• শিরোনাম


    আরব বিশ্বের মত বাংলাদেশেও ক্যালিগ্রাফি শিল্প ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করুক- জুনায়েদ আহমাদ

    সাজিদুল ইসলাম সাজিদ, স্টাফ রিপোর্টার | ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৬:৫৪ পূর্বাহ্ণ

    আরব বিশ্বের মত বাংলাদেশেও ক্যালিগ্রাফি শিল্প ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করুক- জুনায়েদ আহমাদ

    জুনায়েদ আহমাদ ক্যালিগ্রাফি জগতে পরিচিত এক নাম। ক্যালিগ্রাফি পেইন্টিং ও খত্বের নান্দনিক উপস্থাপনায় তাঁর প্রতিভা সত্যকার অর্থেই অনন্য। তিনি তাঁর অনন্য প্রতিভা দিয়ে ক্যালিগ্রাফি জগতে ভিন্ন এক অবস্থান তৈরি করে ফেলেছেন। “ ভালোবাসায় ক্যালিগ্রাফি”র এবারের আয়োজনে এই সুপরিচিত ক্যালিগ্রাফার ও খত্ব বিশেষজ্ঞ জুনায়েদ আহমাদ ভাইয়ের ক্যালিগ্রাফি নিয়ে তাঁর স্বপ্ন, সম্ভাবনা ও অতীত স্মৃতির কথা তুলে এসেছেন আওয়ার কন্ঠের স্টাফ রিপোর্টার সাজিদুল ইসলাম সাজিদ ।

    ক্যালিগ্রাফির সূচনাটা ছোটবেলা থেকেই। ছোটবেলা সবাই যখন গভীর ঘুমে তলিয়ে যেত। তখন লণ্ঠনের নিভু নিভু আলোতে রাত জেগে জেগে আর্ট করতেন। বাংলা,আরবি হরফ ও খত্বের চর্চা চালাতেন । নিস্তব্ধ রাতে জানালার ধারে ঝিঁঝিঁ পোকার শব্দ আর ক্যালিগ্রাফিকে বন্ধু বানিয়ে জেগে থাকা ছিলো কৈশোর জীবনের নিত্য অভ্যাস। প্রায় সময় খেতেন বাবার বকা। তবে ধৈর্য হারাননি। চর্চা চালিয়ে গেছেন। জোনাকির আলোয় প্রায়শঃ স্বপ্ন দেখতেন একদিন বড় ক্যালিগ্রাফার হবেন। ক্যালিগ্রাফি দিয়ে সবার ভালোবাসা কুড়াবেন।
    তাইসির (দাহম) জামাতে পড়ার সময় প্রতিষ্ঠানিক ভাবে তাঁর ওস্তাদ মাওলানা আব্দুল করিম সাহেব এর কাছ থেকে প্রথম বাঁশের কলম দিয়ে ক্যালিগ্রাফি খত্ব সূচনা হয় ।



    বাশেঁর কলম দিয়ে ক্যালিগ্রাফি করার পাশাপাশি রং তুলি দিয়ে ক্যালিগ্রাফি পেন্টিং করতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। ক্যালিগ্রাফি করার সময় বিভিন্ন খত্বের মাধ্যমকে আশ্রয় করে ক্যালিগ্রাফি করতে পছন্দ করেন। তবে তাঁর পছন্দের খত্ব সুলুস। সুলুস কে উম্মুল খত্ব বলা হয়। বিশ্ব মানের ক্যালিগ্রাফিগণ সুলুস দিয়ে বেশীরভাগ ক্যালিগ্রাফি করে থাকেন বলে তিনিও খত্ব ব্যবহারে ক্ষেত্রে সুলুস খত্বকেই অগ্রাধিকার দিয়ে থাকেন।

    ♦আপনার ক্যালিগ্রাফি শিক্ষক কে ছিলেন ?
    আমার ওস্তাদ হচ্ছেন মাওলানা আব্দুল করিম সাহেব। দারুল উলুম খাদেমুল ইসলাম বাদুরা কওমী মাদরাসা, পিরোজপুর । ক্যালিগ্রাফিতে উনি আমার শিক্ষক ছিলেন।
    ওস্তাদজী খুবই আল্লাহওয়ালা মানুষ ছিলেন । খুব সম্ভাবত ২০১৩ ইং সালের দিকে আল্লাহর ডাকে সাড়া দিয়ে দুনিয়া থেকে বিদায় নিয়ে চলে গেছেন।
    আল্লাহ যেন ওস্তাদজীকে জান্নাতুল ফেরদাউস নসীব করেন। (আমিন)

    ♦কোন কোন প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছেন?
    শিল্পকলা একাডেমিতে ইসলামিক ক্যালিগ্রাফিতে অংশগ্রহণ করে ছিলাম। তাছাড়া সৌদি আরব,ইন্ডিয়াতেও ক্যালিগ্রাফি খত্ব ও পেইন্টিং নিয়ে কাজ করেছি।

    ♦ক্যালিগ্রাফি শিল্পে আপনার আইডল কে?
    ইরাকের আব্বাস আল বাগদাদী।
    বর্তমান বিশ্বের খ্যাতিমান বিশ্বসেরা ক্যালিগ্রাফারদের মধ্যে একজন।

    ♦নতুনরা যদি ক্যালিগ্রাফি শিখতে চায়, সেক্ষেত্রে আপনার পরামর্শ কি?
    নতুনদের জন্য পরামর্শ হল-
    ১. কলম ধরার কৌশল, কিভাবে কলম ধরতে হবে এটা শিখে নেয়া।
    ২. হরফ/লেটার এর পরিমাপ- যেমন হরফকে নুকতা বা ফোটা দিয়ে পরিমাপ করা।
    ৩. কলমের ব্যবহার- বিস্তারিত দরসে বসে, ওস্তাদের কাছ থেকে প্রাকটিক্যাল শিখে নেয়া ও ধৈর্যধারণ করে শিখে যাওয়া।
    বাঁশের কলম কাটার নিয়ম – আসলে এটি বলে বুঝাতে পারবো না, ওস্তাদের কাছে বসে কিংবা ইউটিউব থেকেও কলম কাটা শিখে নেয়া যেতে পারে।
    বিঃদ্রঃ প্রাথমিক অবস্থায় এই তিনটি নিয়ম একা একা সমন্বয় করে আয়ত্ব করা অনেকের জন্যই কঠিন। তাই উত্তম হচ্ছে দক্ষ ও অভিজ্ঞ ওস্তাদ এর কাছ থেকে প্রাক্টিক্যালি হাতে কলমে শিক্ষা নেয়া।

    ♦বাংলাদেশে ক্যালিগ্রাফির বর্তমান অবস্থা কেমন? এমন পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য কি কি পদক্ষেপ নেয়া দরকার বলে মনে করেন?
    আলহামদুলিল্লাহ, বাংলাদেশে ক্যালিগ্রাফি নিয়ে মানুষের মাঝে দিন দিন আগ্রহী বাড়ছে । বিশেষ করে মাদ্রাসার ছাত্র/ছাত্রীদের পাশাপাশি অনেক কমার্শিয়াল আর্টিস্ট ও চারুকলার ছাত্ররাও আরবী ক্যালিগ্রাফির দিকে আগ্রহী হচ্ছেন । অনেকে প্রশ্ন করেন কিভাবে ক্যালিগ্রাফি শেখা যায়, পরামর্শ চান কিভাবে শিখবো।
    আসলে বাংলাদেশে আর্ট শেখার জন্য চারুকলা আর্ট কলেজ আছে সেখানে ফাইন আর্টস, ভাস্কর্য শিল্পসহ অনেক রকম আর্ট শেখার অপশন আছে কিন্তু আরবী ক্যালিগ্রাফি শেখার জন্য কোন অপশন নেই।
    আমাদের আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যেতে হলে বিশ্ব মানের ক্যালিগ্রাফিগণ যেভাবে ক্যালিগ্রাফি চর্চা করেন আমাদেরকেও সে ভাবে ক্যালিগ্রাফি চর্চা করতে হবে।
    বাংলাদেশে আরবী ক্যালিগ্রাফি শেখার জন্য কোন প্রতিষ্ঠান বা আরবী ক্যালিগ্রাফি শেখার কোন প্রতিষ্ঠান নেই। আমি মনে করি বাংলাদেশে সরকারী ভাবে অথবা প্রাইভেট ভাবে হোক বর্তমান প্রেক্ষাপটে ক্যালিগ্রাফি অঙ্গন করা খুবই জরুরী, যাতে করে সবাই ক্যালিগ্রাফি চর্চা করতে পারে।
    খত্ব আয়ত্ত করে পেইন্টিং করতে পারলে আন্তর্জাতিক মানও বেড়ে যায়।
    পারফেক্ট, ছন্দময়,নান্দনিক ক্যালিগ্রাফি শেখার জন্য অবশ্যই কিছু নিয়ম মেনে ক্যালিগ্রাফি খত্ব চর্চা করার দিকটাও আমাদের মাথায় রাখতে হবে।
    ♦ক্যালিগ্রাফি শিল্প নিয়ে আপনার স্বপ্ন কী?
    স্বপ্ন দেখতে কে না ভালোবাসে। স্বপ্ন আছে বলেই হয়তো নতুন নতুন কাজের অনুপ্রেরণা খুঁজে পাই। স্বপ্ন দেখি- কুরআন এবং হাদীসের বানী ক্যালিগ্রাফি খত্ব বা পেইন্টিং এর মাধ্যমে সবার কাছে পৌছে দিতে । আরব বিশ্বের মত বাংলাদেশেও কালিগ্রাফি শিল্প ব্যাপক জনপ্রিয়তা লাভ করুক এটাই আমার প্রত্যাশা।

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম