• শিরোনাম


    অর্থবল: -ম.কাজী এনাম

    লেখক -ম. কাজী এনাম, স্টাফ রিপোর্টার | ২৩ আগস্ট ২০১৯ | ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ

    অর্থবল: -ম.কাজী এনাম

    ‘অর্থবল’ বলে প্রচলিত অর্থে যে অর্থ খুজে পাওয়া যায়, সেখানে অর্থকে অনেকটাই তুচ্ছরূপে প্রকাশ করা হয়েছে। মৌলিক অর্থে ‘অর্থবল’ বলতে শুধুমাত্র অর্থের যোগান-চাহিদাবিধি পর্যন্ত সিমাবদ্ধ নয়। বরং অর্থায়ন, মুনাফা, সুদ-ঘুষ, দুর্নীতি, ক্ষমতার চালিকাশক্তি, সম্পর্কের রসদ, আলোচনার জোড়ালো প্রেক্ষাপট, অবিসংবাদিত নানান বহিঃপ্রকাশ সহ এই বলের কাছে বাকি জগতটা একদমই তুচ্ছ। ইহার অপর নাম এভাবে বলা যায় যে ‘মহাপ্রলয় বা মহাবলয়।’
    আপন-পর, আমি-তুমি, তুই-তোমরা, সে-তিনারা.. সবার কাছেই এই বলের বাহ্যিক বহিঃপ্রকাশ দেখার মতো।
    কোন এক সঙ্গিতে রবিঠাকুর বলেছিলেন, ‘বল দাও,বল দাও..!’
    ঠাকুর পরিবারে জন্ম না নিলে হয়তবা তিনিও বলতেন, ‘টাকাখড়ী দাও, যা আছে দাও.. আরও দাও’
    এই বলের কাছে মানবিক সম্পর্কগুলো উপহাস্য। যার কাছে যত বেশি অর্থবল আছে, সে তত বড় পরাক্রমশালী।
    আধুনিক বিজ্ঞানের কাছে এই মহাবলের ধরন ভিন্নতর হলেও গুরুত্ববহ আরও বেশি বিস্তৃত। সকল কাজ, সম্পর্ক, আচার-অনুষ্টান, ভোগ্যদ্বৃত্ত সহ মায়া-ভালবাসার মানদন্ডগুলোও ইহার কাছে এসে অতিসরল, দুর্বল হয়ে যায়, এমন কি নৈতিক চেতনাবোধ হারিয়ে ফেলে। আবহমান কালের মাঝে ইহাই প্রমাণ হয়ে আসছে…!

    মায়া অথবা ভালবাসা এই অর্থের কাছে দায়বদ্ধ। এই দায় এড়ানোর জন্য সবাই’ই ভিন্নমত, ভিন্নধারনা, ভিন্ন আচরণ প্রকাশ করে থাকে। কিন্তু কেহই সরাসরিভাবে ইহাকে এড়িয়ে চলতে পারেনা। ইহা যেন মানবিক জীব, আর সে তার প্রাণ সঞ্চারণ করতে বারবার মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে এগিয়ে যায়, নিজেদের অসহায়ত্ব ঢাকতে ঘুরে দাড়ায়, পথ চলায় হুছট খায়, স্বপ্ন দেখে, স্বপ্নবুনে, এমনই কি নিজের সকল অপ্রিয় কাজগুলোও নির্দ্বিধায় সাধন করে যায়….!



    #অপরাহ্ন, ২২.০৮.১৯ঈ:

    Facebook Comments Box

    এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

    আর্কাইভ

    শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
    ১০১১১২১৩১৪
    ১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
    ২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
    ২৯৩০৩১  
  • ফেসবুকে আওয়ারকণ্ঠ২৪.কম