• শিরোনাম


    আমার চোখে বড় হুজুর আল্লামা সিরাজুল ইসলাম (রহঃ): মুফতি নুরুল্লাহ আল মানসুর

    লেখক : মুফতি নুরুল্লাহ আল মানসুর | ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫:৪১ অপরাহ্ণ

    আমার চোখে বড় হুজুর আল্লামা সিরাজুল ইসলাম (রহঃ): মুফতি নুরুল্লাহ আল মানসুর

    ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সবার কাছে সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বড় হুজুর,
    জামিয়া ইউনুছিয়ার সাবেক মুহতামিম,
    আল্লামা সিরাজুল ইসলাম (রহঃ) কে আমি ছোটকাল থেকেই আমার কাছে সবচেয়ে পছন্দ ও শ্রদ্ধেয় ব্যক্তিত্ব ৷

    কারন!
    আমাদের গ্রামে বড় হুজুর প্রত্যেক মাসে একদিন মহিলাদের ইজতেমায় দ্বীনি আলোচনা করতেন ৷
    হুজুরের সামনে গ্রামের মুরুব্বীগণ বসে আলোচনা শুনতেন,আর পর্দার অন্তরালে মহিলাগণ শ্রবণ করতেন ৷
    সেই সুবাদে আমার দাদা সবসময় আমাকে নিয়ে হুজুরের মজলীসে যেতেন ৷
    আমি যখন মক্তব ও প্রথম শ্রেণী শেষ করি তখন ২০০৫ ইং সালে
    আমার আপন চার মামা
    ১,মুফতী আশরাফ উদ্দীন
    ২, মাওঃ মুসা আফতাবী
    ৩, মুফতী হেলালুদ্দীন আফতাবী
    ৪,মাওলানা শরিফ উদ্দীন আফতাবী পরামর্শ করলেন আমাকে তাইসীর জামাতে জামিয়া ইউনুছিয়ায় (ছোট মামা) মাওলানা শরিফ উদ্দীন আফতাবীর (জামিয়ার শিক্ষক)তত্বাবধানে পড়াশোনার সিদ্ধান্ত নেন ৷
    আমি ভর্তি হয়ে মামার রুমেই থাকি হঠাৎ একজন থেকে শুনি বড়হুজুর আর জামিয়াতে পড়াতে আসবেন না!!
    ১০০ বৎসরের ঊর্ধে বয়োবৃদ্ধের পক্ষে দরস দেয়া অাসলেই অসম্ভব ৷
    তাকমীলে হাদীস ও মিশকাত শরীফ এর নতুন সবক নিতে সবাই চললো ভাদুঘর হুজুরের নিজ বাড়িতে ৷
    কিন্তু ছোট হওয়ার কারনে মামা যেতে না করলেন!
    বললেন তোমার সেজু মামা মুফতী হেলালুদ্দীন আফতাবীর (তৎকালীন সময়ে ভাদুঘর মাদরাসার মুহাদ্দীস) বাসায় বেড়াতে গিয়ে হুজুরকে দেখে আইসো অন্য সময় ৷
    অতঃপর কিছুদিন পরই কোন এক বৃহস্পতিবার গিয়ে হুজুর থেকে দোয়া নিয়ে আসলাম ৷
    তাইসীর জামাত শেষে যখন মিজান জামাতে ভর্তি হলাম তখন দু সপ্তাহ পর পর বৃহস্পতিবার বাড়ি যাওয়ার সময় ভাদুঘর যেতাম বড়হুজুরকে দেখার জন্য ৷
    আর শনিবার এসেই বড়হুজুর শারিরিক অবস্থা সবার কাছে বলতাম ৷
    বিশেষ করে মিজান কিতাবের উস্তাদ আল্লামা মুফতী মোশাররফ হোসাইন (আশুগঞ্জের হুজুর)
    আমাকে সর্ব প্রথম বলতেন



    ভাগিনা নুরুল্লাহ!!
    বড় হুজুরকে এই সপ্তাহ কেমন দেখে আসছ???
    আমি যখনি বড় হুজুরকে দেখতে যেতাম সবসময় মেহমান দেখতে পেতাম হয়তো ঢাকা চিটাগাং কিংবা অন্যকোন জেলা থেকে উলামায়ে কেরাম হুজুরকে দেখতে ও দোয়া নিতে আসতেন ৷
    বিশেষ করে বডগহর মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ সাহেব (রহঃ) কে প্রায় সময় দেখতাম হুজুরের পাশে বসে কথা বলতেন ৷
    দেখতে দেখতে মিজান জামাতের বার্ষিক পরিক্ষা সমাপ্ত ৷
    ক্লাসের সবাইকে বললাম
    কেউ আমার সাথে ভদুঘর যাবে??
    আমি হুজুরকে দেখতে যাচ্ছি?
    বাড়িতে তো চলে যাবো অনেকদিন পর আবার ভর্তির আগে আসা হবে না ৷
    আমি গিয়ে দেখি,
    বড় হুজুর এখন আর কথা বলতে পারে না (যা কিছুই বলে স্পস্ট বুঝা যায় না!)

    কিন্তু!!! লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ জিকির সুস্পষ্ট ভাবেই সবাই শুনতে পারেন ৷
    হুজুরকে দেখে বৃহস্পতিবার বিকেলে বাড়ি চলে আসলাম ৷
    শনিবার আনুমানিক সকাল ৯,৩৫ মিনিটে মসজিদের মাইকে এলান হলো ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বড়হুজুর ইন্তেকাল করেছেন,,,,,,,,,,,,,,
    ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন ৷

    আমি তখন বাড়ির পার্শেই জমিতে ছিলাম হঠাৎ শুনে স্থির থাকতে পারলাম না!!!

    আহ,
    তিনি নেই!!!

    পকেটে ১২ টাকা ছিলো,মাকে বললাম বড়হুজুর আর দুনিয়ায় নেই!
    আমি চলে যাচ্ছি হুজুরকে দেখতে পাঞ্জাবীটি পড়ে জুতা নিয়ে দৌড়ে গোকর্ণঘাট ব্রিজে এসে রিক্সা দিয়ে পৈরতলা গিয়ে বাস যোগে হুজুর বাড়ি গিয়ে দেখি ভাদুঘর মাদরাসা ও হুজুরের নিজ বাড়ি আলেম উলামাদের কান্নার মৃদু আওয়াজে আকাশ বাতাস ভারি হয়ে গেছে!!!
    হুজুরের লাশ বাড়ি থেকে গোসল ও কাফন শেষে মাদরাসায় রাখলো মুহুর্তের মধ্যে হাজার হাজার ভক্তবৃন্দ এক নজর দেখার জন্য অস্থির হয়ে মাদরাসার দিকে আসতে শুরু করলো ৷ অতঃপর যোহরের সময় লাশ পৌঁছলো জামিয়া ইউনুছিয়ায় ততক্ষনে শহরে লাখো মানুষ জমায়েত হয়েগেল ৷
    বাদ আছর নামাজে জানাযা আসরের পূর্বেই কানায় কানায় পূর্ণ মাঠ!!!
    ট্রাকে করে জেলা ঈদগাহে পৌছে গেলো হুজুরের লাশ জানাযা পূর্ব শেকার্ত হৃদয়ে দেশের শীর্ষ পীর মাশায়েখ ও জেলার আলেমগণ বক্তব্য রাখলেন ৷
    ততক্ষনে জানাযার নামাজের কাতার কাজীপাড়া ঈদগাহ পেরিয়ে দক্ষিণ মেড়াইল রেল ষ্টেশন পূর্বদিকে কালীবাড়ি হয়ে টি এ রোড পৌঁছলো ৷
    তাছাড়া মহল্লার বিল্ডিংয়ের ছাদে ছাদে দাড়িয়ে জানাযায় শরিক হয়েছে ৷
    এতোবড় জানাযা ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর ইতিহাসে কখনো দেখেন নি ৷
    পরদিন স্থানীয় সকল পত্রিকার পাতায় সব নিউজ, বজ়হুজুরের জানাযা, শোক বার্তা, ও জিবনী নিয়েই শিরোনামগুলো ছিল ৷

    লেখক,
    মুফতি নুরুল্লাহ আল মানসুর,
    শিক্ষা সচিব,
    মারকাযুল কুরআন ইসলামিয়া মাদরাসা মজিববাগ সিদ্ধিরগঞ্জ,নাঃগঞ্জ, ঢাকা ৷

    Comments

    comments

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম