• শিরোনাম


    আলেমদের চামড়া ব্যবসা এবং একটি সম্ভাবনা!- – ম.কাজী এনাম

    | ২৬ আগস্ট ২০১৮ | ৬:২৬ অপরাহ্ণ

    আলেমদের চামড়া ব্যবসা এবং একটি সম্ভাবনা!- –  ম.কাজী এনাম

    আলহামদুলিল্লাহ, আলেম-উলামাগণ আর আগেকার হযরতদের মতো এতোটা অসচ্চল নয়! সকলেই প্রায় সচ্চল। এমন কি আলেমদের মাঝে এখন রিচ লিস্ট দিনদিন অনেক বাড়ছে। মিডিয়া, সেলিব্রিটি, শিল্পপতি থেকে রাজনীতির অঙ্গনের সর্বত্র এখন আলেম সমাজের লোক রয়েছে। অসংখ্য দ্বীনবন্ধু, দ্বীনদার, সমাজসেবক, সমাজ-সভ্যতা বিনির্মাণ, দা’য়ি সহ বিভিন্ন পেশায় এখন আলেমদের ছড়াছড়ি চোখে পড়ার মতো! আমিও চাই, আলেমসমাজ পরনির্ভর না হয়ে সাবলম্বি হউক। শুধু দারিদ্র্যতার মাঝেই যেন আটকে না থাকে, ওরাও হউক হালাল রিজিকের মাধ্যমে সাবলম্বি।

    এই কথাগুলো বলার একটাই কারন, সেটা হলো চামড়া ব্যবসা। মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মাঝে যেহেতু গরিব শ্রেণির শিক্ষার্থী বেশি, সেহেতু সারাবছর তাদের নির্ভর করতে হয় গোরাবা ফান্ডের উপর। অথচ এই গোরাবা ফান্ডের প্রায় সবটাই অথবা ম্যাক্সিমাম চালিকাশক্তি কুরবানির চামড়া। দ্বীনদার-ঈমানদার অসংখ্য মানুষ এখনো এই চামড়ার বিশাল একটা অংশ মাদ্রাসার গরিব ছাত্রদের জন্য দিয়ে দেয়। কিন্ত তাদের ভালবাসা আর এই আন্তরিক দানের সুফল থেকে মাদ্রাসার গরিব ছাত্ররা প্রতি বছর বঞ্চিত হচ্ছে, প্রতারিত হচ্ছে।
    দালালী, রাজনীতি আর ট্যানারির খপ্পরে পড়ে শুধু মাদ্রাসার গরিব ছাত্ররাই শুধু নয়, বঞ্চিত হচ্ছে অসংখ্য দারিদ্র্য পরিবার।
    অন্যদিকে থাকালে দেখা যায়, চামড়ার তৈজসপত্র, চামড়ার জুতা, মুজা, ব্যাগ, বেল্ট ইত্যাদির বাজারমূল্য আকাশছোঁয়া।



    এবার আসি মুল ম্যাসেজে…
    আমরা আলেমরা কি পারিনা এদেশের সকল শ্রেণির গরিবদের হক রক্ষা করতে? নিজেরাই ট্যানারি, রপ্তানি, বাজারজাত সহ সকলপ্রকার চামড়া প্রক্রিয়াজাত করতে? পারিনা কি নিজেরা বৃহদাকার চামড়ার কোন শিল্পপ্রতিষ্ঠান গড়ে দেশের শিল্পবাণিজ্য ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখতে?? হুম্ম??
    পারিনা কি আমরা নিজেরা একটুখানি ঘুরে দাঁড়াতে..???

    মনে রাখতে হবে, নবী-রাসূল (সা.) শুধু রাষ্ট্রীয় আইন প্রতিষ্টা-পরিচালনাই করেননি, রাখালি, মুচিগীরি, কামারগীরি, কুমারগীরিও করেছেন! লজ্জার কিছুই নেই, হালাল পেশা সব সমান। তাছাড়া আমাদের মাদ্রাসাওয়ালাদের জন্য ইহা একটি বিরাট চ্যালেঞ্জ! এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে আমাদেরই। না হয় অদূর ভবিষ্যতেই আমরা ভেঙ্গে যাবো, নিজেদের স্বকীয়তা হারিয়ে ফেলবো। আর বিদেশীরা চামড়ার ব্যবসা করে এদেশ থেকে উঠিয়ে নিয়ে যাবে-যাচ্ছে কোটি কোটি টাকা। আর আমাদের আঙ্গুল চোষা ছাড়া কিচ্ছুই করার থাকছেনা-থাকবেনা। এছাড়া ইহা বেকারত্ব ঘুছানোর জন্য বিশাল এক সম্ভাবনা!

    সুতরাং রিচ, শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী শ্রেণির আলেমদের প্রতি আমার ম্যাসেজ হলো আপনারা একটু সচেতন হউন। দেশ-জাতি ও নিজেদের নিয়ে একটু ভাবুন.. প্লিজ! সেল্ফিস হয়ে না থেকে আসুন নিজেদের একটু ভিন্নভাবে দাড় করায়…!!

    #আইডিয়া: ম. কাজী এনাম
    [বিএসএস অনার্স(অর্থনীতি), ডাবল এমএ(হাদিস)]
    সকাল, ২৬.০৮.১৮ঈ:

    Facebook Comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম