• শিরোনাম


    এক সাহসী আওয়ামীলীগ যোদ্ধা ।

    এস.এন.লিপা, বিশেষ প্রতিনিধি, ঢাকা। | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ৪:২২ অপরাহ্ণ

    এক সাহসী আওয়ামীলীগ যোদ্ধা ।

    আজ বিকালে সিলেটের এক সাহসী নেতা আমাদের
    মুঠো ফোনের মাধ্যমে জানান যে তিনি তাঁর জীবনি আমাদের কাছে তুলে ধরতে চান করোনার কারনে তিনি মুঠো ফোনের মাধ্যমে আমাদের সাথে যোগাযোগ করেন। তিনি বলেন যে , ” ২০০১ সালে চারদলীয় জোট সরকার গঠন শুরু আর আমি লিটন পাল বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সিলেট মহানগর এর সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক সাবেক কমিটির এডভোকেট সৈয়দ শামীম আহমদ এবং জামিলুর রহমান জামিলের নেতৃত্বে যুবলীগের কার্যক্রম শুরু করি তারপর থেকেই শুরু হয় চারদলীয় ঐক্যজোটের স্টিম রোলার হামলা ,মামলা ,ক্রসফায়ার ইত্যাদি এত ত্যাগ স্বীকার করেও ২০০৬ সালে সিলেট মহানগর যুবলীগের কমিটিতে সদস্য পদ লাভ করি যদিও আমার সহ সভাপতি হবার কথা ছিল। । আমি রাজপথ ছাড়ি নাই ওয়ান ইলেভেন ২০১৪ সালে জামাত-শিবির বাংলাদেশের আওয়ামিলীগের উপর নির্মম অত্যাচার করে, নির্যাতন সহ কতকিছু সহ্য করে ২০১৪ সালে সিলেট মহানগর আট নাম্বার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে বর্তমানে রানিং আছি এবং বাংলাদেশ হিন্দু -বৌদ্ধ -খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ সিলেট জেল া শাখার সাবেক গণসংযোগ সম্পাদক এর দায়িত্ব আমাকে দেওয়া হয় । বর্তমানে সিলেট সদর উপজেলা বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাংগঠনিক দায়িত্ব বর্তমানে পালন করে যাচ্ছি ।আজ আমি নিজের উপার্জিত টাকা পয়সা নিজের বাপের সম্পদ বিক্রি করে, নিজের গাড়ি-বাড়ি সবকিছু শেষ করে দিয়েছি । বলার ভাষা নেই কিন্তু বঙ্গবন্ধু আদর্শ থেকে পিছপা হয়নি এখনো রাজপথে কাজ করে যাচ্ছি আপনি এন এস আই ডি জে 5 এদের সাথে যোগাযোগ করলে আমার সম্বন্ধে সবকিছু পেয়ে যাবেন আমার যে এলাকায় বাড়ি শহরতলী সিলেট আট নং কান্দিগাঁও ইউ পি আট নং ওয়ার্ড মেদেনী মহলে একমাত্র আমি লিটন পাল ২০০১ থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করে গণজোয়ার তৈরি করেছি যে সেন্টারে বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর থেকে কখনো পাশ করেনি আওয়ামী লীগ । আমার কার্যক্রমের মধ্যমে ২০০১ সালের পরে আওয়ামী লীগ জিতেছে , কান্দিগাঁও ইউনিয়ন আট নাম্বার ওয়ার্ড এর পুরো এলাকা জামাত শিবিরের আস্তানা ।আমি আওয়ামী লীগের নাম মুখোমুখি প্রচার করার কারণে আমাকে রেব দিয়ে এরেস্ট করানো হয় , চারটি মামলা দেওয়া হয় ,ক্রসফায়ার করার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় এত কিছুর পরেও আল্লাহর রহমতে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে প্রকৃতভাবে বুকে লালন করে চারটি মামলা শেষ করেছি এবং তখনই জিতেছি। বিএনপি আমলে কিছুই হয়নি ,২০১৪ সালে আবার জামায়াত-শিবির আক্রমণ করে ২৮ শে অক্টোবর লগি- বৈঠার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কর্মসূচি দিলে সিলেট কোর্ট পয়েন্টে জামাত-শিবিরের আক্রমণে আমার ডান হাতের চারটি আঙ্গুল কেটে যায় আজ আমি অসহায় পঙ্গুত্ববরণ করছি আমার কথা কেউ বলে না , সরাসরি যদি একবার মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পা ছুঁয়ে ভক্তি দিতে পারতাম তাহলে আমি ধন্য হতাম , আপনি যদি পারেন কিছু লিখবেন বর্তমানে কোন মামলা নেই আল্লাহর রহমতে বেঁচে আছি কিন্তু অসহায়ত্ব যাকে বলে আমি তেমনি একজন । আমি আপনাদের সকলের দোয়া নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে চাই। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু । সর্বশেষে তিনি আমাদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন। “

    Facebook Comments



    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১
    ১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
    ১৯২০২১২২২৩২৪২৫
    ২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম