• শিরোনাম


    আখাউড়ায় আওয়ামিলীগের সভাপতি পদে কাজল ভাইয়ের জনপ্রিয়তা সবার শীর্ষে

    রিপোর্ট: রাকিবুল হাসান, আখাউড়া থেকে | ০৯ অক্টোবর ২০১৯ | ৩:০১ অপরাহ্ণ

    আখাউড়ায়  আওয়ামিলীগের সভাপতি  পদে কাজল ভাইয়ের জনপ্রিয়তা  সবার শীর্ষে

    তাকজিল খলিফা কাজল শুধু নেতাই নয়,একজন চেইঞ্জ মেকার। আখাউড়া উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদপ্রার্থী,পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল তিনি সত্যিকার অর্থে একজন চেইঞ্জ মেকার। তিনি আখাউড়া পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই পৌরসভার সার্বিক উন্নয়ন সঠিকভাবে করতে পেরেছেন বলে আমি মনে করি।‌ “”আমরাই গড়বো আগামী আখাউড়া”” এই স্লোগানে আখাউড়াবাসীর হৃদয়ে স্বপ্নের জাল বুনে ফেলেছেন। আখাউড়া উপজেলার মানুষ সুখে-দুঃখে আপদে-বিপদে ছুটে যান তার কাছে, মেয়র কাজলও নিরাশ করেন না বিপদে পড়া তার প্রিয় আখাউড়া বাসিকে। তার সকাল-সন্ধ্যা কাটে সাধারণ মানুষকে নিয়ে। সকালে ঘুম থেকে উঠার পর বাসার ড্রয়িং রুমে দেখতে পান অপেক্ষামান মানুষের জটলা। কেউ এসেছে সমস্যা নিয়ে, কেউ এসেছে বিচারপ্রার্থী, আবার কেউ উন্নয়নকাজের তদবির নিয়ে।‌ মেয়র কাজল মনোযোগসহকারে সবার কথা শুনেন এবং সাধ্যমত সহযোগিতা করেন। সারা উপজেলায় বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উদ্বোধন, কিছুতেই বাদ পড়ছে না মেয়র কাজলের, তাকে ছাড়া যেন উপজেলাবাসী কোনো অনুষ্ঠানেই পূর্ণতা পায় না। পৌর অফিস, সামাজিক রাজনৈতিক কর্মকান্ড শেষে, মধ্যরাতে যখন বাসায় ফেরেন তখনও মানুষের আনাগোনা থাকে তার রাধানাগরস্থ বাসায়। মেয়র কাজল মনে করেন আমি রাজনীতি করি আওয়ামী লীগের, জাতির পিতার আদর্শ বুকে লালন করে ধারণ করে মানুষের সেবা করার শপথ নিয়েই রাজনীতি করি। আমি কোন প্রকার কুট রাজনীতি বুঝিনা বা করতেও চাইনা। আমার নেতা এডভোকেট আনিসুল হকের নির্দেশে সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করি। মানুষের জন্য এবং উন্নয়নের জন্য কোন কাজে আমি ভয় পাই না। আমি জনগণের মাঝে থাকতে চাই। জনগণের শ্রদ্ধা ভালোবাসা নিয়েই রাজনীতিতে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। মানুষের ভালোবাসাকে জীবনের সবচেয়ে বড় অর্জন মেনে নিয়েই বাকি জীবন কাটিয়ে দিতে চাই। আখাউড়ার মানুষের কল্যাণে ও আমার প্রিয় দল আওয়ামী লীগের কল্যাণে। তিনি বলেন আমার রাজনৈতিক গুরু গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের আইন বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক এমপি, তিনি আমার অভিভাবক। তিনি কসবা-আখাউড়ার মেহনতী মানুষের নেতা, খেটে খাওয়া মানুষের প্রানের বন্ধু। উনার নীতি আদর্শে আমি অনুপ্রাণিত।
    আখাউড়া পৌরসভার মেয়র তাকজিল খলিফা কাজলের হাত ধরেই আখাউড়াতে ফিরেছে শৃঙ্খলা, বিরাজ করছে শান্তি। তিনি খুব স্বল্প সময়ের সকল বয়সী মানুষের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন এই তরুণ নেতা তাকজিল খলিফা কাজল। কাজলের মাঝেই আখাউড়া আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব খুঁজে পাচ্ছে প্রবীণ নেতারা। তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতে তিনি আগামী আওয়ামীলীগের কর্ণধার। যা প্রমাণিত হলো আখাউড়া বাসির শান্তি প্রতিষ্ঠার মধ্য দিয়ে। তরুণ এ নেতার প্রশংসায় পঞ্চমুখ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারাও। কারণ তার অক্লান্ত পরিশ্রমে আখাউড়া উপজেলা পরিণত হয়েছে শান্তি রাজনীতি ও আনন্দের নগরীতে। উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক পৌর মেয়র তাকজিল খলিফা কাজলের সুষ্ঠু নেতৃত্বের উন্নয়ন, সুন্দর শান্তি ফিরেছে আখাউড়াতে। তার ডাকে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ থেকে শুরু করে পাঁচটি ইউনিয়ন একটি পৌরসভার সকল নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ। প্রতিটি এলাকায় তার নেতৃত্ব ছড়িয়ে পড়েছে। সারা উপজেলায় একটি নাম উচ্চারিত হচ্ছে তা হলো সবার প্রিয় কাজল ভাই। তৃণমূল নেতাকর্মীরা মনে করেন আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের শেষ ভরসাস্থল তাকজিল খলিফা কাজল। তিনিও তৃণমূল নেতাকর্মীদের কোনো বিপদের কথা শুনলেই ছুটে যান সেখানে। সব মিলিয়ে এই তরুণ নেতা, কর্মীদের মন জয় করে নিয়েছেন। যার ফলে তরুণ এই নেতা তাকজিল খলিফা কাজল মানুষের মনে জায়গা করে নিচ্ছেন,তাতে বলাই যায় আখাউড়ার রাজনৈতিক আকাশে উজ্জ্বল নক্ষত্র তিনি।

    Facebook Comments Box



    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮২৯৩০  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম