• শিরোনাম


    আকাশ জুড়ে মেঘ

    নেয়ামত উল‍্যাহ তারিফ: | ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১০:৫৯ পূর্বাহ্ণ

    আকাশ জুড়ে মেঘ

    রাতটি ছিলো শুক্লপক্ষের। জোছনার বানে ভেসে যাচ্ছিল চারপাশ। চাঁদের সাথে মধুর মিতালিতে মেতেছিলো নক্ষত্ররাজি। থেকে থেকে ডাকছিলো রাত জাগা পাখি। নিলুয়া বাতাসে পাখির সুরের সনে ভেসে আসছিলো হাসনাহেনার সুবাস। মায়াভরা এমন রজনীতে প্রকৃতির প্রতি গভীর টান অনুভব করে মানুষ।

    আধুনিকতার এ যুগে এমন সুন্দর সুবর্ণ পরিবেশে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে খানিকটা মগ্ন ছিলো দিপিতা (নামটি কাল্পনিক)। হাঠাৎ এমন একটি পোস্ট তার চোখে পড়ে যার জন্য মোটেও সে প্রস্তুত ছিলো না। পোস্টটি পাঠে তার গায়ের পশম দাঁড়ায়, জলে ভরে চোখ, ভয়ে শুকিয়ে যায় কলিজাটা, বুঝি শিরায় উপশিরায় রক্ত চলাচলও বন্ধ হয়ে যাবে !



    পোস্টটিতে ছিলো মাইজদীতে গৃহশিক্ষকের হাতে নিজ বাসায় খুন হয় অদিতা, ফেনীতে মাদ্রাসা শিক্ষকের হাতে জীবন দিতে হলো নুসরাতকে, ভিকারুন নেসা নুন স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক পরিমল কর্তৃক একাধিক ছাত্রী ধর্ষিত, টাঙ্গাইলে চলন্ত বাসে যুবতী ধর্ষণ ও হত্যা এবং আরো কয়েকটি হিংস্রজন্তুর নখের আঁচড়ের শিরোনাম।

    দিপিতা নিজেকে কিছুটা সামলে নিয়ে ভাবে একাত্তরের সংগ্রামের সময়ে রক্তে, ঘামে, নোনা জলে ভিজেছিলো বাংলার মাটি আবার কোথাও কোথাও নদীর ঘোলা জল হয়েছিলো রক্তে লাল। সেই বাংলার কেন এমন করুণ দশা ? বাংলা মা কেন আজো বিলাপ করে কাঁদে ? বাংলা মায়ের স্বপ্নগুলো কেন গাছের পাতার মতো হলুদ হয়ে ঝরে ?

    দিপিতা ফিসফিস করে নিজেকে নিজে হুমায়ুন আজাদের মতো প্রশ্ন করে আমরা কি এ বাংলাদেশ চেয়েছিলাম ? দিপিতাকে আবার হুমায়ুন আজাদ উত্তর দেয়- সব কিছু নষ্টদের অধিকারে যাবে।

    দিপিতাদের ভাবনায় আমাদের মনে প্রশ্নের উদয় হয়েছে – এমনটি কেন হচ্ছে ? বারবার লজ্জিত হচ্ছে কেন স্বাধীন বাংলা ? এ থেকে উত্তরণের উপায় কি ? প্রশ্নত্রয় নিয়ে আমরা মুখোমুখি হয়েছি সুবর্ণচরের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের নিকট।

    ৬নং চরআমান উল‍্যাহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অধ‍্যাপক মোঃ বেলায়েত হোসেন বলেন, ধর্ষণের মতো ভয়ংকর অপরাধের প্রধানতম কারণ মানসিকতার সংকট। মানসিকতার উন্নয়নের জন্য পারিবারিক শিক্ষা গুরুত্বপূর্ণ একটি সোপান। এছাড়াও দুষ্টের দমন করার জন্য আইনকে সহায়তা করা প্রত্যেকের দায়িত্ব ও কর্তব্য। আমাদের আইনজীবীদেরকে পেশাগত কাজ করার সময় দেশপ্রেম সর্বদা হৃদয়ে লালন করতে হবে।

    ডেসটিনি কলেজের প্রভাষক মোঃ আবদুল মোতালেব বলেন, মানব জীবনের সকল সমস্যার একমাত্র সমাধান পবিত্র আল-কোরআন। আল-কোরআনের নির্দেশিত পথে আমরা পরিচালিত হলে পাবো উভয় জাহানে সুখ আর সুখ। যে সুখের নেই কোন দাড়ি কিংবা কমা। আল্লাহর দেওয়া সুখ হবে অনন্ত অপরিসীম।

    ব‍্যবসায়ী মোঃ তারেক আজিজ বলেন কিশোর গ্যাং, মাদক, রাজনীতির নেতিবাচক প্রভাব, অভিভাবকদের দায়িত্ব পালনে উদাসিনতা, সুশিক্ষার নিম্নহার, দারিদ্রতা, ধর্ম চর্চায় অবহেলা ইত্যাদি কারণে ধর্ষণ এর মতো ঘৃণিত অপরাধ সংঘটিত হয়। চিহ্নিত সমস্যা সমূহের সমাধানের মাধ্যমে জন্তুদের হিংস্র থাবা থেকে রেহায় পাবে আমাদের মেয়ে, বোন, মা।

    দিপিতারা থাকুক নিরাপদে, তাদের স্বপ্নগুলো হোক ডালিম ফুলের মতো আহ্লাদে লাল, ইচ্ছে ঘুড়িরা উড়ে বেড়াক আকাশে বাতাসে। দিপিতাদের অভিভাবকদের আকাশ জুড়ে জমে থাকা মেঘের উপরে আরো মেঘ যত সব মেঘ আছে সমস্তগুলো সরে গিয়ে রাতটি হোক জোছনাময়, দিনটি হোক রোদেলা। দিপিতাদেরকে নিয়ে দেখা স্বপ্নগুলো রঙিন প্রজাপতির মতো মেলুক পাখনা।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
     
    ১০১১১২১৩
    ১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
    ২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
    ২৮২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম