• শিরোনাম


    আমি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার: বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান কবির আহমেদ

    হেবজুল বাহার, স্টাফ রিপোর্টার | ৩১ মে ২০২০ | ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ

    আমি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার: বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান কবির আহমেদ

    প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার তালিকায় অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কবির আহমেদ কে গতকাল ২৮মে (বৃহস্পতিবার) দুপুরে স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইনের ধারা অনুযায়ী তাদের স্বীয় পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে কারণ দর্শনোর নোটিশপল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করে।

    এই প্রেক্ষাপটে বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান কবির আহমেদের বড় ছেলে জালাল সুমন আহমেদ জানান,কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে একটি মারামারির ঘটনায় ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় আমার বাবাকে আসামি করা হয়েছে। হাইকোর্ট বন্ধ থাকায় জামিন নিতে না পেরে নিজের নিরাপত্তার জন্য তিনি এলাকায় অনুপস্থিত। সে কারণে তিনি তালিকা তৈরি করতে পারেননি। তৈরি হওয়া তালিকায় আমার বাবার কোনো স্বাক্ষরও নেই।
    আমার বাবার অনুপস্থিতিতে প্যানেল চেয়ারম্যান তালিকায় স্বাক্ষর করেছেন। তালিকায় আমার বাবার নাম, স্ত্রী, সন্তান, ভাই ও বোন কারো নাম নেই। তারপরও কিভাবে আমার বাবার বিরুদ্ধে তালিকায় দুর্নীতি কিংবা অনিয়মের অভিযোগ প্রমাণিত হয়।ইউএনও এর পক্ষ হতে তদন্ত কমিটি যখন বসেছিল তখন বাবার অনুপস্থিতিতে আমি সেখানে উপস্থিত ছিলাম, আমাকে জানানো হয়েছিল আমার বাবা নির্দোশ, কিন্তু ডিসি অফিস থেকে গতকাল এই প্রজ্ঞাপন প্রকাশের পর আমি হতভাগ।



    তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ২৫০০ টাকা বিতরণের তালিকায় বীরগাঁও ২নং ইউনিয়নের তাহের মেম্বার তার স্ত্রী ও কন্যার নাম এবং বীরগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের স্থগিত কমিটির সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেনের আপন বড় ভাই, আলমগীর মেম্বার তার স্ত্রীর নাম দিয়েছেন। যার প্রক্ষিতে তাহের মেম্বারকেও গতকাল বরখাস্ত করা হয়েছে। তাদের অপরাধ আর সাজানো অভিযোগের ভিত্তিতে আমার বাবাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে ও কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। আমরা ও এই বিষয়টি নিয়ে আইনিপদক্ষেপ নেব।

    এ ব্যাপারে বীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়াম্যান কবির আহমেদ জানান,আমি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার।যেই তালিকায় আমার সই নেই,সেই তালিকায় অন্যদের করা স্বজনপ্রীতির দ্বায়ে আমাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকিছুদিন আগে আমাদের পার্শ্ববর্তী কৃষ্ণনগর ইউনিয়নে একটি মারামারির ঘটনায় ষড়যন্ত্রমূলকভাবে আমাকে ১নম্বর আসামী করা হয়।আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে তখন থেকেই আমি গ্রামের বাহিরে অবস্থান করছি।প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার তালিকা তৈরিতে আমার কোন প্রকার হস্তক্ষেপ নেই।এমন কি জমাকৃত লিষ্টে আমার সই ও নেই।তবু আমাকে উদেশ্য প্রণোদিতভাবে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে বরখাস্ত করা হয়েছে বলে আমি মনে করি।
    আমি জনগনের ভোটে দুইবার নির্বাচিত হয়েছি।আমার এলাকার জনগনের বিশ্বাস এবং ভালবাসা ই আমাকে নির্দোশ প্রমাণিত করবে ইনশাআল্লাহ

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম