষধর সাপ
    স্বীয় চোয়ালদ্বয় দ্বারা কামড়াবে কৃপণে, বলতে থাকবে, ‘আমি তোমার ধনভাণ্ডার। আমিই তোমার অনাদায়ী সম্পদের পাপ’।

    নিসাব পরিমাণ সম্পদের এক চল্লিশাংশ দিলে যাকাত
    সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণের বিক্রিত মৃল্য যদি হয় নিসাব
    ওপারে বেহশতি হুর গেলমানের সাথে হবেই মোলাকাত।
    ৮ মে ২০২০ইং
    পদ্মা-রূপসা নদীর তীর,খালিশপুর, খুলনা।

    যাকাতে মোলাকাত

    আল্লাহর নেয়ামত প্রাপ্তদের সাথী হবেন যাকাত প্রদানকারী'[১]
    বৈধ উপার্জন এবং ভূমি থেকে উৎপন্ন ফসল অকৃপণ হাতে ব্যয় করা কল্যাণকর’।[২]
    ধনীরা না গড়লে সম্পদের পাহাড়,সমাজে কাঁদবেনা অনাহারী।

    এই জীবন শেষে যেদিন আসবে আরেক জীবন হলে কিয়ামত
    ধনীদের করুণা নয়,বুঝবে সবে যাকাত গরীবের অধিকার,
    দেখবে হাশরবাসী এটি ধনিদের জন্য আল্লাহর বিশেষ নেয়ামত।

    ‘নামায কায়েম করো এবং যাকাত আদায় করো’ আল্লাহর ফরমান,[৩]
    অস্বীকারকারী কাফির,অনাদায়কারী ফাসিক,প্রজ্বলিত অগ্নি পরিণাম।[৪]
    যাকাত ইসলামের পঞ্চম স্তম্ভের চতুর্থ একটি ফরয বিধান।

    নামাজ ও যাকাতে পার্থক্য করলে বাধবে যুদ্ধ
    ঘোষণা করলেন আবু বাকার
    ‘যাকাত নেয়া হবে ধনীদের কাছ থেকে এবং অভাবীদেরকে ফিরিয়ে দেয়া হবে”[৫]
    বললেন সিদ্দিকে আকবর,”যাকাত সম্পদের অধিকার”।[৬]

    একজন স্বাধীন মুসলিম আকেল সাবালক এবং
    নিসাব পরিমাণ সম্পদের পূর্ণাঙ্গ মালিকানা পূর্ণ এক বছরের মালিক যিনি
    এই সপ্ত শর্তে ফরজ হবে যাকাত আমরা কী তা জানি?[৭]
    যাকাত আদায়কারীগণ ফকির মিসকীন
    ফিসাবিলিল্লাহ, মুসাফির, আছে যার ঋণ
    এমন আটজনা পাবে যাকাত আল কুরআনের বাণী;[৮]

    “যাকাতের সম্পদ কমে না” বলেছেন ইসলামের নবী।[৯]
    গরীবের প্রয়োজনে,অভিশপ্ত পুঁজিতন্ত্রের মূলোৎপাটনে,দারিদ্র বিমোচনে,সম্পদ পবিত্র ও বরকতময় করে গরীব-ধনীর মাঝে সেতুবন্ধনে;[১০]
    আল্লাহর দেয়া রিযক হতে যাকাত প্রদানকারীই মুত্তাকী।[১১]

    স্বর্ণ ও রৌপ্য জাহান্নামের আগুনে করে উত্তপ্ত
    ললাট, পার্শ্বদেশ ও পৃষ্ঠদেশে দেয়া হবে দাগ
    বলা হবে “এটা তা, যা তোমরা নিজেদের জন্য পুঞ্জিভূত
    করেছিলে গরীবের ভাগ![১২]

    কিয়ামতের দিন পার্থিব সম্পদ হবে চোঁখের ওপর কালো দাগ আঁকা বিষধর সাপ
    স্বীয় চোয়ালদ্বয় দ্বারা কামড়াবে কৃপণে, বলতে থাকবে, ‘আমি তোমার ধনভাণ্ডার। আমিই তোমার অনাদায়ী সম্পদের পাপ’।[১৩]

    নিসাব পরিমাণ সম্পদের এক চল্লিশাংশ দিলে যাকাত
    সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণের বিক্রিত মৃল্য যদি হয় নিসাব
    ওপারে বেহশতি হুর গেলমানের সাথে হবেই মোলাকাত।
    ৮ মে ২০২০ইং
    পদ্মা-রূপসা নদীর তীর,খালিশপুর, খুলনা।

    কোরআন হাদীসের ঈঙ্গিতপূর্ণ তথ্যসূত্র:
    [১] সূরা নিসা-৬৯
    [২] সূরা বাক্বারা: (২৬৭),আলে-ইমরান: (১৮০)।
    [৩] [দেখুন ২:৪৩, ২:৮৩, ২:১১০, ২৪:৫৬, ৫৮:১৩ ইত্যাদি আয়াতগুলো।]
    [৪] সূরা হুমাযা-১০৪:১-৯
    [৫] বোখারী
    [৬] বোখারী
    [৭] ইসলামী শরীয়া অনুযায়ী,
    [৮] আল কুরআন, ৯:৬০।
    [৯] মুসলিম:৬৭৫৭, তিরমিযী:২০২৯।
    [১০] আল কোরআন- ৯:১০৩।
    [১১] সূরা বাক্বারা
    [১২] সুরা তওবা ৩৪-৩৫।
    [১৩] বুখারি

    আল আকসা কেবল মুসলিমদের
    কাফের মুশরিকদের দোর্দন্ড প্রতাপে নীরবে কাঁদে
    ‘ইতিহাসের পাঠশালা’ শান্তির শহর জেরুজালেম
    ফিলিস্তিনিরা বন্দি বিষফোঁড়া ইসরায়েলের ফাঁদে।

    হে অভিশপ্ত ইসরায়েলি মাথামোটার দল
    আজ বাকী শুধু মসজিদুল আক্বসা
    সমগ্র ফিলিস্তিনই করেছ জবর দখল!
    মাত্র ১৪ একর ভূখণ্ডের জন্য এত রক্তপাত?
    মুসলমানদের সরলতায় উড়ে এসে জুড়ে বসা
    একদা চরম অবহেলিত ইহুদি যাযাবর জাত?

    এখানে ঘুমিয়ে হযরত ইব্রাহীম,মূসা অসংখ্য নবী
    হযরত উমরের সেই বিখ্যাত উটের বিরল ঘটনা
    চোঁখে ভাসে গ্রেট সুলতান সালাউদ্দিন আইয়ূবী।

    মিরাজের রজনীতে নবীজির ইমামতিতে একবার
    ফেরেস্তাসহ ২৪ হাজার পয়গম্বর পড়লেন নামাজ
    বিশ্বনবী বোরাকে চড়ে করলেন আল্লাহর দিদার।
    সাগর বক্ষ থেকে পথরগুলো তুলেছিল জ্বীন
    পাথরের গায়ে লেখা সম্পূর্ণ সূরা ইয়াসিন।
    এখানে আদায়ে ২ রাকা’ত নামাজ,দিনে কিংবা রাত
    আমল নামায় লেখা হবে পুণ্য ২৫ হাজার রাকাআ’ত।

    ঈসা ইবনে মারিয়মের অপেক্ষায় সমগ্র মুসলিম
    মুসলমানদের প্রথম কেবলা রক্ষা করবেন রব
    পৃথিবী থেকে কাফের মুশরিক হবে কুপোকাত।
    সিরিয়া-প্যালেস্টাইন একদিন স্বাধীন হবেই,
    হযরত আদম,সুলাইমানের স্মৃতিবিজড়িত
    আল-আকসাও আবার মুসলমানদের হবে।

    ২১ মে ২০২১
    সো লা ম

    রমজানুল মোবারক
    ধ্বংস থেকে রক্ষার জন্যে এলো ধৈর্যের রমাজান
    মুসলিম জাতির প্রতি এ যেন খোদার সেরা দান।
    সিয়াম সাধনার এটি হলো প্রশিক্ষণের মাস
    নিশ্চিত করে আখেরাতে জান্নাতে বসবাস।
    রহমতের প্রথম দশক চলে গেলো হায়!
    জানি না রাহমান রাহীম কি দিলেন আমায়।
    পাপে ভরা জীবন আমার ভরসা গাফির,
    গফুর গাফ্ফার নামের গুণে আশা করি মুক্তির।
    ধনের গৌরবে,যৌবনের মিছে তাপে ভুলেছি আপণ জাত
    আত তাউত্তয়াবু নামের কারণে দান কর নাজাত।

    যদি নাহি পাই তব রহমত মাগফিরাত নাজাত
    বৃথা এ জীবন বৃথা দুনিয়াবি হায়াত।
    নসীব কর হে প্রভু লাইলাতুল ক্বদর,খুশীর ঈদ,খুশবু আতর,
    কবুল কর সাহরী ইফতার তারাবীন সাদাকাতুল ফিতর।

    রচনাকাল: ২০ জুন ২০১৭ ইং
    বিজয়পথ,ঢাকা।

    লাইলাতুল বরাত

    আতংকিত আদম সন্তান নিস্তব্ধ পৃথিবীতে
    বছর ঘুরে ফিরে এলো সেই প্রতিশ্রুত রাত,
    নিজের শাপমুক্তি দুর্ভাগাদের ভাগ্য গড়তে
    জাহানে এলো আল্লাহর উপহার শবে বরাত।

    অশরীরী প্রেমালিঙ্গণে হবে চাওয়া পাওয়া
    তারাভরা পূর্ণিমার চাঁদ এক উৎসবের রাত
    রাহীম রাজ্জাক কারীম আসবেন প্রথমাসমানে
    মাথা পরে রবে শাহেন শাহের কুদরতি হাত।

    ৯ এপ্রিল ২০২০ইং
    রূপসা নদীর তীর, খুলনা।

    কবর

    তোমার আমার শেষ ঠিকানা;
    চিঠি যায় না,ফোনও আসেনা।

    বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে দাদা দাদীর কবর
    মা বাবাও ঘুমিয়ে,কেউ নেয়না খোকার খবর!

    নানা নানী গেছেন চলে আরো কত আপনজন,
    ভাবছি তবে আসবে কবে আমার নিমন্ত্রণ!!

    আল্লাহুম্মা বিইসমিকা আমুতু পড়ছি প্রতি রাতে
    পরান পাখী উড়ে যাবে কোন এক প্রভাতে।

    শরীর থেকে খুলে নিবে দামী জামা কাপড়,
    সোহাগ বাতি জ্বালিয়ে দেবে,ছিটিয়ে দেবে আতর।

    পাড়ার লোকে আসবে ছুটে শোক সংবাদ শুনে
    গোসল শেষে জড়াবে আমায় সাদা কাফনে।

    কফিনেতে উঠায়ে আমায় কাঁধে নিবে চার জন
    মিছামিছি কাঁদবে যারা আসবে আপনজন!!

    আমার জন্য খোঁড়া হবে সাড়ে তিন হাত কবর
    পাকা বাড়ীর মোহে কিরে ভুলেছি নিজের ঘর?

    রচনা কালঃ
    ১০অাগস্ট ২০১৬ ইংরেজি।
    বনানী সামরিক কবর স্থান।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    ০৯ অক্টোবর ২০১৯

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম