• শিরোনাম


    আঁধারের পথে তরুণ প্রজন্ম: -মোঃ মাহফুজুর রহমান পুষ্প

    সংগ্রহে: এস.এম অলিউল্লাহ, স্টাফ রিপোর্টার | ২০ ডিসেম্বর ২০১৯ | ১২:২১ পূর্বাহ্ণ

    আঁধারের পথে  তরুণ প্রজন্ম: -মোঃ মাহফুজুর রহমান পুষ্প

    একটি জাতি স্বপ্ন দেখে তরুণ প্রজন্মকে নিয়ে । রাষ্ট্র, সমাজ, পরিবার সব কিছুতেই তরুণকে সামনে দেখতে চাই সকল শ্রেণি পেশার মানুষ । তরুণ মানেই আগামী, তরুণ মানেই স্বপ্ন পূরনের পথে এগিয়ে থাকা । কিন্তু ! কোন পথে আজ সেই স্বপ্ন পুরণের নায়কেরা ? যাদের নিয়ে স্বপ্ন দেখে মা বাবা সমাজ ও রাষ্ট্র । সেই সব আগামী প্রজন্ম আজ কোন পথে আছে, কেমন আছে তারা, আমরা কি আদৌ খোজ নিয়েছি ওদের । আমরা কি ওদেরকে আলোর পথ দেখাতে একবারের জন্য ও উদ্যোগী হয়েছি ? যে প্রজন্ম দেশ সমাজ ও জাতি গড়ার কথা সেই প্রজন্মের হাতে কেন আজ মাদক ? যে প্রজন্ম জাতির মুখ আলোকিত করার কথা সেই প্রজন্ম কেন মাদকের ভয়াল ছোবলে আজ আঁধারের পথে ? আমরা একবারো কি তাদের আলোর পথে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করেছি ? আমরা কেন রাষ্ট্রের প্রতিটা মানুষকে আজো নিজের পরিবারের একজন ভাবতে পারছি না ? আমরা কেন মাদকাসক্তের কাছে আলোর বার্তা নিয়ে পৌছাতে পারছি না ? এই প্রশ্ন গুলো কি আমরা এড়িয়ে যেতে পারি ? একজন বিবেকবান মানুষের পক্ষে কখনোই তা সম্ভব নয় । কিন্তু বিবেকহীন হলে তো কথায় নেই ।

    আমার গোকর্ণঘাট থেকে শুরু করে আমার দেখা প্রতিটা এলাকার তরুণ সমাজের মাঝেই মাদক আজ ছায়ার মত লেগে থাকছে । সমাজের এক শ্রেণির অতি অর্থ লোভি কিছু মানুষ রয়েছে যারা আগামী প্রজন্মকে বিনাসের বিনিময়ে টাকার পাহাড় গড়তে মরিয়া হয়ে উঠেছে । সমাজ ও রাষ্ট্র ধ্বংসের বিনিময়ে যারা হারাম উপার্জনের মাধ্যমে নিজের সুখ গড়তে সদা জাগ্রত, সেই সব অসৎ মানুষদের সাথে সখ্যতা গড়ে তুলে এক শ্রেনির অসাধু প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তিরা । এই দুই শ্রেনীর অসৎ ব্যক্তিদের যৌথ প্রচেষ্টার মাধ্যমের ধ্বংস করে দেওয়া হচ্ছে তরুণ প্রজন্মকে । তাদের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে মাদক । নিজেদের স্বার্থে তরুণদের ব্যবহার সহজলভ্য করতে ওদের মাদকাসক্ত না বানানোর কোনই বিকল্প নেই হারামখোরদের ।



    তাই এক শ্রেণীর কুৎসিত মনের মানুষ অল্প সময়ে বিশাল অর্থ বিত্তের মালিক বা নিজের ব্যক্তি স্বার্থ বা রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের উদ্দেশ্যে জাতির ভবিষ্যৎ তরুণ প্রজন্মকে ধ্বংস করে তাদেরকে আঁধারের পথে ঠেলে দিচ্ছে ! যা একটি জাতির জন্য মারাত্মক অশুভ লক্ষ্মণ । এর থেকে আগামী প্রজন্মকে বের করে না আনতে পারলে – এ জাতির ভাগ্যে যে ভয়ানক পরিনতি অপেক্ষা করতেছে তা সহজেই অনুমেয় । আমার গ্রামেই যে হারে মাদক বিক্রেতা, সেবন কারী ও মাদক সেবনের টাকা জোগাড় করতে মরিয়া মাদকাসক্তরা চুরি সহ নানান অসামাজিক কাজে জড়িয়ে পড়ছে তা রীতিমত ভীত সন্তপ্ত হয়ে উঠার মত ! এই অবস্থা চলতে থাকলে আমাদের গ্রামে সাধারণ মানুষের স্বাভাবিক ভাবে চলাচলের পথে অনেকটাই রুদ্ধ হয়ে যাবে বলে মনে করি ।

    তবে আশ্চর্যের বিষয় হল তরুণ প্রজন্মের এমন অধঃপতন দেখে সমাজ পতি কিংবা জনপ্রতিনিধি কারোই যেন মাথা ব্যথা নেই । সবাই মরিয়া যে কোন মূল্যে টাকা কামায় করতে । কিন্তু ! বর্তমান ও আগামীর সমাজ ও রাষ্ট্র মেরামতের কারিগর তরুণ প্রজন্মকে বাঁচাতে কারোই যেন কিছুই করার নেই । এভাবেই কি আগামীর বাংলাদেশকে আমাদের চোখের সামনে তিলে তিলে শেষ হয়ে যেতে দিতে থাকবো ? আমাদের কি কারোই দায়বদ্ধতা নেই ওদের প্রতি ? আসুন না সবাই মিলে বাঁচিয়ে রাখি – তরুণ প্রজন্মকে । ওরা বাঁচলেই বাচঁবে আপনার আমার স্বপ্ন। বাঁচবে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি, গড়ে উঠবে একটি বাসযোগ্য সোনার বাংলাদেশ ।

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম