• শিরোনাম


    আগামীকাল শায়খুল বাঙ্গাল স্মরণে পবিত্র বার্ষিক ওরশ মোবারক

    আওয়ার কণ্ঠ নিউজ ডেস্ক: | ০২ অক্টোবর ২০১৯ | ৩:৪৫ অপরাহ্ণ

    আগামীকাল শায়খুল বাঙ্গাল স্মরণে পবিত্র বার্ষিক ওরশ মোবারক

    কসবা উপজেলার বল্লভপুরে জন্ম নিলেন যিনি;

    মহা সাধক তিনি,ওলী তিনি আমরা কি তা জানি?



    নারায়ে তাকবীর আল্লাহু আকবার
    নারায়ে রিছালাত ইয়া রাসুল আল্লাহ (সাঃ)
    নারায়ে হায়দারী ইয়া আলী (আঃ)
    নারায়ে গাউছিয়া ইয়া গাউসুল আজম।

    আগামীকাল ৩রা অক্টোবর ২০১৯ইং ১৮ই আশ্বিন ১৪২৬ বাংলা রোজ বৃহস্পতিবার
    হযরত কুতবুল আলম,আরিফে বিল্লাহ, শাইখুল বাঙ্গাল,আলহাজ্ব মাওলানা সৈয়দ আবু মাছাকীন, মতিউন রহমান, গোলাম কাদির লাহিন্দী,সুন্নি,হানাফি,কাদিরি,চিশতি,

    সোহরাওয়ার্দি,নকশেবন্দি,আবুল উলাই (রহঃ) এর ঐতিহাসিক পবিত্র ওরশ মোবারক।

    স্থানঃ মহিষবেড় দরবার শরীফ, উপজেলাঃ নাসিরনগর। জেলাঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

    আল্লামা শায়খুল বাঙ্গাল ছৈয়দ আবু মাছাকিন লাহিন্দী আল কাদেরী দুদু মিয়া পীর সাহেব (রাহ্)।

    দু চোঁখে দেখিনি যাঁরে
    বাস করে মনের ঘরে।
    খুঁজে ফিরে পাগল মন,
    এ কেমন রক্তের বাঁধন!

    একসময় সাধারন জ্ঞানের বই বলতে গুরুগৃহ প্রকাশনীর “বিশ্বের ডায়েরী” নামক বইটি ছাড়া বাজারে আর কিছুই ছিলনা।সেই বইটিতে বাংলাদেশের সূফী সাধকদের নামের তালিকায় “শায়খুল বাঙাল” নামক একজন বুজুর্গ ব্যক্তির নাম ছিল।তিনিই বল্লভপুর গ্রামের জ্ঞান প্রদীপ -ডাক নাম দুদু মিয়া পীর।উনার মরহুম পিতা আলহাজ্ব মাকসাদ আলী মৌলানা সাহেবও আরবী,ফার্সি, উর্দু,হিন্দি ও সংস্কৃতে সুপন্ডিত ছিলেন।জানা যায়,ত্রিপুরা রাজদরবারে তিনি কিছুকাল কাজীর(বিচারক) দায়িত্বও পালন কররেন।বল্লভপুর করবস্থানে তাঁর সমাধী সৌধ রয়েছে।এছাড়া এ জনপদে আরো জ্ঞানী-গুণী রত্ন মানুষের জন্ম হওয়ায় বল্লভপুর হয়ে উঠে এক রত্নগর্ভা গ্রাম।

    মহান আল্লাহ ও রাসূল (সাঃ) এর শানে দুদু মিয়া পীর সাহেবের লেখা মহামূল্যবান কাছিদাগুলো উনার সুযোগ্য সাহেবজাদা পীর ছিন মিম আশরাফ আলী আল কাদেরী সাহেব “কাছিদায়ে শায়খুল বাঙাল” শিরোনামে সংকলন করে পথহারা মানুষের মুক্তির জন্য তা বই আকারে প্রকাশ করেন।মহান আল্লাহ ছৈয়দ আশরাফ আলী আল কাদেরী হুজুরকে নেক হায়াত দান করুন।আমিন।

    ➤জন্মকালঃ
    ১২৭৯ বাংলা ৩ রা চৈত্র, মোতাবেক ১২৯০
    হিজরী , মোতাবেক ১৮৭৩ ইংরেজী ।

    ➤চির বিদায়ঃ
    হযরত শায়খুল বাঙ্গাল (রাহ্) ১৩৮৫ বাংলা
    ১৬ ই আশ্বিণ ( বাংলাদেশ পঞ্জিকা মতে
    ১৮ ই আশ্বিণ ), মোতাবেক ১৩৯৮ হিজরি ২৯
    শে শওয়াল এবং ১৯৭৮ ইংরেজি ৩ রা
    অক্টোবর রোজ মঙ্গলবার সকাল ৮-২৫
    মিনিটে ইন্তিকাল করেন । ইন্না
    লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলায়হি রাজিউন ।
    তখন উনার পবিত্র গৃহে এক মুঠো অন্নও
    অবশিষ্ট ছিল না । আল্লাহু আকবার !
    তিনি যে স্থানে ইন্তিকাল করেন সে
    স্থানেই সমাহিত করা হয় ।
    ব্রাহ্মণবাড়িয়া জিলার নাছির নগর
    থানা , মহিষবেড় গ্রামে পবিত্র মাজার
    শরিফ অবস্থিত ।
    হে রাব্বুল আলামিন,যুগযুগ ধরে তোমার
    বন্ধু প্রদীপকে প্রজ্জ্বলিত রেখো ।

    অনুষ্ঠান সূচিতে থাকছে:– পবিত্র কোরআন শরীফ তেলাওয়াত,,খতমে তাহলীল,, খতমে কাদিরী,
    মিলাদ শরীফ পাঠ, বাদ এশা থেকে- ওয়াজ মাহফিল, শেষ রাতে হালকায়ে জিকির এবং ফজর বাদ- আখেরী মোনাজাত ও তাহারা বিতরণ।।

    পবিত্র বার্ষিক ওরশ মোবারক ২০১৯ উপলক্ষে ইতোমধ্যেই সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে আওয়ার কন্ঠ ২৪.কম কে নিশ্চিত করেছেন মহিষবেড় দরবার শরীফের গদিনিশিন পীর সৈয়দ আশরাফ আলী আল কাদেরী( র:)।শূয়খুল বাঙ্গালের জন্মগ্রাম কসবা উপজেলার বল্লভপুর ও আশপাশের বিভিন্ন গ্রাম থেকে বহু আশেকান আগামীকালের পবিত্র ওরশে যোগদান করবে বলে জানা গেছে।

    এতএব, উক্ত পবিএ ওরশ শরীফে সকলের উপস্থিত কামনা করছি।

    ➤যোগাযোগ ব্যবস্থা ও পথ পরিচিতি:-
    ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হয়ে আসতে হলে সিএনজি যোগে সরাসরি ধরন্তী খেয়া ঘাট তারপর নৌকা যোগে মহিষবেড় মাজার শরীফ।

    ➤ঢাকা/কিশোরগঞ্জ থেকে ভৈরব হয়ে বাস যোগে বিশ্ব রোড মোড়ে নেমে সিএনজি যোগে ধরন্তী খেয়াঘাট তারপর নৌকা যোগে মহিষবেড় মাজার শরীফ ‌।

    ➤সিলেট থেকে বাস যোগে আসতে হলে কুট্টা পাড়া মোড়ে নেমে সিএনজি যোগে ধরন্তী খেয়াঘাট তারপর নৌকা দিয়ে মহিষবেড় মাজার শরীফ।

    ✪ বি:দ্র:- উক্ত অনুষ্ঠানে সর্ব প্রকার মাদক দ্রব্যের ব্যবহার এবং নারী পুরুষের একত্রে জিকিরে নাচানাচি করা সস্পূন রুপে নিষিদ্ধ। তাছাড়া সব ধরনের খেলা ধুলা,রং তামাশা,টেপ রেকর্ডার বাজানো এবং কেন্দ্রীয় মাইক ছাড়া অন্য কোন মাইক ব্যবহার করা নিষিদ্ধ।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০
    ১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
    ১৮১৯২০২১২২২৩২৪
    ২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম